লকডাউনে লাইভ: বিসিবি ও আইসিসির গাইডলাইন মানতে হবে তামিমদের

তামিম ইকবাল ভিরাট কোহলি
Vinkmag ad

করোনাকালে গৃহবন্দী সময়টায় চারদিকে যেন লাইভ আড্ডার হিড়িক পড়েছে। জাতীয় দল থেকে যুব দল কিংবা প্রথম শ্রেণি বাদ যায়নি কোন পর্যায়ের ক্রিকেটার। বিভিন্ন লাইভ আড্ডায় ক্রিকেটীয় নানা আলোচনার ফাঁকে নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন, মজার স্মৃতিও রোম্নথন করেন তারা। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের নিয়মিত লাইভ প্রোগ্রামতো প্রশংসা কুড়িয়েছে সবারই। তার সাথে লাইভ আড্ডা দিতে অতিথি হিসেবে ছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, মুশফিকুর রহিম, ভিরাট কোহলি, ফাফ ডু প্লেসিসের মত দেশি-বিদেশি তারকারা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন অবাধ বিচরণ করতে দেখা গিয়েছে প্রায় সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশের তারকাদের। গৃহবন্দী সময়ে এমন বাড়তি সময় কাটানোকে সুযোগ হিসেবে নিতে পারে জুয়াড়িরা এমনটাই মনে করে আইসিসি। ইতোমধ্যে দুই একটি প্রমাণও পেয়েছে তারা, ফলে বোর্ডগুলোকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে চিঠিও।

আর তারই প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) বলছে আইসিসি ছাড়াও তাদের নিজস্ব গাইডলাইন থাকে এসব ব্যাপারে। ফলে ক্রিকেটারদের লাইভ করতে হলেও সেটা বিসিবি প্রদত্ত নিয়মকানুন মেনেই করতে হবে।

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান বলেন, ‘আমরা যখন ক্রিকেটারদের সঙ্গে চুক্তি করি তখন এই বিষয়গুলোর বিধিনিষেধ ও গাইডলাইন দিয়ে দেই। ক্রিকেটাররা জানেন লাইভে এসে তাদের করণীয় কী।’

‘এখন আইসিসি যে চিঠি দিয়েছে তাতে যদি নতুন কিছু থাকে অবশ্যই আমরা তা নিয়ে আলোচনা করবো। আর এখন আমাদের যে গাইডলাইন দেওয়া আছে তা মেনেই ক্রিকেটারদের লাইভ করতে হবে।’

এদিকে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন সুজনও বলছেন নিয়ম মেনেই লাইভ করতে হবে ক্রিকেটারদের। সাথে আইসিসির দেওয়া চিঠিতে নতুন কোন গাইডলাইন থাকলে সেটা নিয়েও আলোচনা করবেন তারা।

‘দেখেন প্রতিটি ক্রিকেটারের সঙ্গে চুক্তির সময় টিভি থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের আচরণ কেমন হবে বা কী করণীয়, কী বলা যাবে বা যাবে না তা উল্লেখ থাকে। এই বিষয়গুলো ক্রিকেটাররা অবগত আছে। আইসিসি সতর্ক করেছে, অবশ্য আমরা বিষয়টা দেখছি। যদি কিছু বলার থাকে তা আলোচনা করেই সিদ্বান্ত নেয়া হবে।’

তবে এখনই লাইভ বন্ধ করার প্রসঙ্গে কিছু বলতে পারছেন না উল্লেখ করে তিনি আরু যোগ করেন, ‘এখনই বলতে পারছি না, নিয়মগুলো দেখে বলতে হবে। তবে আমাদের যে গাইডলাইন আছে সেভাবেই তাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উপস্থিত হতে হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল ফিক্সড ছিল’

Read Next

করোনা যখন দেশি পেসারদের জন্য আশীর্বাদ!

Total
5
Share