ব্যাংকার্স চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফিতে সেঞ্চুরি, জয় পেল এফএসআইবিএল ও এমটিবি

এমটিবি রাসেল সেঞ্চুরি ব্যাংকার্স চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি

বসুন্ধরা গ্রুপ ব্যাংকার্স চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফিতে আজ (২১ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত হয়েছে দুইটি ম্যাচ। রাজধানীর সিটি ক্লাব গ্রাউন্ডে জয় পেয়েছে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এফএসআইবিএল) ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক (এমটিবি)।

দিনের প্রথম খেলায় এফএসআইবিলের বিপক্ষে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় এনআরবি ব্যাংক। ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে এনআরবি ব্যাংক। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন তিনে নামা সুমন।

সাদ্দাম ও ইমরানের ব্যাটে চড়ে হেসেখেলে ১৪৫ রানের বাঁধা পার করে এফএসআইবিএল। ৭ উইকেট ও ১৪ বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় তারা। সাদ্দাম ৪৯ ও ইমরান ৪১ রান করে অপরাজিত থাকেন। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়া সাদ্দাম পান ম্যাচসেরার পুরষ্কার।

দিনের শেষ ম্যাচে পাদপ্রদীপের আলো নিজের দিকে নিয়ে নেন এমটিবির ওপেনার রাসেল। ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হবার আগে ৫৯ বলে ৯ চার ও ১১ ছক্কায় ১২৩ রান করেন তিনি। টুর্নামেন্টের প্রথম শতক এটিই। ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ঠিক ২০০ রান করে থামে এমটিবির ইনিংস।

এসবিএসি (সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স) ব্যাংক এমটিবির রানের পাহাড় টপকাতে নেমে শুরুটা খারাপ করে। দুই ওপেনারের কেউই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। তিনে নামা নিজাম ৪০ বলে ১০ চার ও ২ ছক্কাতে ৬২ রানের ইনিংস খেলেন। সাতে নামা মুশফিকুর খেলেন কার্যকরী এক ইনিংস (৩৫*)। তবে অন্যদের ব্যর্থতায় তা যথেষ্ট হয়নি। ১৪৩ রানেই থামতে হয় এসবিএসি ব্যাংককে। এমটিবির হয়ে ৫ উইকেট শিকার করেন নাইমুর। ম্যাচসেরার পুরষ্কার জেতেন এমটিবির রাসেল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর- ম্যাচ নম্বর ১

এনআরবি ব্যাংক ১৪৫/৮ (২০), সুমন ৪৬, অপুর্ব ৩৯, হাসান ২৯*; নবাব ২/১৭, আজাদ ৩/৩২, জিয়া ১/১৩।

এফএসআইবিএল ১৪৬/৩ (১৭.৪), ইমরান ৪১*, আজম ১৯, সাদ্দাম ৪৯*; সুমন ১/২৩, আশরাফুল ১/২৬, হাসান ১/৩৪।

ফলাফলঃ এফএসআইবিএল ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরাঃ সাদ্দাম (এফএসআইবিএল)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর- ম্যাচ নম্বর ২

এমটিবি ২০০/৩ (২০), রাসেল ১২৩, দেবাশীষ ৪৪, ওয়াকিল ১২*; রাফিউল ১/৩২, আফজাল ১/৩০, সাদেকুল ১/৪৮।

এসবিএসি ব্যাংক ১৪৩/৯ (২০), নিজাম ৬২, মুশফিকুর ৩৫*, রতন ১১; নাইমুর ৫/১৯, মারুফ ১/৮, জাহিদুর ১/১৭।

ফলাফলঃ এমটিবি ৫৭ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরাঃ রাসেল (এমটিবি)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘কথা দিলাম টিমের যে কেউ ১০০, ২০০ কিংবা ৩০০ করবে’

Read Next

পাপনের করা সেই আলোচিত মন্তব্য আগে কখনও শুনেননি মুমিনুল

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
5
Share