আছে আইপিএলের চোখ রাঙানি, তবুও আশাবাদী সিপিএল আয়োজকরা

সিপিএল
Vinkmag ad

প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাসের জন্য পুরো বিশ্ব এখন কার্যত লকডাউন, বন্ধ রয়েছে সব ধরনের খেলাধুলা। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের সবচেয়ে জমজমাট আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) গেল মাসের শেষে শুরুর কথা থাকলেও স্থগিত রয়েছে কোভিড-১৯ এর প্রাদূর্ভাবের জন্য। আর এতে করে শঙ্কায় পড়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের আরেক আসর ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল)।

সিপিএল শুরুর কথা আগামী সেপ্টম্বর থেকে, সিপিএল কর্তৃপক্ষ সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন। প্রয়োজনে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে বিদেশি ক্রিকেটার ছাড়াই খেলতে হতে পারে তাদের। কিন্তু সেখানে বাঁধ সেধেছে স্থগিত হওয়া আইপিএলের নতুন সম্ভাব্য সময়সূচি নিয়ে। কারণ করোনার জন্য বন্ধ থাকা আইপিএল মাঠে গড়াতে পারে একই সময়ের দিকে। সেক্ষেত্রে সিপিএলের সূচির সাথে আইপিএলের সময়সূচি সাংঘর্ষিক হয়ে যেতে পারে।

সিপিএলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পিটি রাসেল জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোকে বলেন, ‘আমি এটি (সিপিএল) শুরুর যথেষ্ট সম্ভাবনা দেখছি, আমরা বিশ্ব করোনা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছি, সেইসাথে স্থগিত হওয়া আইপিএলের নতুন সূচির সাথে সথা সম্ভব সংঘর্ষ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করছি।’

রাসেল আরও বলেন, ‘আমার মনে হয়না এখানে আর কোন প্রশ্ন আছে যে খেলা হবে কি না। আমি বলতে চাই , আমরা নিরাপদে থেকেই খেলতে যাচ্ছি। অনেক দেশ এতে সম্মতি জানিয়ছে, কারণ এটা বিশ্বের অন্যতম সেরা একটি ইভেন্ট। এটি ক্যারিবিয়ান অর্থনীতিকে গতিশীল করতে ভূমিকা রাখবে।’

স্থগিত হওয়া আইপিএল শুরু হলে বিসিসিআই এর বিরুদ্ধে গিয়ে আসলে কতটুকু কি করতে পারবে উইন্ডিজ বোর্ড। এ বিষয়ে রাসেল বলেন, ‘আমরা জানি বিসিসিআই এই বিষয়গুলিতে শক্তিশালী, আমরাও তাদের বিরুদ্ধে যাব না, বরং খেলোয়াড় এবং অন্যান্য লিগরা কী করছে তা সম্পর্কে কিছুটা বুদ্ধিমত্তার সাথে বিবেচনা করতে হবে আমদের। কারণ তারাও (আইপিএল কর্তুপক্ষ) চাইবে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটাররা তাদের লিগে খেলুক। তাই সবারই উচিত হবে সবার সাথে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া।’

ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ মানেই কয়েক দেশের কয়েকশ ক্রিকেটারদের আগমন, একসাথে তাদের অনুশীলন, একই হোটেলে তাদের আবাসন। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে সেটা আসলে কতটা যুক্তিযুক্ত, তাই এটা নিশ্চয়ই ভাবাচ্ছে টুর্নামেন্টের আয়োজকদের।

এ বিষয়ে রাসেল বলেন, ‘এবং এটা স্পষ্ট যে আপনাকে পুরো চিকিৎসা প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণরুপে মানতে হবে। আপনি কি আলাদা আলাদা খেলোয়াড়দের আলাদা করতে পারবেন, বা তাদের সবাইকে একই হোটেলে রেখে দেবেন? কীভাবে আপনি সমস্ত কাজ একসাথে করবেন? যদিও আমরা এই বছর আমাদের পরিকল্পনাগুলির সর্বোত্তম ব্যবহার নাও করতে পারি, তারপর সেখানে আমাদের ফোকাস রাখতে হবে। তা না হলে সেটা সবার জন্য কল্যাণকর হবে না।’

যে কোন মূল্যে মাঠে ক্রিকেট ফেরাতে চান সিপিএলের সিইও রাসেল। তিনি বলেন, ‘আমি চাই সিপিএল মাঠে গড়াক, প্রয়োজনে আমারা উইন্ডো রাখতে চাই । আমরা যদি সেপ্টেম্বরে না খেলি, তবে আমরা সম্ভবত ডিসেম্বরে খেলতে পারি। সমস্ত মালিকদের সাথে কথা বলেছি, তারা অবশ্যই এটি করতে চাইছে এবং খেলোয়াড়দের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে এই দুঃসুময়ে এটা তাদের পরিবারের ভরন-পোষনের খরচ যোগাবে। তাই সুরক্ষা দৃষ্টিকোণ থেকে সবকিছু ঠিক থাকলে আমরা কেবল তা করতে পারব।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

শ্রীলঙ্কায় আইপিএল আয়োজন নিয়ে বিসিসিআইয়ের ভাষ্য

Read Next

‘ঐ দেড় ঘন্টা আমার জীবন বদলে দিয়েছে’

Total
16
Share