‘তামিম ফোন দিয়ে বললো, রাজিন ভাই তালিকা দেন’

রাজিন সালেহ
Vinkmag ad

২২ গজের সবুজ গালিচায় ব্যাট হাতে দলের দুঃসময়ে বহুবার হাল ধরেছেন তামিম ইকবাল খান। সত্যিকারের তারকাতো মাঠের বাইরের কাজ দিয়েই জায়গা করে নেন ভক্তদের হৃদয়ে। কদিন আগেই দেশের ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন, করোনা ভাইরাস প্রভাবে অধিনায়ক তামিমের মাঠে নেতৃত্ব দিতে করতে হচ্ছে অপেক্ষা। কিন্তু আর আগে করোনা সংকটে মাঠের বাইরে তামিম অধিনায়ক হিসেবে পাচ্ছেন নিশ্চিতভাবেই লেটার মার্ক।

করোনা প্রভাব বিস্তার ঘটার শুরুতেই নিজে উদ্যোগ নিয়ে সতীর্থদের সাথে করে নিজেদের বেতনের অর্ধেক দিয়ে বড় অঙ্কের তহবিল গঠন করে অনুদান দেন তামিম ইকবাল। সম্মিলিতভাবে ঐ অনুদানের পর ব্যক্তি উদ্যোগে যখন যেখানে পেরেছেন উজাড় করে দিয়েছেন নিজেকে। কিন্তু সবশেষ যেটি করলেন সেটি অতীতে দেখা যায়নি কখনো। বাংলাদেশের ক্রীড়া ইতিহাসে এমন মহৎ উদ্যোগের কথা আবার সামনেও আনতে চাননি।

ক্রিকেটারদের বাইরেও দেশজুড়ে বিভিন্ন খেলাধুলার আর্থিক টানাপোড়নে থাকা ক্রীড়াবিদদের দিয়েছেন এককালীন আর্থিক সাহায্য। সংখ্যাটা প্রায় সেঞ্চুরি ছুঁইছুঁই (৯১ জন)। যাদের মধ্যে ক্রিকেটার ছাড়াও আছেন ফুটবল, অ্যাথলেটিকস, হ্যান্ডবল, ভলিবলসহ অন্যান্য ইভেন্টের খেলোয়াড়েরা।

তার এই কার্যক্রমে মূল সমন্বয়ক হিসেবে ছিল বন্ধু সাবেক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার হুমায়ুন কবির শাহিন। পুরো কাজে সাহায্য করেছেন সিলেটের সাবেক ক্রিকেটার রাজিন সালেহ, বরিশালের পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি, রাজশাহীর মিজানুর রহমানসহ অনেকেই।

সিলেট থেকে দেওয়া খেলোয়াড়দের তালিকা, তালিকায় কোন ধরণের ক্রিকেটার ছিলেন, সাহায্য পেয়ে তাদের কান্না ও তামিমের জন্য দোয়া পুরো বিষয়টি ‘ক্রিকেট৯৭’ কে মুঠোফেনে জানিয়েছেন রাজীন সালেহ। নিচে তুলে ধরা হল পাঠকদের জন্য-

‘আসলে গত দুইদিন আগে আমাকে তামিম ইকবাল ফোন দিয়েছিল। বলল রাজিন ভাই এই রমজানে মাসে আমি কিছু খেলোয়াড়কে সাহায্য করতে চাই এই দুঃসময়ে। আপনার জানা আছে এমন কিছু খেলোয়াড় ক্রিকেট, ফুটবল, হকি যেকোন খেলারই হোক যারা আর্থিক সমস্যায় আছে তাদের একটা তালিকা দেন আমাকে। তখন আমি বললাম আচ্ছা আমি জানাচ্ছি তবে আমাকে একদিন সময় দাও। একদিন সময় নিয়ে আমার যে সহকারী আছে তাকে দায়িত্ব দেই সিলেটে যারা আছে তাদের তালিকাটা করতে। যে তালিকাটা করেছি তাতে বেশিরভাগই প্রথম বিভাগ ক্রিকেট খেলে। যার মধ্যে গতবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপপে স্ট্যান্ড বাই তালিকায় ছিল এমন একজনও আছে।

এমন উদীয়মান ক্রিকেটাররাও ছিল যাদের প্রতিভা আছে কিন্তু আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ যেমন বাবা রিকশা চালক, সিএনজি চালক কিংবা দিন এনে দিনে খায়, সংসার চলতেছেনা এমন অবস্থা তাদের তালিকা নেওয়া হয়েছে। প্রথম শ্রেণির সাবেক একজন ক্রিকেটারও আছেন যার অবস্থা খুব একটা ভালো না। আমাকে ফোন দিয়ে প্রায় কান্না করে দেওয়ার উপক্রম। সে বলতেছে টাকাটা পেয়ে আমি এই মাত্র বাজার করলাম। আমার যে কি উপকার হয়েছে বলে বোঝানো যাবেনা। সে অনেক দোয়া করেছে তামিম ইকবালের জন্য।

আমি এরকম ১২-১৩ জনের একটা তালিকা দিয়েছি তামিমের কাছে। সে বলল তালিকা দেখে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে দিবে সবার কাছে।

আমি অন্য কোন খেলার তালিকা দিতে পারিনি। কারণ ক্রিকেটারই ছিল বেশ কয়েকজন, যাদের অবস্থাই অনেক করুণ। এতটাই খারাপ যে আমি ফুটবল, হকি বা অন্য কোন খেলার যে খুঁজবো সেটা কঠিন হয়ে যায়। আমিওতো একটা সীমাবদ্ধতার মধ্যে চিন্তা করতে হয়। আমাকে তামিম বলছে অন্য খেলার কেউ থাকলেও জানাতে কিন্তু এই ক্রিকেট খেলোয়াড়েরাই এতটা বাজে পরিস্থিতিতে পড়েছে যে আসলে বলে বোঝানো কঠিন।

তামিম ইকবাল যেভাবে এগিয়েছেন এটা অসাধারণ আমি বলবো। আমি যখন জিজ্ঞেস করলাম তোমরা কীভাবে করতে যাচ্ছো এটা তখন সে বলল রাজিন ভাই তোমরা না, আমি নিজে চাচ্ছি কিছু একটা করতে। তার জন্য আমি অনেক অনেক দোয়া করি।

দেখেন বাংলাদেশে অনেক ধনাঢ্য ব্যক্তিরা আছেন, অনেকে সাহায্য করছেন। কিন্তু তামিমের মত করে খুব একটা চোখে পড়েনা। তামিমের চেয়ে কিন্তু হাজার গুণ বেশি অর্থের মালিক আছেন তারা একটু যদি ইচ্ছে পোষণ করে ভালোভাবে আমার মনে হয়না যারা গরীব আছেন তারা না খেয়ে থাকবে। আমার অনুরোধ তাদের প্রতি যে বিত্তবান যারা আছেন তারা যেন আরেকটু এগিয়ে আসে, নিজেদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবেনা। দিন দিন পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। তাদের কাজ নেই, কী করবে তারা? পেটের দায়ে তারা চুরি করবে, অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়বে। তাদেরতো খেতে হবে। তামিমের মত করে দেশের বিত্তবানরা যদি এগিয়ে আসে তবে মানুষ না খেয়ে মরা থেকে অন্তত বাঁচবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সারওয়ানকে গেইল- ‘তুমি করোনার চেয়েও নিকৃষ্ট, তুমি একটা সাপ’

Read Next

অপুর প্রয়াসে আর্থিক যোগান দিয়ে পাশে আছেন তামিমও

Total
215
Share