ব্যাট নিলামের আয়োজকরা জানতেন না কীভাবে নিলাম করতে হয়!

featured photo updated v 3
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকট কাটিয়ে ওঠার নিমিত্তে অনেকেই অনেকভাবে এগিয়ে আসছেন। সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান নিজের ফাউন্ডেশনের (দ্য সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন) মাধ্যমে তহবিল গঠন করছেন। এছাড়া বিশ্বকাপে যে ব্যাট দিয়ে খেলেছেন সেই ব্যাট নিলামে তুলেছিলেন তিনি। যা থেকে পাওয়া ২০ লক্ষ টাকা খরচ করা হবে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য।

সাকিবের ব্যাটের নিলাম প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দায়িত্বে ছিল Auction 4 Action। তবে প্রচলিত নিয়মে হয়নি সাকিবের ব্যাটের নিলামে। গত পরশু (২২ এপ্রিল) দুপুরের দিকে হুট করে Auction 4 Action এর ফেসবুক পেইজে পোস্ট দিয়ে জানানো হয় নিলাম প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, যা চলবে রাত ১১ টা অব্দি।

এত অল্প সময়ে অপেশাদার নিলামে সাকিবের ব্যাটের দাম ওঠে ২০ লক্ষ টাকা। আয়োজকরা স্বীকার করে নিয়েছে এই বিষয়ে পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকায় ঠিকভাবে হয়নি সাকিবের ব্যাটের নিলাম। আন্তর্জাতিক ভাবে পেশাদারিত্বের সাথে নিলাম হলে আরো বেশি দাম উঠতে পারতো বলে জানান তারা। যদিও সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছে তারা।

Auction 4 Action তাদের ফেসবুক পেইজে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে লেখে,

‘পুরো বিষয়টা আপনাদের সহযোগিতা ছাড়া সম্ভবপর হতোই না

প্রত্যেকেই সহযোগিতা করেছে, বিডার থেকে শুরু করে স্পোর্টস সাংবাদিকরা … আপনারা থেকে শুরু করে সেলিব্রেটিরা, লিটারালি প্রত্যেকেই

আমরা জানি আমরা প্রফেশনাল অকশান করতে পারিনি… সত্যি বলতে আমরা জানতামও না এটা কিভাবে করতে হয়

বাংলাদেশে এই অকশানের ধারনাটা সম্পূর্ণ নতুন দেখে আমরাও হিমশিম খেয়েছি

কিন্তু তারপরেও সম্ভবপর হয়েছে, শুধু মাত্র প্রত্যেকেই এই পুরো প্রসেসটা একটা ভালো মাইন্ড সেট নিয়ে দেখেছে বলে

ধন্যবাদ আপনাদের

আপনারা খুত ধরতে চাইলে ১০০ টা খুত ধরতে পারতেন … কিন্তু তা না করে বরং সবাই সবার যায়গা থেকে পরামর্শ, সাজেশন, সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে এসেছেন

আসলেই মন থেকে ধন্যবাদ আপনাদের সব্বাইকে

আমরা এটাও জানি সাকিব আল হাসানের এই ব্যাট, ইন্টারন্যাশনাল লেভেলে বিড করতে পারলে আরো অনেক টাকা উঠে আসত

কিন্তু এটাও ভাবতে হবে, এই সিচুয়েশনে পুরো বিশ্বই খারাপ অবস্থায় আছে

যে যার দেশ নিয়ে ভাবতে ব্যস্ত

এই অবস্থায় আসলেই আর কতটুকুই বা কি করা যেত তাও জানি না

তারপরেও দেশ থেকেই ২ মিলিয়ন টাকা উঠে এসেছে একটা আইটেমের জন্য তাও আবার এক ঘন্টার মাঝে, এটা নিঃসন্দেহে নিঃসন্দেহে খুশি হবার মত একটা সংবাদ

এবং হ্যা, আমাদের প্রথম অকশানের পুরো মানি ট্রানজেকশনটা আজ সকালে সফল ভাবেই সমপন্ন হয়েছে 😌 (এবং শীঘ্রই জানানো হবে এই টাকাটা কোথায় কোন খাতে খরচ হয়েছে)

মিন হোয়াইল, আমরা সামনে এরকম আরো কালেক্টেবল আইটেম বা, মেমোরেবল এক্সপেরিয়েন্স বিডিং এর জন্য নিয়ে আসছি আপনাদের সামনে

সাথেই থাকুন

আশা করি ইনশাল্লাহ, খুব শীঘ্রই এই মহামারি কাটিয়ে আবার আমরা সবাই একসাথে ভালো থাকব।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

যে ব্যাটসম্যান হরভজনকে কাঁদিয়ে ছাড়তেন

Read Next

বাংলাদেশের স্বপভঙ্গ করতে যেভাবে পরিকল্পনা সাজিয়েছিলেন কার্তিক

Total
7
Share