হঠাৎ করেই মিরাজের আইডল হয়েছিলেন রমেশ পাওয়ার

রমেশ পাওয়ার মেহেদী হাসান মিরাজ
Vinkmag ad

মুম্বাইয়ে জন্ম নেওয়া রমেশ পাওয়ার খুব আলোচিত ক্রিকেটার ছিলেন। যতটা না ক্রিকেট খেলার জন্য তার চেয়ে বেশি তার শারীরিক গড়নের জন্য। ২০০৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ভারতের হয়ে ২ টেস্ট ও ৩১ ওয়ানডে খেলা রমেশ পাওয়ার পেয়েছেন ৬১ আন্তর্জাতিক উইকেট। এই ৪২ বছর বয়সী সাবেক ভারতীয় অফস্পিনারই বোলিংয়ে মেহেদী হাসান মিরাজের আইডল!

এর আগে টাইগারদের হয়ে অভিষেকের পরেই জানিয়েছিলেন রমেশ পাওয়ারকে আইডল মানেন বোলিংয়ে। এবার জানালেন কীভাবে রমেশ পাওয়ারের অ্যাকশনের ভক্ত হলেন তিনি।

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট বিডিক্রিকটাইমের ফেসবুক পেইজে লাইভে এসে মেহেদী হাসান মিরাজ বলেন, ‘হ্যা, রমেশ পাওয়ার আমার বোলিং আইডল। কারণ আমি যখন ছোটবেলায় প্র্যাকটিস করা শুরু করি, তখন আমি বিভিন্ন স্টাইলে বোলিং করতাম। তো আমি বিভিন্ন স্টাইলে বোলিং করলে স্বাচ্ছন্দ্য পেতাম না। এবং আমি ওরকম ভালো জায়গাতেও বল করতে পারতাম না।’

‘তো হঠাৎ করে একদিন ভারতের একটা ম্যাচ দেখছি, দেখতে দেখতে রমেশ পাওয়ার বল করছে। বেশ মোটা ছিল রমেশ পাওয়ার তখন এবং বলে টার্নও ছিল (হাসি)। আমি দেখছি ওর বোলিং স্টাইলটা খুব সুন্দর, আবার অনেক টার্নও আছে। আবার চিন্তা করছি- এত মোটা মানুষ, এত সুন্দর জায়গায় বল করছেন, টার্নও করছে। দেখি না একদিন মাঠে গিয়ে প্র্যাকটিস করে, চেষ্টা করে।’

রমেশ পাওয়ারের মত করে বল করার চেষ্টায় সফল হয়েছিলেন মিরাজ। এরপর থেকে অ্যাকশনে কিছুটা পরিবর্তন আসলেও ভিত্তিটা রমেশ পাওয়ারের অনুকরণ করেই পাওয়া।

মিরাজ বলেন, ‘হঠাৎ করে মাঠে গিয়ে চেষ্টা করা শুরু করলাম। তো আমি দেখলাম ঐ অ্যাকশনে আমার খুব ভালো বোলিং হচ্ছে। বল ভালো জায়গায় পড়ছে, টার্ন হচ্ছে। আমি চিন্তা করলাম, এখন থেকে এই অ্যাকশনেই বল করা শুরু করব। তারপর থেকে রমেশ পাওয়ারের অ্যাকশনেই বল করা শুরু করি, ও অ্যাকশন দেখেই। প্রথমদিকে আমার ওর মতোই অ্যাকশন ছিল, এখন হয়ত কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ঢাকায় খেলা যে ইনিংস কোহলির চোখে ‘গেম চেঞ্জার’

Read Next

যে আক্ষেপে এখনো পোড়েন মিরাজ

Total
5
Share