গর্ভবতী নারীদের জন্য বীথির ভালোবাসা

আরিফা জাহান বিথী

আরিফা জাহান বীথি এমনিতেই রংপুরের ক্রীড়াঙ্গনে পরিচিত মুখ। জাতীয় দলে খেলা না হলেও এই নারী ক্রিকেটার খেলেছেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ও প্রথম বিভাগ ক্রিকেটও। রংপুর বিভাগীয় দলের হয়ে খেলা এই নারী ক্রিকেটারের চোটের কারণে নিজের ক্যারিয়ার থমকে দাঁড়ালেও স্বপ্ন দেখাচ্ছেন অসংখ্য নারী ক্রিকেটারকে। নারীদের বিনামূল্যের ক্রিকেট কোচিং একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেছেন গতবছর।

মানবিক ও সামাজিক কার্যক্রমেও বীথি এগিয়ে আসেন অন্য সবার আগে। চলতি করোনা সংকটে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন শুরু থেকেই। নিজের সামর্থ্যের সাথে সামাজক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারণা চালিয়ে তহবিল গঠন করে কর্মহীন হয়ে পড়া রংপুরের মানুষদের নিজে গিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিতেন।

তবে গত এক মাস আগে বীথি শুরু করেছেন আরও একটি অসাধারণ কার্যক্রম। করোনা ভাইরসা সংক্রমণের প্রভাবে গর্ভবতী নারীরা আছেন বেশ বিপাকে। এই কঠিন সময়ে তাদের স্বাস্থসেবা নিশ্চিত ও পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ প্রাধান্য পায় সবার আগে। কিন্তু চলমান দূর্যোগে অনেক গর্ভবতী মায়েরই সাধ্যের বাইরে চলে গিয়েছে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও খাবারের যোগান দেওয়া।

বীথি সেসব নারীদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন, খবর পেলেই ছুটে যাচ্ছেন অটোরিকশায় চড়ে খাবার নিয়ে। সাহায্য করা গর্ভবতীর পরিচয়ও গোপন রাখছেন এই নারী ক্রিকেটার। রংপুরজুড়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে তার এই দারুণ উদ্যোগ। গর্ভবতী নারীদের একটি ফোন কলেই হাজির বীথি। গত একমাসে ২০০ এর বেশি গর্ভবতী মায়ের ডাকে সাড়া দিয়েছেন মানবিকতার অনন্য নজির দেখানো বীথি।

মূলত নিজের জমানো টাকার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আর্থিক অনুদান চেয়ে চালানো প্রচারণাতেই তহবিল গঠন হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে আরিফা জাহান বীথি ‘ক্রিকেট৯৭’ কে বলেন,

‘আসলে আমার ব্যক্তিগত জমানো অর্থের পাশাপাশি এমন একটি সামাজিক কাজে মানুষের ভালো সাড়া পেয়েছি।’

এমন উদ্যোগের পেছনের কারণ জানাতে গিয়ে বীথি যোগ করেন, ‘আমি শুরু থেকেই অসহায়দের পাশে ছিলাম। নিজে হাতে প্যাকেট করে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য দ্রব্য পৌঁছে দিয়েছি তাদের কাছে। ঐ সময় একজন গর্ভবতী মহিলা আমাকে ফোন দিয়ে সাহায্য চেয়েছিল তখনই মাথায় আসলো তাদের পাশে দাঁড়াবো।’

‘আমাদের দেশে গর্ভবতী নারীরা এমনিতেই গর্ভকালীন সময়ে পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা পায়না আর এখন যেহেতু করোনা সংকট সেহেতু আরও খারাপ অবস্থা তাদের। এই ভাবনা থেকেই আমার এই উদ্যোগ নেওয়া, তাদের পাশে দাঁড়ানো।’

গতবছর ‘ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি’ নামে নারীদের জন্য তার প্রতিষ্ঠা করা ক্রিকেট একাডেমিতে ২৫০ এর বেশি নারীদের বিনামূল্যে ক্রিকেট প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ২০১৭ সালে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ইতি ঘটে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলা আরিফা জাহান বীথির। এরপর অন্যদের মাঝে স্বপ্নের বীজ বুনে দিতেই তার এই উদ্যোগ।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ ওয়াহাব-আমির-হাসান

Read Next

তামিমকে ফাফ ডু প্লেসিস: ‘তোমাদের সমর্থকরা অসাধারণ’

Total
86
Share