ডোমিঙ্গোকে ‘১০’ জন পেসারের তালিকা দিয়েছেন গিবসন

ওটিস গিবসন জুলিয়ান ক্যালেফাতো রাসেল ডোমিঙ্গো সৌম্য সরকার
Vinkmag ad

চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্টের বিদায়ের পর বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের দায়িত্ব উঠেছে ক্যারিবিয়ান ওটিস গিবসনের কাঁধে। নিয়োগের দিন দুয়েকের মাথায় পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেই শুরু করেন কাজ। দলের সাথে পাকিস্তান যাওয়া এই অভিজ্ঞ কোচ বিপিএলে কাজ করার সুবাধে স্থানীয় পেসারদের দেখেছেন কাছ থেকে। বিপিএল চলাকালীনই বাংলাদেশি পেসারদের নিয়ে কাজ করার আগ্রহ জানান গণমাধ্যকর্মীদের, বিসিবির সাথে প্রাথমিক আলোচনার খবরটাও জানান নিজেই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ২ টেস্ট ও ১৫ ওয়ানডে খেলা গিবসনের কোচিং ক্যারিয়ারটা বেশ সমৃদ্ধ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলেরও হেড কোচ ছিলেন। ওটিস গিবসনের অধীনেই ২০১২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তুলেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই ধাপে তিনি ইংল্যান্ড জাতীয় দলের বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সবশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা দলের প্রধান কোচ ছিলেন। দুই বছর পর তার চুক্তির মেয়াদ আর বাড়ায়নি প্রোটিয়ারা। কিন্তু বিশ্বকাপের ভরাডুবির পর তার চাকরিটা যায়। এবার আসছেন রুবেল-মুস্তাফিজদের দায়িত্বে।

টাইগারদের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোও বেশ আশাবাদী গিবসনকে নিয়ে, ইতোমধ্যে ১০ জন পেসারের তালিকাও দিয়েছেন ক্যারিবিয়ান এই কোচ, যারা ভবিষ্যতে বাংলাদেশকে সেবা দিবে।

দ্বিতীয় দফার পাকিস্তান সফরের রাওয়ালপিন্ডি টেস্ট খেলতে মুমিনুল হকের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল দেশ ছাড়বে আগামীকাল (৪ ফেব্রুয়ারি)। আজ (৩ ফেব্রুয়ারি) আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে টাইগার কোচ কথা বলেন দলের সদ্য যোগ দেওয়া পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনকে নিয়ে। এর আগে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করা গিবসনকে কেবল বোলিং কোচ হিসেবে ব্যবহার করতে চান না দক্ষিণ আফ্রিকান রাসেল ডোমিঙ্গো।

গিবসনকে নিয়ে বলতে গিয়ে টাইগার কোচ বলেন, ‘আমি গিবসনকে বেশ ভালো করে জানি। সে বেশ অভিজ্ঞ একজন কোচ। আমি তাঁকে শুধু বোলিং কোচ হিসেবে ব্যবহার করতে চাইনা। কোচিং সম্পর্কিত দলের অন্যান্য ব্যাপারেও তাঁকে আমি যুক্ত করতে চাই। সে যাই দেখে সেটা পছন্দ করে।’

দলের সাথে যোগ দেওয়া গিবসন ইতোমধ্যে রাসেল ডোমিঙ্গোকে জমা দিয়েছেন একটি তালিকা। যেখানে আছে ১০ জন বোলারের নাম যারা ভবিষ্যত বাংলাদেশের কান্ডারি হওয়ার সামর্থ্য রাখে। তাদের নিয়ে শীঘ্রই ম্যাচের আয়োজন করবে বলে জানান টাইগার কোচ, ‘সে (গিবসন) আমাকে ১০ জন বোলারের একটি তালিকা দিয়েছে। সে মনে করে তাদের যথেষ্ট সামর্থ্য আছে ভবিষ্যত বাংলাদেশ দলের হয়ে দাপট দেখানোর। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে তাদের নিয়ে কিছু ম্যাচ আয়োজনের সময় বের করতে হবে।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

‘মুশফিক ভাই অবশ্যই খেলবে’

Read Next

তামিম-সাকিবের মতো বড় ক্রিকেটার নন বলে বিব্রত হননি মুশফিক

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
21
Share