প্রয়াত কোচকে সেঞ্চুরি উৎসর্গ করলেন তামিম

তানজিদ হাসান তামিম, বিসিবি একাদশের পক্ষে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরি

দলের বিপর্যয়ের মুহূর্তে ক্রিজে এসে অধিনায়ক আল আমিন হোসেনকে নিয়ে স্কোরবোর্ডে যোগ করেছেন ২১৯ রান। যুব দলের ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম তুলে নিয়েছেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি, পরে আল আমিনও অবশ্য পেয়েছেন সেঞ্চুরির দেখা। দুজনের জোড়া সেঞ্চুরিতেই খাদের কিনারা থেকে উঠে এসে দল পায় শক্ত অবস্থান।

যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের ৬ ক্রিকেটার সুযোগ পেয়েছিলেন বিসিবি একাদশের হয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে। আগেরদিন ৭ উইকেটে ২৯১ রান তোলা জিম্বাবুয়ে আজ আর ব্যাট করতে নামেনি। দ্বিতীয় দিন বিসিবি একাদশকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে নিজেদের বোলিং ইউনিটকেও ঝালিয়ে নিতে চায় জিম্বাবুয়ে।

লাঞ্চের আগে নাইম শেখ, মাহমুদুল হাসান, শাহাদাত হোসেন, আকবর আলি ও পারভেজ হোসেন ইমন ফিরে যান সাজঘরে। ৬৯ রানে ৫ উইকেট হারানো বিসিবি একাদশকে টেনে নেন আল আমিন-তামিম জুটি। সমঝোতায় শেষ হওয়া খেলায় আর কোন উইকেট হারায়নি বিসিবি একাদশ। ১২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন তামিম, ঠিক ১০০ রানে অপরাজিত আল আমিন।

View this post on Instagram

Rate this innings of Tanzid Hasan Tamim. #BCBXIvZIM

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

View this post on Instagram

Captain's knock. Rate his innings. #BCBXIvZIM

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

৮৭ বলে ১০ চার ৫ ছক্কায় সেঞ্চুরি তুলে নেন তানজিদ হাসান তামিম। শেষ পর্যন্ত ৯৯ বলে ১৪ চার ও ৫ ছক্কায় ১২৫ রানে অপরাজিত থাকা যুব দলের এই ওপেনার জানান সেঞ্চুরি উৎসর্গ করেছেন তার শৈশব কোচ মুসলিম উদ্দিনকে। যিনি গত ১০ ফেব্রুয়ারি পরলোকগমন করেন।

প্রথম বারের মত বয়সভিত্তিকের বাইরে আন্তর্জাতিক ঘরানার কোন দলের হয়ে খেলা তামিম সেঞ্চুরি উৎসর্গ করতে গিয়ে বলেন, ‘আমার বাড়ি যেহেতু বগুড়ায়, বগুড়ায় আমার ডিস্ট্রিক্ট কোচ মুসলিম উদ্দিন স্যার আছেন উনি কিছুদিন আগে মারা গেছেন। আমার সেঞ্চুরিটা আমি উনাকে উৎসর্গ করতে চাই।’

এদিকে অধিনায়ক আল আমিন জুনিয়রের জন্য এই লেভেলে সেঞ্চুরি নতুন কিছু নয়। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে তিনটি ও লিস্ট ‘এ’ তেও আছে ৪ টি সেঞ্চুরি। বিকেএসপির মাঠে আজকের সেঞ্চুরিটি আবার তার পঞ্চম সেঞ্চুরি। আল আমিনও সেঞ্চুরি উৎসর্গ করেছেন তার কোচকে, ‘আসলে ওরকম ভাবে চিন্তা তো করিনাই। তো মানে, আমি বলব যে, আমি যার কাছ থেকে ছোট বেলা থেকে ক্রিকেট শিখেছি উনি চার বছর আগে মারা গেছেন। আল্লাহ’র রহমতে শেষ চার বছরে আমি চারটা সেঞ্চুরি পেয়েছি। আরও যত ভালো ইনিংসগুলো খেলছি। আমি স্যারকে (আবদুল হাদী রতন) অনেক।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়েই শেষ হচ্ছে ‘অধিনায়ক মাশরাফি’ অধ্যায়

Read Next

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জেতার আগেই জিতে যাওয়ার মানসিকতায় বিরক্ত পাপন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
14
Share