পিএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় পেল সরফরাজের কোয়েটা

psl1

ঘরের মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সমন্বয়ে শুরু হয়েছে পাকিস্তান সুপার লিগ- পিএসএল। উদ্বোধনী দিনে জয় দিয়ে শুরু করেছে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স। ইসলামাবাদের করা ১৬৮ রান টপকে যায় কোয়েটা ৩ উইকেট ও ৯ বল হাতে রেখে।

প্রথম ম্যাচে করাচিতে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড ও কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স মুখোমুখি হয়। কোয়েটার পেসার মোহাম্মদ হাসনাইনের তোপে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড ২০ ওভারের আগেই ১৬৮ রানে অলআউট হয়ে যায়। জবাবে ৩ উইকেট ও ৯ বল হাতে রেখে এবারের আসর শুরু করে কোয়েটা।

ERPwPZbXYAAcGyR
ম্যাচ সেরার পুরষ্কার হাতে মোহাম্মদ হাসনাইন

করাচিতে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন। আসরের প্রথম বলেই উইকেট। মোহাম্মদ নাওয়াজের নিজের বলে নিজেই ক্যাচ নেন। শূন্য রানে ফিরে যান ওপেনার কলিন মুনরো। এরপর লুক রনকি ও ডেভিড মালানের ব্যাটে আসে স্বস্তি। রনকি ২৩ করে আউট হলে জুটি ভাঙ্গে ৩৮ রানের।

১১ রানে মোহাম্মদ হাসনাইনের বলে ক্যাচ তুলে আউট হন হোসাইন তালাত। এরমধ্যে ফিফটির দেখা পান ডেভিড মালান। উইকেটের পতন মিছিলে একাই দাঁড়িয়ে মালান। কলিন ইনগ্রামের ব্যাট থেকে আসে ৬ রান।

বেন কাটিংয়ের বলে জেসন রয়ের হাতে ক্যাচ তুলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ডেভিড মালান। আউট হওয়ার আগে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ৪০ বলে ৬৪ রানের ইনিংস। আসিফ আলি ১৩ বলে করেন ১৯। শেষদিকে ফাহিম আশরাফ ৮ বলে ২০ রান করলে ইসলামাবাদের সংগ্রহ ১৬০ এর বেশি হয়।

বল হাতে কোয়েটার পেসার মোহাম্মদ হাসনাইন ২৫ রান খরচে ৪ উইকেট নেন। বেন কাটিং ৩ ও সোহাইল খান ২ উইকেট শিকার করেন।

১৬৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে কলিন মুনরোর পথেই যেন হাটলেন জেসন রয়। কলিন মুনরো আউট হয়েছিলেন প্রথম বলে, আর জেসন রয় ইনিংসের দ্বিতীয় বলে। শূন্য রানের তালিকায় ওপেনার জেসন রয় যোগ দিলেন। শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি কোয়েটার। ২৬ রান করতেই নেই তাঁদের টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান।

শেন ওয়াটসন রান আউটের শিকার হন ব্যক্তিগত ১৫ রানে। পরের ওভারে আহমেদ শেহজাদ আউট হন ৭ করে। মোহাম্মদ মুসা পান তাঁর দ্বিতীয় শিকারের দেখা। এরপর জুটি আসে অধিনায়ক সরফরাজ ও আজম খানের ব্যাটে। তবে ২১ রানের বেশি করতে পারেননি সরফরাজ। ১৩ বলে ২৩ করেন নাওয়াজ।

এরমধ্যে ফিফটির দেখা পান আজম খান। কিন্তু ফিফটির পর তাঁকে বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে দেননি ফাহিম আশরাফ। বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে ৩৩ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে খেলেন ৫৯ রানের ইনিংস। এরপর কোয়েটা জয়ের বাকি পথটুকু পাড়ি দেয় বেন কাটিং ও সোহাইল খানের ব্যাটে চড়ে। সোহাইল ১৪ করে আউট হলেও অপরাজিত ২২ রানের ইনিংস খেলে দলকে জেতান কাটিং।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ইসলামাবাদ ইউনাইটেডঃ ১৬৮/১০ (১৯.১ ওভার) মুনরো ০, রনকি ২৩, মালান ৬৪, তালাত ১৯, ইনগ্রাম ৬, আসিফ ১৯, শাদাব ৮, ফাহিম ২০; হাসনাইন ৪/২৫, কাটিং ৩/৩১, সোহাইল ২/২১, নাওয়াজ ১/১৭

কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সঃ ১৭১/৭ (১৮.৩ ওভার) জেসন ০, ওয়াটসন ১৫, শেহজাদ ৭, সরফরাজ ২১, আজম ৫৯, নাওয়াজ ২৩, কাটিং ২২*, সোহাইল ১৪; মুসা ৩/৩০, জাভেদ ১/২১, ফাহিম ১/১৮, বাট ১/৫০

ফলাফলঃ কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স ৩ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ মোহাম্মদ হাসনাইন

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সবেধন নীলমণির অংশ না হতে চেয়ে মাহমুদউল্লাহর আবেদন

Read Next

জেমিসনের রঙিন অভিষেক, ভারতের বিবর্ণ ব্যাটিং

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
7
Share