করোনাকালে অসহায়দের সাহায্যে ফুটি হ্যাগস, ডব্লিউইসিসিএ

4c4a780d49a47ff27d0d911624a03100 new thumb
Vinkmag ad

করোনা প্রভাবে সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় শুরু থেকে এগিয়ে এসেছে ক্রিকেটার ও ক্রিকেটারদের নিয়ে গঠিত সংগঠনগুলো। এবার এ যাত্রায় যোগ দিয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার ও বিভিন্ন শ্রেণি, পেশার অপেশাদার ক্রিকেটারদের নিয়ে গঠিত উইকেন্ড ক্রিকেট ক্লাব অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউইসিসিএ)। তারা যুক্ত হয়েছেন পেশাজীবিদের নিয়ে গঠিত ফুটবল সংগঠন ফুটি হ্যাগসের সাথে।

সংগঠন দুটির সম্মিলিত অবদানে ৫০০ নিম্ন আয়ের পরিবারকে ৮ সপ্তাহের বাজার করে দেওয়ার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। পুরো প্রক্রিয়াটি তারা সম্পন্ন করছে বেশ ভিন্ন ও সুশৃঙ্খল নিয়মে। সাহায্য প্রয়োজন এমন পরিবারগুলোর একজনের জাতীয় পরিচয় পত্র ফটোকপি করে পাঠানো হয়েছে নিকটতম স্বপ্ন আউটলেটে, সেখানে মূল পরিচয় পত্র দেখিয়ে অসহায় পরিবারগুলো বুঝে নিয়েছে তাদের একমাসের বাজার সম্বলিত একটি বাস্কেট।

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় এই কার্যক্রম চালাচ্ছে সংগঠনটি। ঢাকার বাইরে গাজীপুর, কেরানীগঞ্জ, নরসিংদী, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, বাশবাড়ি, গিমাডাঙা ও ঈশ্বরগঞ্জের দরিদ্র পরিবারগুলোকে করা হয় এই সাহায্য। এখনো পর্যন্ত ৪২৫ টি পরিবারের মাঝে এই সাহায্য বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

৫ সদস্যের একটি পরিবারের জন্য এক মাসের বাজার সম্বলিত একটি বাস্কেটে ছিল ২০ কেজি চাল, ৬ কেজি ডাল, ৩ কেজি লবন, ৩ লিটার তেল, ৯ কেজি আলু, ৬ কেজি পেঁয়াজ, ৬ আটি শাক, ৪ টি লাউ, ৩৬ টি লেবু ও ৬ টি সাবান। প্রতিটি বাস্কেটের পেছনে খরচ হয়েছে প্রায় ৩৫০০ টাকা।

উল্লেখ্য, ফুটি হ্যাগস ফুটবল সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয় ২০১২ সালে, সাবেক ফুটবলার, ব্যবসায়ী, গায়কসহ নানা পেশার প্রায় ৪০ জন সদস্য নিয়ে তাদের এই সংগঠন। অন্যদিকে ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত উইকেন্ড ক্রিকেট ক্লাব অ্যাসোসিয়েশনেও আছে বেশ কয়েকজন সাবেক জাতীয় দল ও প্রথম শ্রেণি খেলা ক্রিকেটার। মূলত খেলাধুলা ভিত্তিক সংগঠন হলেও দেশের দুর্যোগকালীন মুহূর্তে এর আগেও সংগঠন দুটি এগিয়ে এসেছে সামাজিক কার্যক্রমেও।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

কিছু অসম্মান হজম করতে কষ্ট হয় তামিমের

Read Next

সৌম্য সরকারের ব্যাটের ভিত্তি মূল্য ৩ লক্ষ টাকা

Total
3
Share