সান্দাকান-হাসারাঙ্গার স্পিনে কুপোকাত জিম্বাবুয়ে

match report 1
Vinkmag ad

sl

শুক্রবার প্রথম ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে লজ্জাজনক হারের পর সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বরূপে ফিরে এসেছে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দুইজন নতুন স্পিনারের অন্তর্ভুক্তিতে জিম্বাবুয়েকে বড় সংগ্রহের পথে দাঁড়াতেই দেয়নি লঙ্কানরা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয়টিতে ৭ উইকেটে জিতে নিয়ে ১-১ ব্যবধানে সিরিজে সমতা ফিরিয়ে আনল স্বাগতিকরা।

এদিন গলে ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টসে জিতে জিম্বাবুয়েকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানায় লঙ্কান কাপ্তান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করে প্রথম ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান সলোমন মিরেকে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে পাঠান লঙ্কান পেসার নুয়ান প্রদীপ। অভিজ্ঞ মাসাকাদজা ও ক্রেগ এরভিন দ্বিতীয় উইকেটে ৫৬ রানের জুটি গড়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন। মাসাকাদজার ব্যাট থেকে আসে জিম্বাবুয়ের ইনিংস সর্বোচ্চ ৪১ রান।

লঙ্কান স্পিনারদের সামনে থিতু হতে পারেনি জিম্বাবুয়ের মিডল অর্ডার। নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে সফরকারী দলটি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হ্যাটট্রিক করেছেন ১৯ বছর বয়সী লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা। নিজের দ্বিতীয় স্পেলেই টানা তিন বলে জিম্বাবুয়ের শেষ তিন উইকেট নিয়ে অভিষেকেই তৃতীয় বোলার হিসেবে ইতিহাস গড়েছেন তিনি। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটি ৪২তম ও লেগ স্পিনার হিসেবে প্রথম হ্যাটট্রিকের মালিক হাসারাঙ্গা।

ম্যালকম ওয়ালারের ৩৮ রানের ইনিস ছাড়া জিম্বাবুয়ের অন্য কোন ব্যাটসম্যান আর বেশিক্ষণ ক্রিজে স্থায়ী হতে পারেননি। ১৫৫ রানেই গুটিয়ে যায় গ্রায়েম ক্রেমারের দল। বাঁহাতি স্পিনার লাকশান সান্দাকান ৫২ রান খরচায় নিয়েছেন ৪ উইকেট। এছাড়া প্রদীপ, গুনারাত্নে ও গুনাথিলাকা একটি করে উইকেট ভাগ করে নিয়েছেন।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই দুই উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। গুনাথিলাকা ও কুশাল মেন্ডিসকে দ্রুত হারালেও উপুল থারাঙ্গা ও উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকওয়ালা ৬৭ রানের জুটি গড়ে শুরুর বিপদ কাটিয়ে ওঠেন। ডিকওয়েলা ব্যক্তিগত ৩৫ রানে ফিরে গেলেও অর্ধশতক পূরণ করেন থারাঙ্গা। অধিনায়ক ম্যাথুসকে নিয়ে চতুর্থ উইকেট জুটিতে অনবদ্য ৮১ রানের জুটি গড়ে আর কোন অঘটন ঘটার সুযোগ দেননি অভিজ্ঞ থারাঙ্গা। থারাঙ্গা ৭৫ ও ম্যাথুস ২৮ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পোঁছানোর দায়িত্ব পালন করেই মাঠ ছাড়েন।

জিম্বাবুয়ের পেসার টেন্ডাই চাতারা দুই উইকেট নেন। এদিন ম্যাচে লঙ্কান স্পিনার সান্দাকান ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

জিম্বাবুয়ে ১৫৫/১০ (৩৩.৪ ওভার) মাসাকাদজা ৪১, ওয়ালার ৩৮। সান্দাকান ৪/৫২, হাসারাঙ্গা ৩/১৫

শ্রীলংকাঃ ১৫৮/৩ (৩০.১ ওভার) উপল থারাঙ্গা ৭৫*, ডিকওয়েলা ৩৫। চাতারা ২/৩৩

ফলাফলঃ শ্রীলঙ্কা ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ লাকশান সান্দাকান।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

এইচপি দলের অস্ট্রেলিয়া সফর

Read Next

বাংলাদেশ সরাসরি বিশ্বকাপ খেলবে!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share