আফ্রিদির ইটের বদলে গম্ভীরের পাটকেল

গৌতম গম্ভীর শহীদ আফ্রিদি
Vinkmag ad

সাবেক ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীর ও পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির মধ্যে কথার যুদ্ধ যেন শেষই হচ্ছেনা। এবার শহীদ আফ্রিদিকে পরোক্ষভাবে মিথ্যাবাদী, বিশ্বাসঘাতক বলে নিজের রেকর্ড মনে করিয়ে দিলেন ক্রিকেট ছেড়ে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ভারতীয় বাঁহাতি ওপেনার গম্ভীর।

তীরটা প্রথমে আফ্রিদিই ছোঁড়েন। গম্ভীরকে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে এক জায়গায় আফ্রিদি বলেন, ‘তার আচরণের সমস্যা আছে। সে এমন একজন, যার কোন ব্যক্তিত্ব নেই। যে কিনা দুর্দান্ত ক্রিকেট ইতিহাসে একটি চরিত্র মাত্র। তার কোন অসাধারণ রেকর্ড নেই, আচরণগত সমস্যা ছাড়া। সে এমন আচরণ করে যেন ডন ব্র্যাডম্যান ও জেমস বন্ডকে পেছনে ফেলে দিয়েছে।’

পাকিস্তানি অলরাউন্ডারের এই খোঁচার জবাবে ভারতীয় সাবেক ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর আফ্রিদিকে নিজের রেকর্ড মনে করিয়ে দেন। গতকাল (১৮ এপ্রিল) বাঁহাতি এই ওপেনার ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারত-পাকিস্তানের লড়াইকে টেনে আনেন। আর ঐ ম্যাচে দুজনের পারফরম্যান্স তুলে ধরেন।

গম্ভীর টুইটারে লিখেন, ‘যে কিনা তার নিজের বয়সই মনে রাখতে পারেনা সে আমার রেকর্ড মনে রাখবে কীভাবে? ঠিক আছে শহীদ আফ্রিদি, আমি আপনাকে একটা মনে করিয়ে দিচ্ছি। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে গম্ভীর ৫৪ বলে ৭৫ রানের ইনিংস খেলে যেখানে আফ্রিদি ১ বলে শূন্য রান করে ফিরেছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আমরা কাপ জিতেছি ।আর হ্যাঁ মিথ্যাবাদী, বিশ্বাসঘাতক ও সুবিধাবাদীদের ক্ষেত্রে আমার মনোভাব নেতিবাচক হয়।’

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালে মাহেদ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরেই পাকিস্তানকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তোলে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে ফাইনালে টস হেরে ব্যাট করা ভারত গৌতম গম্ভীরের ৫৪ বলে ৮ চার ২ ছক্কায় ৭৫ রানে ভর করে ১৫৭ রানের পুঁজি পায়। জবাবে শেষ ওভারে মিসবাহ উল হকের ভুলে শিরোপা বঞ্চিত হতে হয় পাকিস্তানকে। বল হাতে ৪ ওভারে ৩০ রান খরচায় উইকেট শূন্য থাকা শহীদ আফ্রিদি ব্যাট হাতেও ফিরেছিলেন খালি হাতে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

করোনা টেস্টে ‘পজিটিভ’ মাশরাফির নানা

Read Next

অশ্বিন-জাদেজাদের মত রোল প্লে করতে চান নাইম

Total
12
Share