দেশ ছাড়ার আগে পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে শফিউল-সৌম্য-মিঠুনদের ভাষ্য

মোহাম্মদ মিঠুন শফিউল ইসলাম সৌম্য সরকার
Vinkmag ad

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে আজ (২২ জানুয়ারি) পাকিস্তানের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হচ্ছে (রাত ৮ টার বিশেষ ফ্লাইট) বাংলাদেশ জাতীয় দল। দেশ ছাড়ার আগে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন সৌম্য সরকার, শফিউল ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুনরা।

সিরিজটা পাকিস্তানে বলে কিনা নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রায় সবাই। সিরিজ শুরুর আগ মুহূর্তেও তাই সবাইকে নিরাপত্তা ইস্যুতে কথা বলতে হচ্ছে। বিমানবন্দরে শফিউল, সৌম্য, মিঠুনদের জিজ্ঞাসা করা হয় নিরাপত্তা নিয়ে কোন শঙ্কা কাজ করছে কিনা।

শফিউল বলেন, ‘না, না, না। কোন টেনশন না। যেহেতু বোর্ড সবকিছু চেক করেই পাঠাচ্ছে, তাই কোন টেনশন নেই। ভালো করে দেশে যেনো ফিরতে পারি, ভালো কিছু নিয়ে আসতে পারি এটাই প্রত্যাশা।’

এর আগে ২০১৮ সালে ইমার্জিং কাপ খেলতে পাকিস্তানে গিয়েছিলেন শফিউল ইসলাম। সেই সফরে শফিউলের সঙ্গে ছিলেন টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে থাকা নাজমুল হোসেন শান্ত ও আফিফ হোসেন ধ্রুবও। তখন কোন ইস্যু চোখে পড়েনি শফিউলের। তাই এ দফাতেও চিন্তামুক্ত থাকছেন।

‘আমিও লাস্ট ইমার্জিং কাপে গিয়েছি। নিরাপত্তা নিয়ে কোন ইস্যু ছিলো না। ঐ কারণেই সাহসটা আরো বেশি পেয়েছি। আরো যেহেতু ন্যাশনাল টিমের খেলা বোর্ড আশ্বস্ত বলেই যাচ্ছে। আমার ব্যক্তিগত দিক থেকে কোন আপত্তি নেই, বোর্ড সেফ ভেবেছে বলেই পাঠাচ্ছে।’

চিন্তা করলেই চিন্তা বাড়বে। তাই এসব নিয়ে চিন্তা করতেই নারাজ সৌম্য সরকার। বিপিএলে অলরাউন্ড পারফর্ম করা সৌম্য জাতীয় দলে দুই বিভাগেই (ব্যাটিং ও বোলিং) শতভাগ দিতে চান।

‘না, ঐরকম ভাবে না (হাসি)। চিন্তা করলে তো করবোই। যতটুকু পারি টেনশন কম করার চেষ্টা করবো। অবশ্যই, চেষ্টা তো করবো দুই সাইডই (ব্যাটিং ও বোলিং) ১০০ শতাংশ দেবার জন্য। যেভাবেই সুযোগ পায় যেখানেই সুযোগ আসে চেষ্টা করবো ১০০ ভাগ দেবার।’

নিরাপত্তা ইস্যুতে এক কথায় উত্তর দেন মোহাম্মদ মিঠুন, ‘না, এখন আর কোন টেনশন নেই।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশের ম্যাচ আয়োজন করবে না ভারত

Read Next

সৌম্যদের মতো সাকিবও করছেন ভালো কিছুর প্রত্যাশা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
4
Share