মুশফিক-তামিমদের পথে হাঁটছেন সাবেকরাও

সাকিব তামিম মুশফিক
Vinkmag ad

জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা দিন কয়েক আগে করোনা সংক্রমণ প্রতিহ করতে অনুদান দিয়েছেন প্রায় ৩১ লাখ টাকা। চলতি মাসে নিজেদের বেতনের অর্ধেক করে দান করেছেন ২৭ ক্রিকেটার। জাতীয় দলের চুক্তিবদ্ধ ১৭ ক্রিকেটার ছাড়াও ১০ জন ক্রিকেটার অংশ নেন অনুদানে। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পর সাবেক ক্রিকেটাররাও এগিয়ে আসছেন এই মহামারী সংক্রমণে সংকটকালীন মুহূর্তে। সাবেক ক্রিকেটারদের নিয়ে দুই একদিনের মধ্যেই আলোচনা হবে জানালেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।

জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা এরই মধ্যে আর্থিক সহায়তা করেছে। আমরা যারা সাবেক অধিনায়ক ও সাবেক ক্রিকেটার আছি তারাও কিছু করার চিন্তা করেছি।’

জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এক সুতোয় এনে অনুদান সংগ্রহের কাজটা করেছেন টাইগারদের নয়া অধিনায়ক তামিম ইকবাল। আর সাবেকদের সাথে আলোচনয়ার কাজটা করবেন তার চাচা ও সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান, ‘পরিস্থিতি এমন যে সবাই বিচ্ছিন্ন। তবুও আমি সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে যারা আর্থিকভাবে সচ্ছল তাদের সবাইকে নিয়ে করোনায় মানবিক সাহায্য করেতে চাই। দুই-একদিনের মধ্যেই আমরা কয়েকজন বসে কাজ শুরু করবো। আগে একটি তহবিল গঠন করবো। সেখানে যারা সাবেক ক্রিকেটার আছে তারা নিজেদের সাধ্যমতো অনুদান দেবে- এটাই আশা করি।’

‘আগে আমরা অর্থ সংগ্রহ করবো। এরপর সেখান থেকে প্রয়োজন বুঝে সাহায্য করবো। সেটা করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসার জন্য হতে পারে আবার যারা এই পরিস্থিতিতে অভাবে আছেন, একেবারেই দরিদ্র কর্মহীন সেই পরিবারগুলোর পাশে থাকার চেষ্টা করবো’

জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার যারা অনুদানে অংশ নেওয়ার মত সামর্থ্য রাখেন তাদের সবার সাথেই যোগাযোগ করা হবে বলে জানান আকরাম খান, ‘আমি চেষ্টা করছি যে যারা বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক ও ক্রিকেটার আছি। যাদের আর্থিক অবস্থা ভালো তাদের নিয়ে কাজ করতে। যেমন ফারুক ভাই আছেন, নান্নু (মিনহাজুল আবেদিন), দূর্জয় (নাঈমুর রহমান), সুমন (হাবুল বাশার), সুজন (খালেদ মাহমুদ) এদের সঙ্গে যোগাযোগ করবো। এছাড়াও আরো অনেক সাবেক ক্রিকেটার আছেন যারা অনুদান দিতে সক্ষম তারাও আশা করি আমাদের সঙ্গে আসবেন।’

বৈশ্বিক এই দুঃসময়ে একমাত্র একতা আর পারস্পরিক সহযোগীতাই পথ দেখাতে পারে উত্তরণের বিশ্বাস এই সাবেক তারকা ক্রিকেটারের, ‘এটি আমাদের ছোট্ট একটি প্রচেষ্টা। তবে আমি সবার কাছে অনুরোধ করবো যেন নিজ নিজ অবস্থান থেকে একে অপরের পাশে দাঁড়ায়। একতাই সব বদলে দিতে পারে। দেশের সাধারণ মানুষদের কাছে আমার অনুরোধ, আমরা সকলে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ বাসায় থাকি।’

‘হাত ধোয়া, পরিষ্কার থাকা, যেখানে-সেখানে কফ, থুতু ফেলা থেকে বিরত থাকি। সরকার যে নির্দেশ দিয়েছে তা মেনে চলি। একমাত্র আমাদের সচেতনতাই পারে এ বিপদ থেকে আমাদের রক্ষা করতে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ধোনির আবার জাতীয় দলে ফেরার সম্ভাবনা দেখছেন না হার্শা

Read Next

ভাবতেই ভয় পাচ্ছেন ক্রিকেটাররা, সিসিডিএম বলছে বিপদ হতে দিবেনা

Total
5
Share