নান্নু জানালেন কেনো টেস্ট দলে রুবেল হোসেন

রুবেল হোসেন

পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই দফায় দুই টেস্ট ও মাঝে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এক টেস্ট মিলিয়ে আজ (১ ফেব্রুয়ারি) তিন টেস্টের জন্য ১৪ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বিসিবি। ভারত সফরে কোন টেস্ট না খেলেও আসন্ন সিরিজে বাদ মুস্তাফিজুর রহমান। অন্যদিকে চমক হিসেবে দেড় বছর পর ডাক পেলেন রুবেল হোসেন। মুস্তাফিজের বাদ পড়ার পেছনে কারণ সাম্প্রতিক বাজে ফর্ম অন্যদিকে রুবেল বিবেচনায় এসেছেন অভিজ্ঞতা ও বিপিএল পারফরম্যান্স দিয়ে।

এমনিতেই রুবেল হোসেনর টেস্ট ক্যারিয়ার বিবর্ণ। গতি দিয়ে নজর কাড়া এই পেসার নিজেকে ঠিক মেলে ধরতে পারেননি টেস্ট ক্রিকেটে। গড়, স্ট্রাইক রেট কোন কিছুতেই টেস্ট ক্রিকেটে পরিসংখ্যান কথা বলবেনা তার হয়ে। ২০০৯ সালে অভিষেকের পর বাংলাদেশের হয়ে সাদা পোশাকে খেলেছেন ২৬ টেস্ট, উইকেট সাকূল্যে ৩৩ টি।

৪৩ ইনিংসে বল হাতে নেওয়া রুবেল হোসেনের গড় ৮০.৩৩, স্ট্রাইক রেট ১২৩.৭৭! যেখানে ওয়ানডেতে ১০১ ম্যাচে উইকেট ১২৬ টি, গড় ৩৪.১২ ও স্ট্রাইক রেট ৩৬! রানের খেলা টি-টোয়েন্টিতেও রুবেলের পারফরম্যান্স মন্দ নয় ২৭ ম্যাচে উইকেট ২৮ টি, গড় ৩১.৩৯, স্ট্রাইক রেট ২০.২০!

কেবল আন্তর্জাতিক টেস্টেই নয় প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেই ডানহাতি এই পেসার কখনোই ছিলেন না ধারাবাহিক। সবমিলিয়ে ৫৮ প্রথম শ্রেণির ম্যাচে উইকেট ৯৩ টি (বিসিএলে চলমান ম্যাচ আন্তর্ভুক্ত নয়)। স্ট্রাইক রেট এখানেও বেশ বাজে, ৮৪.২ অন্যদিকে গর ৫৪.১৮। বিসিএলের চলতি ম্যাচেও ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের হয়ে খেলা রুবেল হোসেন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ১০ ওভার বল করে ছিলেন উইকেট শূন্য।

অভিজ্ঞতা কাজে আসলো রুবেলের

লংগার ভার্সনে এমন হতশ্রী পরিসংখ্যানের একজনকে হুট করে ডাকার পেছনে কারণ জানতে চাইলে ‘ক্রিকেট৯৭’ কে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘অভিজ্ঞতা বিবেচনায় আমরা তাঁকে নিয়েছি, আপনি জানেন টেস্ট ম্যাচে অভিজ্ঞতা বেশ দরকার।’

অভিজ্ঞতার সাথে পারফরম্যান্সটাও গুরুত্বপূর্ণ। সবশেষ জাতীয় লিগেও ৬ ম্যাচে ১৩ উইকেটের বেশি নিতে পারেননি ৩০ বছর বয়সী রুবেল হোসেন। যার ৭ টিই আবার নিয়েছেন পঞ্চম রাউন্ডে রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে এক ইনিংসে। তবে ফরম্যাটে বদলে বিপিএলে অবশ্য ছিলেন ছন্দেই। ১৩ ম্যাচে ২০ উইকেট নিয়েছেন ৭.৩১ ইকোনোমিতে যা যৌথভাবে মুস্তাফিজ, আমির ও ফ্রাইলিঙ্কের সাথে সর্বোচ্চ উইকেট শিকার।

আসন্ন টেস্ট সিরিজের জন্য তার ডাক পাওয়ার পেছনে ভূমিকা আছে বিপিএল পারফরম্যান্সেরও। প্রধান নির্বাচক ক্রিকেট৯৭ কে বলেন, ‘বিপিএলে সে বেশ ভালো করেছে। আসলে গত দেড় মাসে আমাদের লংগার ভার্সনের কোন টুর্নামেন্ট ছিলনা ফলে বিপিএলটাকে বিবেচনা করতে হয়েছে। দলের সাথে ছিল অনুশীলনও ভালো হওয়ার কথা। তাছাড়া অভিজ্ঞতাটা এখানে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

শফিউলের পেসের পর রাজ্জাকের ঘূর্ণিতে নাকাল নর্থ জোন

Read Next

‘তামিম ভাই অনেক বেশি সিরিয়াস ছিলেন, আমি বলবো আউটস্ট্যান্ডিং’

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
8
Share