‘রাত তিনটা অব্দি চিৎকার করেছিলাম’

ভিরাট কোহলি
Vinkmag ad

ভারত তো বটেই, বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বলেই মানা হয় ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলিকে। ব্যাট হাতে রানের বন্যা বইয়ে দেওয়া ভিরাট কোহলি ইতোমধ্যেই বেশ কিছু রেকর্ড নিজের নামে করে নিয়েছেন। ক্রিকেট বিশ্বে সুপারস্টারের তকমা পাওয়া ভিরাট একসময় বাদ পড়েছেন দল থেকে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নাম কামানোর আগে নিজের রাজ্য দলে বাদ পড়েছিলেন কোহলি। সেই গল্প শুনিয়েছেন ভিরাট নিজেই।

গতকাল (২১ এপ্রিল) স্ত্রী বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার সঙ্গে ইন্সটাগ্রামে লাইভ সেশনে অংশ নেন কোহলি। যেখানে দুজনই নিজেদের জীবন ও ক্যারিয়ার নিয়ে কথা বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের অনুপ্রেরণা যোগান।

নিজের বাদ পড়ার গল্প শোনাতে যেয়ে ৩১ বছর বয়সী কোহলি বলেন, ‘রাজ্য দলের হয়ে আমি প্রথমবার বাদ পড়েছিলাম। আমার মনে পড়ে আমি অনেক রাত অব্দি জেগে ছিলাম, আমি শুধু কেঁদেছিলাম।’

তিনি যোগ করেন, ‘আমি রাত তিনটা অব্দি চিৎকার করেছিলাম, আমি বাদ পড়াটা বিশ্বাসই করতে পারছিলাম না।’

যেকারণে ঐ বাদ পড়া এতো পুড়িয়েছিল কোহলিকে তাও জানান তিনি, ‘কারণ ছিল আমি রান করছিলাম, সবকিছুই দারুণ হচ্ছিল। আমি ঐ পর্যন্ত যাবার জন্য যথেষ্ট পারফর্ম করেছিলাম, তবে বাদ পড়েছিলাম।’

‘আমি আমার কোচকে দুই ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসা করেছিলাম- ‘কেনো আমি সুযোগ পেলাম না?’ আমি হিসাব মেলাতেই পারছিলাম না। কিন্তু যখন তোমার কাছে প্যাশন ও কমিটমেন্ট থাকবে তখন মোটিভেশন তোমার কাছে ফিরে আসবে।’

২০০৬ সালে কোহলির তার রাজ্য দল দিল্লির হয়ে অভিষেক হয়। তার বছর দুয়েক বাদে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার।

কোহলির মতে তিনি তার স্ত্রী আনুশকা শর্মার সঙ্গে দেখা হবার আগে খুবই অধৈর্য ছিলেন। আনুশকাকে দেখে নিজের মাঝে অনেক পরিবর্তন এনেছেন তিনি।

‘সত্যি বলতে আমার যে ধৈর্যশীলতা আছে তা এসেছে আনুশকার সঙ্গে দেখা হবার পর থেকে। এর আগে আমি খুবই অধৈর্য ছিলাম। তার ব্যক্তিত্ব, তার পরিস্থিতি বিচারে মানিয়ে নেওয়া সবকিছু আমাকে প্রভাবিত করেছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ক্যারিয়ারে ওয়াসিম ও জহিরের অবদানের কথা সামনে আনলেন শামি

Read Next

অ্যাগ্রো ফার্ম ইস্যুতে প্রতিক্রিয়া জানালেন সাকিব

Total
9
Share