২য় বারের মতো ইনিংস ব্যবধানে টেস্ট জিতল বাংলাদেশ

বাংলাদেশ টেস্ট জয় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০২০

টানা ৬ টেস্টে লজ্জাজনক হারের পর অবশেষে জয়ের দেখা পেল বাংলাদেশ। মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে চতুর্থদিন চা বিরতির আগেই জয় তুলে নেয় মুমিনুল হকের দল। সবশেষ ৬ টেস্টের ৫ টিতেই ইনিংস ব্যবধানে হারা বাংলাদেশ এবার প্রতিপক্ষকেই হারালো ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে।

মুশফিকুর রহিমের ডাবল সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে চাপা পড়ে জিম্বাবুয়ে। ইনিংস হার এড়াতে করতে হবে ২৯৬ রান, তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে ৫ ওভার ব্যাট করে ৯ রান তুলতেই নাইম হাসানের স্পিন ঘূর্ণিতে হারায় ২ উইকেট। চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনটাও নিজেদের দখলে নেয় টাইগার বোলাররা। দিনের পঞ্চম ওভারেই তাইজুলের শিকার হয়ে ফেরেন কেভিন কাসুজা। ১০ রানের বেশি করতে পারেননি জিম্বাবুইয়ান এই ব্যাটসম্যান।

অভিজ্ঞ ব্রেন্ডল টেইলর হতে পারতেন ক্রেইগ আরভিনদের ত্রানকর্তা। কিন্তু ১৭ রান করে নাইম হাসানের বলে অপ্রয়োজনীয় শট খেলে ক্যাচ দেন তাইজুল ইসলামকে। ৪৪ রানে ৪ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের হাল ধরার চেষ্টা করেন অধিনায়ক আরভিন ও সিকান্দার রাজা। দুজনে মিলে পঞ্চম উইকেট জুটিতে যোগ করেন ৬০ রান। ৪৯ বলে ৬ চার ১ ছক্কায় ৪৩ রান করে আরভিন রান আউটে কাটা পড়লে ভাঙে জুটি। লাঞ্চের আগে বাকি সময় অবশ্য নিরাপদেই কাটান সিকান্দার রাজা ও টিমিসেন মারুমা।

৫ উইকেটে ১১৪ রান নিয়ে লাঞ্চে যাওয়া জিম্ববাউয়ে লাঞ্চের পর দ্রুতই হারায় সিকান্দার রাজার উইকেট। তাইজুল ইসলামের বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ৩৭ রান। তার বিদায়ের কিছুটা লড়াই করেন টিমিসেন মারুমা ও রেজিস চাকাভা। দুজনে মিলে ৭ম উইকেটে যোগ করেন ৪৪ রান। তাইজুল ইসলামের তৃতীয় শিকার হয়ে চাকাভা (১৮) ফিরলে ভাঙে জুটি।

এরপর বেশিক্ষণ টিকেনি সফরকারীদের ইনিংস। নাইম হাসানের পঞ্চম শিকার হয়ে মারুমা বিদায় নেন ব্যক্তিগত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪১ রান করে। ৫৮ তম ওভারের করা তাইজুলের তৃতীয় বলটিতে শুমা এলবিডব্লিউর শিকার হলে ১৮৯ রানেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। ইনিংস ও ১০৬ রানে হারিয়ে বাংলাদেশ পায় টেস্ট ইতিহাসে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ব্যবধানে জয়।

 

View this post on Instagram

 

Career best bowling figure (in a test match) for Nayeem Hasan. How good is he? #BANvZIM

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

এটি টেস্ট ইতিহাসে বাংলাদেশের ১৪ তম জয়, ইনিংস ব্যবধানে ২য় জয়, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৭ম জয়। অধিনায়ক মুমিনুল হকের অধীনে বাংলাদেশের ১ম জয়ও এটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

জিম্বাবুয়ে ২৬৫/১০ ও ১৮৯/১০ (৫৭.৩), ম্যাসভাউর ০, কাসুজা ১০, টিরিপানো ০, টেইলর ১৭, আরভিন ৪৩, সিকান্দার ৩৭, মারুমা ৪১, চাকাভা ১৮, লোভু ৪, শুমা ৩, নিয়াউচি ৭*; নাইম ২৪-৬-৮২-৫, তাইজুল ২৪.৩-৭-৭৮-৪।

বাংলাদেশ ৫৬০/৬ (১৫৪ ওভারে ইনিংস ঘোষণা), তামিম ৪১, সাইফ ৮, শান্ত ৭১, মুমিনুল ১৩২, মুশফিক ২০৩*, মিঠুন ১৭, লিটন ৫৩, তাইজুল ১৪*; টিরিপানো ৩০-৬-৯৬-১, নিয়াউই ২৭-৩-৮৭-১, সিকান্দার ৩০-২-১১১-১, শুমা ২৫-২-৮৫-১, লোভু ৪২-৪-১৭০-২।

ফলাফলঃ বাংলাদেশ ইনিংস ও ১০৬ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরাঃ মুশফিকুর রহিম (বাংলাদে) ।

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

মুর্শিদাকে সেরা খেলোয়াড় বলে রায় দিলেন নিগার

Read Next

বিশ্ব একাদশ-এশিয়া একাদশের ম্যাচে বসবে তারার মেলা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
76
Share