শফিউল জানালেন সেদিন কি ঘটেছিল

সাকিব আল হাসান শফিউল ইসলাম ২০১৪ এশিয়া কাপ
Vinkmag ad

ক্যারিয়ারে বেশ কয়েকবারই নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়তে হয়েছে বাংলাদেশের শীর্ষ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। তবে তার মধ্যে ২০১৪ সালে এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে ড্রেসিং রুম থেকে অশালীন অঙ্গভঙ্গি দেখিয়ে তিন ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হওয়াটা অন্যতম। টিভি স্ক্রিণে যে অশোভন ইঙ্গিত দেখতে পায় লাখ লাখ ভক্ত সমর্থক।

মূলত হাতের মুঠোয় থাকা ম্যাচটা বের করে আনার আগেই আউট হয়ে ফেরা সাকিব মেজাজ হারান ভালোভাবেই। একদিকে সুযোগ থাকা সত্বেও ম্যাচ বের করতে না পারা অন্যদিকে ড্রেসিং রুমে মন খারাপ অবস্থায় থাকা সাকিবের দিকেই টিভি ক্যামেরা তাক করে রাখা হয়। শুধুই টাওয়েল জড়িয়ে রাখা সাকিব সহজভাবে নেননি বিষয়টি। মুহূর্তেই মেজাজ হারিয়ে করে বসেন অশালীন এক কান্ড।

সেই ঘটনা কেন্দ্র করে তিন ম্যাচ নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি ৩ লাখ টাকা জরিমানাও গুনতে হয় সাকিবকে। ঐ ম্যাচে ড্রেসিং রুমে থাকা পেসার শফিউল ইসলাম গতকাল (১৫ মে) ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকফ্রেঞ্জির’ লাইভ আড্ডায় অতিথি হিসেবে এসে জানিয়েছে আসলে কি ঘটেছিল সেদিন।

ডানহাতি এই পেসার বলেন, ‘আসলে ঐ ম্যাচটা খুব ক্লোজ ছিল আমাদের জন্য। ঐ সময় সাকিব ভাই গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে আউট হয়ে খুব উত্তেজিত ছিল। ফ্রেশরুম থেকে ফ্রেশ হয়ে টাওয়েল পড়েই চলে আসছিল ড্রেসিং রুমে। আসলে উনিও বুঝে নাই। ক্যামেরাটা যখন ধরেছিল তখন উনি বলেছিলেন ক্যামেরা সরাতে। হয়তো মনের অজান্তেই ওভাবে বসেছিলেন। আসলে ড্রেসিংরুমে তো অনেক কথাই হয়। কথা বলতে বলতে আমি হাসছিলাম।’

‘ঐসময় ফানি কথা হচ্ছিলো। আমিও হেসে দিয়েছিলাম। তো পরে আমাকেও ডাকা হয়েছিল জিজ্ঞেস করেছিল ওখানে কি হয়েছিল। আমি তখন বলেছি আসলে অনেক ধরণের কথা তো হয় আর সাকিব ভাই ওইরকম কিছু বলেনি। যখন সাকিব ভাই আউট হয়ে আসছে তখন তার মনটা হয়তো খারাপ ছিলো। আউট হয়ে এসেছি, ড্রেসিংরুম পর্যন্ত ক্যামেরা ধরার কি দরকার? নিজের অজান্তেই এতো কিছু হয়ে যাবে আসলে কেউ সেটা ভাবে নাই।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আফ্রিদির বিরুদ্ধে ক্যানেরিয়ার ভয়াবহ অভিযোগ

Read Next

‘আপনারা খুবই সারপ্রাইজড এবং খুশিও হবেন’

Total
4
Share