করোনার সময় বেড়েছে জুয়াড়িদের কার্যকলাপ

ক্রিকেট ব্যাট বল
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রভাবে বিশ্বজুড়ে স্থগিত সবধরণের ক্রিকেট। আর ফাঁকা সময়টায় কাজে লাগাচ্ছে পরিচিত জুয়াড়িরা। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার সময়টায় ক্রিকেটারদের সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বদলৌতে সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করে যাচ্ছে তারা। আইসিসির দূর্নীতি দমন ইউনিটের প্রধান অ্যালেক্স মার্শাল এমনটাই জানিয়েছেন।

১৫ মার্চ পাকিস্তান সুপার লিগের ম্যাচের পর এখন পর্যন্ত কোন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট মাঠে গড়ায়নি। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিও দিন দিন অবনতির দিকে। ইতোমধ্যে প্রাণ হারিয়েছে ১ লাখের বেশি মানুষ।

‘দ্য গার্ডিয়ানকে’ অ্যালেক্স মার্শাল বলেন, ‘আমরা দেখছি পরিচিত দুর্নীতিবাজরা এই সময়টাকে কাজে লাগাচ্ছে। কারণ ক্রিকেটাররা এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি সক্রিয়। আর এ সুযোগেই ক্রিকেটারদের সাথে সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করছে যা তাদের পরবর্তীতে কাজে দিবে।’

মার্শালের মত ক্রিকেটীয় কার্যক্রম বন্ধ মানে জুয়াড়িদের চেষ্টা বন্ধ হয়ে যাওয়া নয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কোভিড-১৯ বিশ্বজুড়ে ক্রিকেটকে থামিয়ে দিলেও জুয়াড়িরা আছেন সক্রিয়ই। আমরা আমাদের সদস্য, ক্রিকেটার ও তাদের বিস্তৃত নেটওয়ার্কে সচেতনতার এই বার্তাটা পৌঁছে দিয়েছি। তারা যেন এই ভয়ংকর ফাঁদ থেকে রক্ষা পায়।’

করোনায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সাথে বন্ধ ঘরোয়া লিগগুলোও। ফলে জাতীয় দল বা তার আশেপাশে নেই এমন ক্রিকেটারদের আয় বন্ধ বললেই চলে। সেক্ষত্রে ফিক্সিং ফাঁদে পা দেওয়ার সম্ভাবনা তাদেরই বেশি বলে ধারণা করছে আইসিসি দুর্নীতি দমন ইউনিট।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের সততা ও নিরাপত্তা প্রধান জেমস পাইম্যান্ট বলেন, ‘সবসময় এমন কেউ থাকে যে কিনা ক্রান্তিকালকে সুযোগ হিসেবে ব্যবহার করতে চায়। আমরা আত্মবিশ্বাসী যে এই চাপ আমরা সামলে নিতে পারবো এবং নিশ্চিত যে খেলয়াড়েরা সঠিক কাজটিই করবে এসব ক্ষেত্রে। এখনই সময় আমাদের প্রক্রিয়া সেরা হিসেবে দেখানোর।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আফতাব শোনালেন আক্ষেপের গল্প

Read Next

না ফেরার দেশে ইমরুল কায়েসের পিতা

Total
12
Share