বিসিবির দেউলিয়া হবার খবরে বিসিবি কর্তাদের প্রতিক্রিয়া

নাজমুল হাসান পাপন ইসমাইল হায়দার মল্লিক
Vinkmag ad

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর করোনা প্রভাবে দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। একই দশা অপেক্ষা করছে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের জন্য। তবে এমন খবরকে উড়িয়ে দিল বিসিবি, সাফ জানিয়ে দিয়েছে অন্তত আরো ৫ বছর চলার ক্ষমতা রাখে বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

লম্বা সময় ধরে মাঠে খেলা নেই, অদূর ভবিষ্যতেও খেলা মাঠে গড়ানো নিয়ে আছে সংশয়। মাঠে খেলা নেই বলে বিশ্বের সব ক্রিকেট বোর্ডই আর্থিক ক্ষতিতে পড়ছে। বিসিবিও আর্থিক ক্ষতি গুনছে স্বীকার করেছে বোর্ড কর্তারা আর যা ধ্রুব সত্যও বলা যায়। কিন্তু দেউলিয়া হওয়ার খবর একদমই নাকচ করে দিলেন তারা।

জাতীয় দৈনিক ‘মানবজমিন’ কে বিসিবির পরিচালক ও অর্থ কমিটির প্রধান ইসমাইল হায়দার মল্লিক বলেন, জানি না কিসের ভিত্তিতে এমন সংবাদ কেউ প্রকাশ করেছে। আমি তো মনে করি না বিসিবি কোনোভাবে দেউলিয়া হবে বা পথে বসবে। আমাদের অন্তত পাঁচ বছর টিকে থাকার সক্ষমতা আছে।’

তবে স্বাভাবিকভাবেই মাঠে খেলা না থাকায় যে আর্থিক ক্ষতিতে পড়তে হচ্ছে সেটাও জানিয়েছেন মল্লিক, ‘হ্যাঁ, ক্ষতি হবে তবে সেটা সাময়িক। এমন ক্ষতি গোটা ক্রিকেট বিশ্বেই হবে। ভারত কি কম ক্ষতিগ্রস্ত হবে? প্রতিটি বোর্ডেকেই কম বেশি লোকসান গুনতে হবে। তবে আমরা দেউলিয়া হবো সেটা ঠিক নয়। আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, বিপিএল সে গুলো তো অনেক দেরি আছে। গোটা বিশ্বের বাস্তবতা আমাদের মেনে নিতেই হবে।’

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান বলেন, ‘এগুলো আসলে অনুমান নির্ভর কথা। আমাদের যে সম্প্রচার চুক্তির কথা বলা হচ্ছে তা পরিস্থিতি ভালো হলেই ঠিক হয়ে যাবে। সবচেয়ে বড় কথা হলো আমরা এখন যে অবস্থানে আছি তাতে দেউলিয়া হবো না সেটি জোর দিয়েই বলতে পারি। আমার কাছে মনে হয় যতটা না আমরা আর্থিক দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হবো তার চেয়ে বেশি ক্ষতি হবে আমাদের ক্রিকেটের। সেটি পুষিয়ে নেয়া হবে চ্যালেঞ্জ।’

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে মাঠে ক্রিকেট গড়ানোর সম্ভাব্য সময়কে আগামী দুই বছর হিসাব করেও বিসিবির আরেক পরিচালক ও নারী বিভাগের প্রধান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল জানালেন ৫ বছর টিকে থাকার সক্ষমতা আছে বিসিবির। বিসিবি পথে না বসলেও অন্য অনেক বোর্ডের ক্ষতি বিসিবির চাইতেও বেশি হবে বলে মনে করেন এই পরিচালক।

তিনি বলেন, ‘ধরে নিলাম এই পরিস্থিতি আগামী দুই বছর বা তার চেয়ে বেশি চললো। আমি বলতে চাচ্ছি, ভাইরাস মুক্ত হলেও সব কিছু ঠিক হতে সময় তো লাগবেই। বিশেষ করে অর্থনৈতিক দিকগুলো। কিন্তু বিসিবি যে প্রতিষ্ঠান তাদের সেই সক্ষমতা আছে লম্বা সময় ধরে টিকে থাকার। এমন নয় যে আমরা ক্রিকেট খেলবো না বাকি সবাই খেলবে! তাই বলছি দুই বছর এমন থাকলেও বিসিবির পথে বসবে না। আমাদের ৫ বছর চালিয়ে নেয়ার মত সক্ষমতা আছে। আর এটাও সত্যি আমাদের চেয়ে অন্যদের ক্ষতিটাই বেশি হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দুস্থদের সাহায্য করতে পছন্দের ব্যাট নিলামে তুলছেন মুশফিক

Read Next

আফতাব শোনালেন আক্ষেপের গল্প

Total
27
Share