‘অবশ্যই আমরা চ্যাম্পিয়ন হবো’

miraz
Vinkmag ad

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিদায় করে বাংলাদেশ পেল সেমিফাইনালের টিকিট। ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে আগামীকাল দ্বিতীয় সেমিতে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড। এক সময়কার বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সফল অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজের প্রত্যাশা এবার ফাইনাল খেলবে বাংলাদেশের যুবারা।

আগামীকাল ৬ ফেব্রুয়ারি সেমি-ফাইনালে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে যে দল জিতবে তারাই ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে। ফাইনাল মঞ্চের খুব কাছে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ দল। ২০১৬ সালে বাংলাদেশকে সেমিফাইনালে তোলা অধিনায়ক মিরাজ এবারের বাংলাদেশ যুবা দলকে নিয়ে বেশ আশাবাদী।

‘অনূর্ধ্ব-১৯ দল অনেক ভালো ক্রিকেট খেলছে। আমার কাছে যা মনে হয়েছে টিমের ভিতরে ওদের অনেক ভালো কমিউনিকেশন ছিল। তিন ডিপার্টমেন্টেই অনেক ভালো ক্রিকেট খেলছে। কালকের ম্যাচে এই তিন ডিপার্টমেন্টে ভালো করতে পারলেই ফাইনাল খেলবে। আর ফাইনাল খেললে অবশ্যই আমরা চ্যাম্পিয়ন হবো।’

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দ্বিতীয়বারের মতো সেমিফাইনালে বাংলাদেশ যুব দল। এর আগে ২০১৬ সালে মেহেদী হাসান মিরাজের নেতৃত্বাধীন দলটি শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলে প্রথমবার সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিল। তাই সেমি-ফাইনাল ম্যাচ নিয়ে মিরাজের বক্তব্য,

‘সেমিফাইনাল ম্যাচে অনেক প্রেশার থাকবে তবে যারা নিতে পারবে ভালো ভাবে তারাই জিতবে। ওদের জন্য অনেক বড় একটি সুযোগ, যা আগে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ করতে পারেনি। চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি, ফাইনাল খেলতে পারেনি। আশা করি ওরা ভালো খেলবে।’

এবারের বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে টাইগাররা জিম্বাবুয়ে, স্কটল্যান্ডকে হেসেখেলে হারালেও পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টির কল্যাণে শেষ রক্ষা হয় আকবর আলির দলের, পরিত্যাক্ত হয় ম্যাচ। রান রেটে এগিয়ে থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে টাইগার যুবারা। সেমিফাইনাল টিকিট পেতে কোয়ার্টার ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে মোকাবিলা করে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে। প্রোটিয়ারা দাঁড়াতে পারেনি বাংলাদেশের সামনে।

সেমিতে নিউজিল্যান্ড কি পারবে দুরন্ত বাংলাদেশকে টপকাতে? ইংলিশ ধারাভাষ্যকার অ্যালান উইলকিন্সের চোখে পরিষ্কার এগিয়ে বাংলাদেশই। তার মতে নিউজিল্যান্ডের সামর্থ্য নেই বাংলাদেশের এই দলকে হারানোর।

২০২০ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের স্কোয়াড-

আকবর আলি (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), তৌহিদ হৃদয় (সহ অধিনায়ক), তানজিদ হাসান তামিম, মোহাম্মদ পারভেজ হোসেন ইমন, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল, মাহমুদুল হাসান জয়, শাহাদত হোসেন, শামীম হোসেন, মোহাম্মদ মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী নিপুন, তানজিম হাসান সাকিব, অভিষেক দাস, শরিফুল ইসলাম, মোহাম্মদ শাহিন আলম, রাকিবুল হাসান ও হাসান মুরাদ।

স্ট্যান্ড বাই- অমিত হাসান, এসএম মেহেরব হাসান, আশরাফুল ইসলাম সিয়াম, মিনহাজুর রহমান মোহন্না, রুবেল মিয়া, আসাদুল্লাহ হিল গালিব।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মিরাজ জানালেন ফিরবেন কবে

Read Next

মিরাজকে দেশের বাইরের জন্য প্রস্তুত করছেন ভেট্টোরি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
2
Share