‘লোভী ও নির্মম জাতি আমরা’

রুবেল হোসেন
Vinkmag ad

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। সরকারি হিসেবে ইতোমধ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ২৪ জন, এই রোগে প্রাণ হারিয়েছে ২ জন। প্রতিদিনই এই মহামারী রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। অথচ এমন দুর্যোগপূর্ণ সময়ের সুযোগ কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম দিচ্ছে হুড়হুড় করে বাড়িয়ে। করোনা প্রতিরোধে সবচেয়ে জরুরি মাস্কের দামও সাধারণ সময়ের চাইতে কয়েক গুণ বেশি। এই অসাধু ব্যবসায়ীদেরই বড় করোনা ভাইরাস হিসেবে আখ্যা দিলেন জাতীয় দলের পেসার রুবেল হোসেন।

চীনের উহান প্রদেশ থেকে ভয়াবহ এই ভাইরাসের বিস্তার শুরু হয়। গত কয়েকমাসে দেশটিতে প্রাণ হারায় হাজার হাজার মানুষ। তবে সময় গড়ানোর সাথে সাথে দেশটির চিকিৎসকদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও জনগণের পারস্পরিক সহযোগিতায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমে প্রায় শূন্যের কোটায়। দুর্যোগকালীন এই সময়টায় সংক্রমণ প্রতিরোধে চীনে মাস্ক প্রস্তুত প্রতিষ্ঠানগুলো কমিয়ে দেয় মাস্কের দাম।

কিন্তু বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার আগে থেকেই মাস্কের দাম বেড়ে যায় স্বাভাবিকের কয়েক গুণ। আর সাম্প্রতিক সময়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার পর শুধু মাস্ক নয় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি বিশেষ করে চাল, ডাল, পেয়াজ, তেল, লবনের দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে। খাদ্য মন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছেন দেশে মজুদ আছে পর্যাপ্ত পরিমান নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য। তবে এতেও লাভের লাভ কিছু হয়নি, করোনা ভীতির সুযোগ কাজে লাগিয়ে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে ব্যবসায়ীরা।

জাতীয় দলের ডানহাতি পেসার রুবেল হোসেন নিজের ফেসবুক একাউন্টে এমন পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীকভাবে অধিক লাভবানের লক্ষ্য স্থির করা ব্যবসায়ীদের টেনে জাতি হিসেবে বাংলাদেশিদের লোভী ও নির্মম হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি লিখেন, ‘লোভী ও নির্মম জাতি আমরা। চায়নাতে এতো বড় একটা বিপর্যয় গেল মাস্কের দাম কমিয়ে দিল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, কারণ তারা মানুষ।’

করোনার দাম শুনেই মাস্কের দাম বাড়ানো ব্যবসায়ীদের অমানুষ বলেও আখ্যা দেন ৩০ বছ বয়সী এই পেসার, ‘আর করোনার নাম শুনেই ৫ টাকার মাস্ক ৫০ টাকা, ২০ টাকার মাস্ক ১০০- ১৫০ টাকা! কারণ আমরা লোভী অমানুষ!’

‘শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি একাত্তরের সেই বীর সন্তানদের যাদের মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা পেয়েছি এই স্বাধীনতা। অথচ আজ কেন এই বিপর্যয় আমরা সবাই এক নই । কেন?’

মহামারী রূপ নেওয়া করোনা ভাইরাস সংক্রমণের এই সময়েও মাস্ক, স্যানিটাইজার ও নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যদ্রব্যের কৃত্রিম সংকট তৈরিকারিদের আসল করোনা ভাইরাস উল্লেখ করে রুবেল যোগ করেন, ‘মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং মুদি বাজারের সমস্ত জিনিসপত্রের দাম বেড়েই চলেছে ধিক্কার জানাই ওই সমস্ত লোভী মুনাফাখোর ব্যবসায়ীদের যারা কৃত্রিম সংকট তৈরী করে দাম বাড়াচ্ছে তারাই আসলে দেশের করোনা ভাইরাস।’

লোভী ও নির্মম জাতি আমরা।চায়নাতে এতো বড় একটা বিপর্যয় গেল মাস্কের দাম কমিয়ে দিল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান,কারণ তারা …

Geplaatst door Rubel Hossain op Zaterdag 21 maart 2020

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দুই বোর্ডের সমঝোতায় স্থগিত বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড সিরিজ

Read Next

নিজেকে আলাদা রেখেছেন সাকিব, দেখা করেননি মেয়ের সঙ্গে

Total
11
Share