‘ফিক্সিং নিয়ে আইন করলে পিসিবির অনেকে জেলে থাকবে’

রশিদ লতিফ
Vinkmag ad

ফিক্সিং এবং পাকিস্তান ক্রিকেট যেন সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে ফিক্সিং কান্ডে কেউ না জড়ালেও ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও বোর্ডকে না জানানোর অপরাধে ৩ বছরের নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান উমর আকমলের উপর। এবার দেশটির সাবেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান রশিদ লতিফ বলছেন ফিক্সিংকে অপরাধ হিসাবে গন্য করা হলে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের বেশিরভাগ কর্মকর্তাই জেলে থাকবেন।

তার মতে ফিক্সিং কেলেঙ্কারির বেশিরভাগ রিপোর্টই কর্তৃপক্ষের ইচ্ছেমত হেরফের করা হত। স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে আড়ালে থেকে যেত মূল ঘটনা, এমনটাই দাবি ৫১ বছর বয়সী এই প্রাক্তন ক্রিকেটারের।

দেশটির একটি স্থানীয় খেলার চ্যানেলকে রশিদ লতিফ বলেন, ‘কিভাবে ম্যাচ ফিক্সিং তদন্তের প্রতিবেদন এলোমেলো করা হয় তার একটা ইতিহাস আছে। কর্তৃপক্ষ যা খুশি তাই করতে পারে।’

‘আর এ কারণেই আমরা নতুন আইন করার পক্ষে কথা বলি, এটাকে (ফিক্সিং) যেন নির্দিষ্টভাবে অপরাধ হিসেবে অভিহিত করে আইন করা হয়। আর এটা অপরাধ হিসেবে তালিকাভূক্ত করা হলে বেশিরভাগ পিসিবি কর্মকর্তাকে কারাগারে দেখা যাবে। তাহলে আমরা প্রকৃতপক্ষে কারা দুর্নীতিগ্রস্থ তা আমরা খুঁজে বের করতে পারবো।’

উল্লেখ্য, সবশেষ পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) আগে জুয়াড়ির কাছ থেকে ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পান উমর আকমল। প্রস্তাবে রাজি নাহলেও তা জানাননি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে (পিসিবি)। তথ্য গোপনের এই অভিযোগ প্রমাণিত হওয়াতেই তাকে তিন বছরের জন্য সবধরণের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ব্যাট নিলামে তুলছেন নাইম শেখও

Read Next

ফক্স ক্রিকেটের চোখে ‘ওর্স্ট এভার টেইলএন্ডারস’ একাদশ!

Total
13
Share