বিদেশী কোচিং স্টাফের বেতন কর্তন নিয়ে ভাবছে বিসিবি

রাসেল ডোমিঙ্গো, নেইল ম্যাকেঞ্জি, ড্যানিয়েল ভেট্টোরি জুলিয়ান ক্যালেফাতো
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ফলে বিশ্বজুড়ে স্থগিত হয়ে আছে সবধরণের খেলাধুলা। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বোর্ড নিজেদের কর্মকর্তা, ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের বেতন কেটে রাখার ইঙ্গিত দিয়েছে। কিন্তু পরিস্থিতি অনিশ্চয়তার দিকে যাওয়ায় শুরু থেকেই এমন কিছুর বিপক্ষে ছিল বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। তবে বিদেশি কোচদের ক্ষেত্রে একই পথে হাঁটার ব্যাপারে পর্যালোচনা করছে বিসিবি।

করোনা মহামারীর কারণে খেলাধুলা বন্ধ মাস দুয়েকের কাছাকাছি। বোর্ডের অন্যান্য স্টাফদের মত বাংলাদেশ দলের বিদেশি কোচরাও অনির্দিষ্টকালের ছুটিতে আছেন। মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে সিরিজই তাদের সর্বশেষ অ্যাসাইনমেন্ট ছিল। ঐ সিরিজের পরই বিদেশি কোচরা নিজ নিজ দেশে ফেরেন ছুটি কাটাতে, কিন্তু করোনার প্রভাবে আঁটকে আছেন এখনো।

বাংলাদেশ দলের প্রায় সব কোচিং স্টাফই বিদেশি। যাদের মধ্যে প্রধান কোচ দক্ষিণ আফ্রিকান রাসেল ডোমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ ক্যারিবিয়ান ওটিস গিবসন ও ফিজিও জুলিয়ান ক্যালেফাতো বার্ষিক চুক্তিতে কাজ করেন। অন্যদিকে স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি, ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জি ও ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক দৈনিক ভিত্তিকে কাজ করেন টাইগারদের সাথে।

সব মিলিয়ে ৫-৬ মাস বোর্ডের আয় বন্ধ থাকলেই এমন কিছু নিয়ে পুনর্বিবেচনা করবে বোর্ড। ক্রিকেট ভিত্তিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ‘ক্রিকবাজকে’ বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান ও বিসিবি পরিচালক আকরাম খান এমনটা জানিয়েছেন।

আকরাম খান বলেন, ‘সবকিছু স্বাভাবিক হলে কোচদের চুক্তি নিয়ে আমাদের বসতে হবে। কারণ যদি ৫-৬ মাস আমরা আয় ছাড়া পার করি তবে দুই পক্ষেরই স্বার্থ রক্ষা হয় এমন বিষয়গুলো নিয়ে ভাবতে হবে।’

বিশেষ করে স্পিন কোচ হিসেবে কাজ করা নিউজিল্যান্ডের সাবেক তারকা ড্যানিয়েল ভেট্টোরির সাথে বিসিবির চুক্তি বড় অঙ্কের অর্থের। গতবছর বিসিবির সাথে যুক্ত হওয়া এই কিউই কাজ করবেন ১০০ দিন, প্রতিদিন কাজ করার বিনিময়ে নিবেন ২৫০০ মার্কিন ডলার।

তবে দিন গুনে গুনে কাজ করেন বলে ভেট্টোরির চুক্তির সাথে করোনা পরিস্থিতি খুব একটা প্রভাব ফেলবেনা বলে মনে করেন বোর্ডের এই পরিচালক, ‘ভেট্টোরি খুব ব্যয়বহুল, তাই আমাদের দেখতে হবে কীভাবে তার সাথে বিষয়গুলো সম্পন্ন করা যায়।’

‘আমরা তাকে মূলত যতদিন সে কাজ করেছে ততদিনের পারিশ্রমিক দিব। আর এ কারণে তাকে বেশি অর্থ দেওয়ার কোন সুযোগ নেই। যাদের সাথে আমাদের দিন হিসেবে চুক্তি, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সেগুলো প্রয়োজন হলে ব্যবহার করবো নাহলে করবোনা। বোর্ড আসলে অন্যরা যা করছে সেভাবেই সিদ্ধান্ত নিবে। অন্যান্য দেশ যা করবে আমরাও তাই করবো।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ডু প্লেসিসকে বিপিএল খেলার আমন্ত্রণ জানালেন তামিম

Read Next

ফেসবুক লাইভে আসছেন মাহমুদউল্লাহরা

Total
5
Share