কোহলির এশিয়া একাদশের হয়ে খেলা-না খেলা নিয়ে ধোঁয়াশা

ভিরাট কোহলি

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশের মধ্যকার ম্যাচে ভিরাট কোহলিকে চেয়েছে বিসিবি (বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড)। তবে ওয়ার্কলোডের কথা বিবেচনা করে ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলি বাংলাদেশে নাও আসতে পারেন। বিসিসিআই এখনও সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড- (বিসিসিআই) এখনও এশিয়া একাদশ বনাম বিশ্ব একাদশ টি-টোয়েন্টিতে ভিরাট কোহলির অংশগ্রহণকে ‘নিশ্চিত’ করতে পারেনি।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ১৮ ও ২১ মার্চ শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে হওয়া ম্যাচের জন্য বিশ্ব একাদশের নাম ঘোষণা হয়ে গেছে। এশিয়া একাদশে কারা খেলবেন সেটাও মোটামুটি নিশ্চিত।

কোহলি আসছেন সেটা বাংলাদেশ জানালেও ভারতীয় বোর্ডের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় এখনও রয়েছে বিসিবি। ওয়ার্কলোডের কথা বিবেচনা করে ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলি বাংলাদেশে নাও আসতে পারেন। বিসিসিআই এখনও সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি।

কিন্তু অন্তত একটি ম্যাচে দেখা যেতে পারে কোহলিকে। ঢাকায় প্রথম ম্যাচের দিন ১৮ তারিখই ভারতের শেষ ওয়ানডে কোলকাতায়। তাই শেষ ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশে আসবেন কিনা তা কোহলির ওপরই ছেড়ে দিচ্ছে বিসিসিআই। কোহলির এশিয়া একাদশে খেলা নির্ভর করবে তাঁর সম্মতি উপর।

দুটো ম‌্যাচের জন‌্যই ভিরাট কোহলিকে চেয়েছিলেন আয়োজকরা। তবে ভারতের ব্যস্ত সূচির জন‌্য সেটা সম্ভব হয়ে উঠবে কিনা সেটা এখন কোটি টাকার প্রশ্ন। কারণ প্রথম প্রদর্শনী ম‌্যাচের দিনই ইডেনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তৃতীয় ওয়ানডে খেলবে ভারত। ফলে এশিয়া একাদশের হয়ে সর্বোচ্চ একটা ম‌্যাচেই মাঠে নামতে পারেন কোহলি।

ছয় দিনের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে খেলে টি-টোয়েন্টি খেলার জন্য ঢাকা ভ্রমণ করতে হবে কোহলিকে। কোহলি কি এই চাপ নিয়ে টি-টোয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশে আসবে? এর উত্তর কিছুটা হলেও প্রকাশ পেয়েছে ভারতের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রীর কথায়।

“আমি মনে করি এটি তাঁর (ভিরাট কোহলি) সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে। তিনি যদি এই চাপ অনুভব করেন, অবশ্যই কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেবেন না খেলার জন্য।’’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সিলেটে হাই-স্কোরিং ম্যাচের আশা করছেন চিবাবা

Read Next

ডোমিঙ্গোর বার্তা সাহায্য করেছে সাইফউদ্দিনকে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
8
Share