‘মনে হয়েছিল খেলাটা একদম মোয়া, নামবো আর একশ করবো’

মোহাম্মদ আশরাফুল
Vinkmag ad

২০০১ সালে কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রেকর্ড বইয়ে নিজের নাম লিখিয়ে নেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। মাত্র ১৭ বছর ৬১ দিন বয়সে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া আশরাফুলের সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ানের রেকর্ড এখনো অক্ষুণ্ণ আছে। চামিন্দা ভাস, মুত্তিয়াহ মুরালিধরনের মত বোলারের বিপক্ষে চোখে চোখ রেখে ১১৪ রানের ইনিংস খেলার পর কিশোর আশরাফুলের জীবনই বদলে যায়।

রাতারাতি তারকা বনে যাওয়া এই ব্যাটসম্যান সময়ের সাথে সাথে পরিণত হন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম পোস্টারবয় হিসেবেও। বাংলাদেশের বহু প্রথমের ইতিহাস গড়েছেন নিজের হাতে। তবে অভিষেক সেঞ্চুরির পর বদলে যাওয়া জীবন ধরণ ও গণমাধ্যমের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হওয়াকে নিজের জন্য চাপ হয়েছে বলে মনে করেন আশরাফুল।

করোনা ভাইরাস প্রভাবে গৃহবন্দী সময় কাটছে ক্রিকেটারদের। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভ আড্ডায় অংশ নিয়ে সময়টাকে কিছুটা উপভোগ্য করার চেষ্টা করছেন অনেকেই। জনপ্রিয় সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদের ইউটিউব চ্যানেল ‘নোমান নট আউট’ এ গতকাল (১৪ মে) অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম বৈশ্বিক নায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। লম্বা সময়ের আলাপে নানা কথার ফাঁকে জানিয়েছেন অভিষেক টেস্টের পর জীবনটা যত সহজ ভেবেছেন আসলে ততটা সহজ নয়।

সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান হওয়ার পর বদলে যাওয়া জীবনটা সামলে নেওয়া কতটা কঠিন ছিল জানতে চাইলে আশরাফুল বলেন, ‘আমার জন্য আসলে অনেক কঠিন ছিল। ঐ সেঞ্চুরির পর আমার কাছে মনে হয়েছিল খেলাটা একদম মোয়া, নামবো আর একশো করবো। আসলে এতটা সহজ না, খেলাটা অনেক কঠিন ছিল। ঐ সেঞ্চুরির পর অবশ্যই বাংলাদেশ ও আমাকে একটা পরিচয় করিয়েছিল বিশ্বে।’

‘কিন্তু আমার ব্যক্তিগতভাবে ভালো হয়নি (তারকা খ্যাতি পেয়ে যাওয়া)। কারণ আমি শূন্য করলেও দেখা যেত নিউজ পেপারে বড় একটা ছবি আসছে আমার। আমি যাই করছি শেষ (অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরির পর) ৩ মাস বা ৬ মাস প্রতিদিন আমাকে নিয়ে একটা নিউজ হতই।’

তারকা খ্যাতি একটা সময় চাপ হয়ে দাঁড়িয়েছিল উল্লেখ করে সাবেক টাইগার অধিনায়ক যোগ করেন, ‘ওটা ঐ সময় হয়তো আমি উপভোগ করতাম। কিন্তু আমার অনেক বড় একটা চাপ হয়েছে এখন আমি যেটা অনুধাবন করি আরকি। যেমন ওটার পর আমি ২০০১ এ বাংলাদেশ দলের হয়ে খেললাম আবার ২০০২ এ আমাকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলতে পাঠানো হল। যেটা আমি একদমই চাচ্ছিলাম না।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ইটের রাস্তা দিয়ে বনশ্রী গিয়েছিলেন শচীন-হরভজনরা

Read Next

নিজেকে শেষ করে দেবার চিন্তাও করেছিলেন আশরাফুল

Total
6
Share