‘যুবরাজের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে ধোনি-কোহলিরা’

যুবরাজ সিং যোগরাজ সিং ভিরাট কোহলি মাহেন্দ্র সিং ধোনি
Vinkmag ad

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার, বিশ্বকাপজয়ী দলের সুদস্য যুবরাজ সিংয়ের পিতা যোগরাজ সিং মাহেন্দ্র সিং ধোনি, ভিরাট কোহলির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে যোগরাজ সিং বলেন ধোনি ও কোহলি সহ অনেকেই যুবরাজ সিংকে পেছন থেকে ছুরিকাঘাত করেছেন।

স্পোর্টস্টারের সাথে ইনস্টাগ্রাম লাইভে যুবরাজ সিং বলেছিলেন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির কাছ থেকে তিনি যেমন সাহায্য পেয়েছেন, তেমনটি পাননি ধোনি ও কোহলি অধিনায়ক থাকার সময়ে।

ভারতীয় গণমাধ্যম নিউজ২৪ এই ইস্যুতেই প্রশ্ন করে যুবরাজ সিংয়ের পিতা যোগরাজ সিংয়ের কাছে। যোগরাজ বলেন, ‘ধোনি ও কোহলি ছাড়াও আমি বলবো নির্বাচকরাও যুবরাজের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। আমি রবির সঙ্গে দেখা করেছিলাম কিছুদিন আগে। সে আমাকে ছবি তুলতে বলেছিল। আমি তাকে বলেছিলাম গ্রেট ক্রিকেটাররা তাদের পারফরম্যান্সের জন্য ভালো একটা বিদায় আশা করতে পারে।’

‘অনেকেই যুবরাজকে পেছন থেকে ছুরিকাঘাত করেছে, এটা আমাকে পীড়া দেয়। আমি বোর্ডকে অনুরোধ করবো যখন ধোনি, কোহলি, রোহিতরা অবসর নিবে তখন যেনো তাদেরকে ভালোমত বিদায় দেওয়া হয়। তারা ভারতীয় ক্রিকেটকে অনেক কিছু দিয়েছে।’

নির্বাচকদের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে যোগরাজ বলেন, ‘ভারতীয় নির্বাচক শরণদ্বীপ সিং, তিনি মিটিংয়ে যেতেন এবং বলে আসতেন যুবরাজকে যেনো বাদ দেওয়া হয়। যারা ক্রিকেটের এবিসি জানে না তাদেরকে নির্বাচকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তাদের থেকে আপনি কি ই বা আশা করতে পারেন।’

যোগরাজ যোগ করেন, ‘এটা খুবই পীড়াদায়ক যখন পিছন থেকে আপনাকে কেউ ছুরিকাঘাত করে। যুবরাজ যদি এরকম পারফরম্যান্স করে যেতে থাকে তাহলে তাদের কি হবে, এই ভাবনায় তারা ভীত ছিল।’

২০১১ বিশ্বকাপে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে টুর্নামেন্ট সেরার পুরষ্কার জিতেছিলেন যুবরাজ সিং। তবে যোগরাজ সিং মনে করেন যুবরাজকে বাদ দিয়ে সুরেশ রায়নাকে প্রাধান্য দেবার কথা ভাব হয়েছিল।

‘আমি আরো একটা কথা জানতে পেরেছি, যেটা আমি কতটুকু সত্য সেসম্পর্কে নিশ্চিত নই। একটা সভায় একজন বলেছিল ভারতীয় দলে যুবরাজ সিংয়ের প্রয়োজন নেই কারণ দলে সুরেশ রায়না আছে।’

কিছুদিন আগেই স্পোর্টস তাকের সঙ্গে কথা বলা সময় ধোনির বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ এনেছিলেন যুবরাজ সিং। বলেছিলেন, ‘সুরেশ রায়না তখন অনেক সাপোর্ট পেয়েছে। কারণ এমএস (মাহেন্দ্র সিং) তাকে ব্যাক করতো। প্রত্যেক ক্যাপ্টেনেরই একজন ফেভারিট ক্রিকেটার থাকে, আমার মতে মাহি সেসময় রায়নাকে অনেক ব্যাক করেছে।’

ব্যাটিং অলরাউন্ডার হিসাবে ইউসুফ পাঠান, সুরেশ রায়নার সঙ্গে ছিলেন যুবরাজ সিং। ইউসুফ পাঠান ভালো ফর্মে থেকেও দলে সুযোগ পাচ্ছিলেন না বলে জানান যুবরাজ। আর দলে অন্য কোন বাঁহাতি স্পিনার না থাকায় নিজের জায়গা বেঁচে যায় বলে মনে করেন তিনি।

যুবরাজ বলেন, ‘সেসময় ইউসুফ পাঠান বেশ ভালো পারফর্ম করছিল, সে নিয়মিত উইকেটও পাচ্ছিল। রায়না খুব একটা টাচে ছিল না। তাদের কাছে কোন বাঁহাতি স্পিনারের অপশন ছিল না। এবং আমি উইকেট পাচ্ছিলাম, তাই তাদের আর কিছু করার ছিল না।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আরো এক বছর দায়িত্বে থাকছেন সাঙ্গাকারা

Read Next

ভারতের কোচ হবার প্রশ্নে শোয়েবের ‘হ্যা’

Total
36
Share