যে আক্ষেপে এখনো পোড়েন মিরাজ

মেহেদী হাসান মিরাজ ব্যাটিং
Vinkmag ad

২০১৮ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। সেদিন সবাইকে অবাক করে দিয়ে লিটন দাসের সঙ্গে টাইগারদের হয়ে ওপেন করতে নেমেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সেই ম্যাচকে ঘিরে আক্ষেপ আছে মিরাজের।

আগে ব্যাট করে স্কোরবোর্ডে ২২২ রান তুলতে পারে বাংলাদেশ। জবাবে শেষ বলে যেয়ে ৩ উইকেটের নাটকীয় জয় পায় ভারত।

সেদিন লিটনের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটিতে ১২০ রান যোগ করেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ২১ তম ওভারের ৫ম বলে ব্যক্তিগত ৩২ রানে আউট হয়েছিলেন মিরাজ। ৫৯ বলে ৩ চারে সাজানো ইনিংসটি বড় করতে পারেননি তিনি। তাতে দায় অবশ্য হাতের ক্র্যাম্পের।

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট বিডিক্রিকটাইমের ফেসবুক পেইজে লাইভে এসে মেহেদী হাসান মিরাজ জানান সেদিন হাতে ক্র্যাম্পের কারণে শেষদিকে ব্যাট ধরতেও পারছিলেন না ঠিকভাবে। আউটও হয়েছেন সেকারণেই। মিরাজের আক্ষেপ ঐ সময়ে উঠে না যাওয়া। সেসময় উঠে গেলে শেষের দিকে দলের রান বাড়াতে পারতেন বলে মনে হয় তার।

মিরাজ বলেন, ‘এশিয়া কাপের ফাইনালে আমি যখন খেলেছিলাম আমার হাত ক্র্যাম্প করেছিল। আমার মনে হয় আমি যদি ওখানে উঠে যেতাম, আমি পারছিলাম না। লাস্ট মোমেন্টে আউট হয়েছি, বলতে গেলে আমি ব্যাটও ধরতে পারছিলাম না। এজন্য আউট হয়ে গেছি, আমি যদি ওখানে উঠে যেতাম তাহলে পরে হয়তো নামার সুযোগ থাকত। আমরা হয়ত আরো বেশি রান করতে পারতাম, হয়তো ম্যাচটা জিততে পারতাম। এটা খুব আফসোস লাগে।’

ব্যাটিংয়ে মন্দের ভাল করা মিরাজ সেদিন বল হাতে ভাল করতে পারেননি। ৪ ওভার বল করে ২৭ রান খরচ করেও ছিলেন উইকেটশুন্য।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

হঠাৎ করেই মিরাজের আইডল হয়েছিলেন রমেশ পাওয়ার

Read Next

কাল থেকে ট্রেনিংয়ে ফিরছেন লঙ্কানরা

Total
5
Share