শোয়েব আখতারকে ছাপিয়ে দ্রুততম ‘নতুন মালিঙ্গা’

Mathesha patharina
Vinkmag ad

শ্রীলঙ্কার তরুণ পেসার মাথিশা পাথিরানা- লাসিথ মালিঙ্গার মতো তাঁর বোলিং অ্যাটাক। নতুন করে আবার খবরের শিরোনামে উঠে এলেন শ্রীলঙ্কার পেসার মাথিশা পাথিরানা। অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে যিনি ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার বেগে বল করেছেন।

যুব বিশ্বকাপের ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে দারুণ কিছু করতে পারেনি পাথিরানা। তার ৮ ওভারে ৪৯ রান তোলে ভারতীয় ব্যাটসম্যানেরা। তবে তার একটি ডেলিভারির গতি স্পিডগানে ধরা পড়ে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার।

ভারতীয় ইনিংসের চতুর্থ ওভারের ঘটনা। পাথিরানার ডেলিভারি পিচে পড়ে লেগস্টাম্পের অনেকটা বাইরে দিয়ে গিয়ে জমা পড়ে উইকেটকিপারের গ্লাভসে। ওয়াইড দেন আম্পায়ার। তখনই স্পিডগানে বলের গতি দেখায় ১৭৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বা ঘণ্টায় ১০৮ মাইল।

ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করার ভিডিওঃ

তবে এবার পাথিরানার ডেলিভারিই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দ্রুততম গতির বল হিসেবে পরিচিত হচ্ছে।

২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ডেলিভারিতে শোয়েব আখতারের বলের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার। এখনও পর্যন্ত এটিই ছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ গতির ডেলিভারি। পরবর্তীতে ১৬০ কিলোমিটার/ঘণ্টা গতি স্পর্শ করেছিল ব্রেট লি, শট টেটের বল।

অনেকেরই প্রশ্ন, অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ খেলা এই বোলার কি তবে গতিতে ছাপিয়ে গেলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন বোলার শোয়েব আখতারকেও? অনেকে আবার প্রশ্ন তুলেছেন, স্পিড গানে বলের গতিবেগ ঠিক দেখাচ্ছে তো?

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আইসিসির ইভেন্ট আয়োজন হবে নিলামে

Read Next

মারনাস লাবুশেইন : লেজুড় থেকে আস্থা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
34
Share