খাওয়ার পরামর্শ পেতে তাসকিনের ভরসা তামিম

featured photo1 27

করোনা থাবায় প্রায় দেড় মাস ধরে স্থগিত সবধরণের ক্রিকেট। ২২ গজের সবুজ গালিচার সাথে দূরত্ব বেড়েছে ক্রিকেটারদের। ফাঁকা সময়ে ক্রিকেটাররা সময় পার করছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভ সেশনে, আড্ডার ফাঁকে ভক্তদের নানা প্রশ্নের উত্তরও দিতে হচ্ছে তাদের। নিজেদের প্রিয় ক্রিকেট স্মারক নিলামে তুলে চেষ্টা করছেন অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর। ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজের হ্যাটট্রিক করা বলটি গতকাল (৩ মে) নিলামে বিক্রি করেন তাসকিন আহমেদ।

আয়োজক ‘অকশন ফর অ্যাকশনের’ ফেসবুক পেইজে লাইভে এসে ভক্তদের প্রশ্নের জবাব দিতে হয়েছে ডানহাতি এই পেসারকে। তার সাথে একই দিনে নিলাম সম্পন্ন হয় বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকারের একমাত্র টেস্ট সেঞ্চুরি হাঁকানোর পথে ব্যবহৃত ব্যাটেরও। দুটো স্মারক একসাথে সাড়ে ৮ লাখ টাকায় কিনে নেয় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। নিলামের শেষের আগে ভক্তের প্রশ্নের উত্তরে তাসকিনকে জানাতে হয়েছে কোন ম্যাচ খারাপ খেললে বাসায় ফিরলে পরিস্থিটা কেমন থাকে?

২৫ বছর বয়সী এই পেসার জানালেন খারাপ খেলে বাসায় ফিরলে তার মন ভালো করতে ভালো খাবার রান্না হয়, ‘কোন ম্যাচ যদি খারাপ হয় তখন দেখা যায় বাসায় আমার জন্য আরও ভালো রান্না করে। কারণ আমার মুড অনেক অফ থাকে, মন খারাপ থাকে। বাসার সবাই খেলা নিয়ে কম আলোচনা করে, আমি কিছু চাইলেই সেটা তাড়াতাড়ি হাজির থাকে। খারাপ খেললে সেদিন রাতটাও শেষ হয় দেরিতে।’

জাতীয় দলের সতীর্থ সৌম্য সরকারও লাইভ আড্ডায় তাসকিনের দিকে ছুঁড়ে দেন নানা প্রশ্ন। যার একটি ছিল দলের সাথে বাইরে সফরে গেলে কার সাথে মজা করা, আড্ডা দেওয়া কিংবা ঘুরতে যাওয়াটা উপভোগ করেন এই স্পিড স্টার? তাসকিন অবশ্য সরাসরি একজনকে বেছে নেননি, যদিও খাবার দাবারের বিষয়ে বেছে নিলেন তামিমকে, আর ঘুরতে যেতে ভালো লাগে যাদের সাথে নাম বলেছেন তাদেরও।

তাসকিন বলেন, ‘আমরা যখন বাইরে যাই খাওয়ার জন্য, বেশিরভাগ সময় তামিম ভাই ভালো ভালো রেস্টুরেন্টগুলো বের করতে পারে। আমি নিশ্চিত এটা আমাদের দলের সবাই একমত হবে যে তামিম ভাই খাওয়া দাওয়ার ব্যাপারে বেশ ভালো বোঝে। তো কখনো যদি মনে হয় আজ খুব ক্ষিধা খেতে হবে তখন খাওয়ার জন্য তামিম ভাইয়ের সাথে যোগাযোগ করি।’

‘খাওয়ার বাইরে যদি কোথাও ঘুরতে যেতে হয় তখন স্কোয়াডে থাকলে রুবেল ভাই, তুমি (সৌম্য সরকার), আল আমিন ভাই, বিজয় ভাইদের সাথে ঘুরতে যাই, সবার সাথে ঘুরতে মজা লাগতো। আর যেটা হল জাতীয় দলের সাথে যতগুলো সফরে গেছি আমি মাশরাফি ভাইয়ের সাথে প্রচুর সময় ব্যয় করেছি। কিন্তু ঘুরতে যেতে, মজা করতে রুবেল ভাই, তুমি, আল আমিন ভাইদের সাথে ভালো লাগতো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘সাকিব তো ডাকতেছে- রিয়াদ ভাই আইসা পড়েন, আইসা পড়েন!’

Read Next

করোনা মোকাবেলায় নিলামে উঠছে গেইল-রিয়াদদের স্বাক্ষরিত ব্যাট

Total
0
Share