করোনা মোকাবেলায় পুলিশের ভূমিকায় নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার

কেটি পারকিন্স
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে বন্ধ রয়েছে খেলাধুলা। ক্রিকেটও এর বাইরে নয়। নিউজিল্যান্ড নারী দলের ব্যাটার কেটি পারকিন্স এই সময়ে মানুষের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন ভিন্ন ভাবে।

পুলিশ হিসাবে দায়িও পালনে প্রয়োজনীয় শিক্ষাগত যোগ্যতা ২০১৩ সালেই অর্জন করেছিলেন কেটি পারকিন্স। ২০১৮ সালে চোটের কারণে নিউজিল্যান্ড জাতীয় নারী দল থেকে বাদ পড়ার পর পুলিশ হিসাবে পূর্ণকালীন কাজ শুরু করেন।

সেই কাজে ছেদ পড়ে গেলবছর। পুনরায় দলে জায়গা ফিরে পান তিনি, খেলেছেন কিছুদিন আগে শেষ হওয়া নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে।

করোনা ভাইরাসের কারণে নিউজিল্যান্ডে চলছে লকডাউন। পারকিন্সের শহর অকল্যান্ডও এর বাইরে নয়। অকল্যান্ডের ম্যাঙ্গেরে স্ট্রিটসে টহল পুলিশ হিসাবে কাজ করছেন তিনি।

284694
পুলিশের পোশাকে কেটি পারকিন্স (মাঝে), ফাইল ছবি (সংগ্রহীত)

এই ব্যাপারে অকল্যান্ড ভিত্তিক গণমাধ্যম ওয়ান নিউজকে কেটি পারকিন্স বলেন, ‘ক্রিকেট মাঠে হোয়াইট ফার্ন পরা আমার কাছে সবসময়ই স্বপ্নের মতো ছিল। তবে এই সময়ে এই পোশাক (পুলিশের) পরে নিজের সম্প্রদায়ের মানুষের কাজে আসাটা আমার কাছে অনেক গুরুত্ব রাখে। যেহেতু এই মুহূর্তে ক্রিকেট খেলার বালাই নেই তাই এই পোশাক পুনরায় পরার সিদ্ধান্ত নিতে আমার জন্য কষ্ট হয়নি।’

পুলিশি টহল দিতে থাকা কেটি পারকিন্স খেলতে চান নারীদের বিশ্বকাপে। তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট আমার কাছে একটা উপহারের মত। যদি আমি পরবর্তী বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাই তাহলে সেটা দারুণ হবে। আর যদি তেমনটা না হয়? তাহলেও সমস্যা নেই, এটাই জীবন।’

নিউজিল্যান্ড নারী দলের হয়ে ৭০ টি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ও ৫২ টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ৩১ বছর বয়সী কেটি পারকিন্স। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান দুই ফরম্যাট মিলে রান করেছেন ১৫০০ এর বেশি।

প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত ১০০০ জনের আশেপাশে মানুষ করোনা ভাইরাসের শিকার হয়েছেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আনুষ্ঠানিকভাবে স্থগিত হল আইপিএল

Read Next

শোয়েব আখতারের ক্যারিয়ার বাঁচিয়েছিলেন ডালমিয়া

Total
18
Share