নাইম হাসানের ঝড়ো ব্যাটিং, তামিমদের ২৫০ পার

নাইম হাসান নাহিদুল ইসলাম প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব
Vinkmag ad

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ হাই ভোল্টেজ ম্যাচে এঁকে অপরের মুখোমুখি হয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ও গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। আগে ব্যাট করতে নামা প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে শুরুতে চেপে ধরেছিল গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বোলাররা। পরে নাইম-নাহিদের ব্যাটে চড়ে ২৫০ পার করেছে তামিম ইকবালের দল।

টসে জিতে আগে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে ব্যাট করতে পাঠান গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ইনিংসের প্রথম ওভারে মেডেন দেন নাহিদ হাসান। পরের ওভারের ৩য় বলে এনামুল হক বিজয়কে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান হাসান মাহমুদ। ৩ বল খেলা বিজয় রানের খাতা খুলতে পারেননি।

শুরুর ঐ ধাক্কা সামলাতেই কিনা খোলসবন্দি হয়ে যান প্রাইম ব্যাংকের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। রনি তালুকদার ও তামিম ইকবালের ২য় উইকেট জুটিতে ৪৬ রান আসে, তবে এর জন্য দুজনকে ব্যাট করতে হয় ১৩ ওভার! ৪৭ বল উইকেটে থাকা তামিম ইকবাল বাউন্ডারি (৪) মারতে পারেন কেবল ১ টি। ৪০.৪৩ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করতে থাকা তামিমের অস্বস্তিকর ইনিংস থামান নাসুম আহমেদ। ১৯ রান করা তামিম নাসুমের বলে ক্যাচ দেন নাহিদ হাসানকে।

নাসুম আহমেদ পরে ফেরান চারে নামা রকিবুল হাসানকেও। ৬ বলে ৫ রান করা রকিবুলকে বোল্ড করেন নাসুম।

৪র্থ উইকেট জুটিতে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে আশা দেখাচ্ছিলেন রনি তালুকদার ও মোহাম্মদ মিঠুন। তবে এই দুজনকেই সাজঘরে ফেরান গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স দলপতি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৩৯ বলে ২ চার, ১ ছক্কায় ২৭ রান করা মোহাম্মদ মিঠুনকে ফেরান এলবিডব্লিউ করে। তাতে ভাঙে মিঠুন-রনির ৫৫ রানের জুটি। সেঞ্চুরির পথে থাকা রনি তালুকদারকে বোল্ড করে ফেরান মাহমুদউল্লাহ। ১০৪ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৭৯ রান করেন রনি তালুকদার।

পরে ১৭ রান করা অলক কাপালিকেও সাজঘরে ফেরান মাহমুদউল্লাহ। ১৫৫ রানেই ৬ উইকেট হারানো প্রাইম ব্যাংক বেশিদূর যেতে পারবে না বলেই মনে হচ্ছিল। তবে ৭ম উইকেটে ৯৬ রানের অবিচ্ছেদ্য জুটি গড়েন নাহিদুল ইসলাম ও নাইম হাসান। ৪৩ বলে ৩ টি করে চার ও ছক্কায় ৫৩ রান করে অপরাজিত থাকেন নাহিদুল ইসলাম। ৩৬ বলে ৬ চারে ৪৬ রান করে অপরাজিত থাকেন নাইম হাসান।

৫০ ওভারে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে ২৫২ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় প্রাইম ব্যাংক। ব্যাট হাতে দলকে বলার মতো স্কোর গড়তে সাহায্য করা নাইম হাসান বল হাতেও বাজিমাত করেন। ওপেনার জাকির হাসানকে (৫) ফেরান এলবিডব্লিউ করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম ইনিংস শেষে)-

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ২৫১/৬ (৫০), তামিম ১৯, বিজয় ০, রনি ৭৯, রকিবুল ৫, মিঠুন ২৭, কাপালি ১৭, নাহিদুল ৫৩*, নাইম ৪৬*; হাসান ১০-১-৪৫-১, নাসুম ১০-০-৪০-২, মাহমুদউল্লাহ ১০-০-৫৩-৩।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শৈশবের প্রিয় ক্লাব ছেড়ে যেভাবে মুশফিক আবাহনীর সমর্থক হলেন

Read Next

হাসলো না আশরাফুলের ব্যাট, নাসিরের ফিফটি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
15
Share