পাকিস্তানে খেলার অভিজ্ঞতা আছে শান্তদের

নাজমুল হোসেন শান্ত আফিফ হোসেন ধ্রুব
Vinkmag ad

২০০৮ সালের পর এই প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় দল পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে। নানা নাটকীয়তার পর তিন মাসে তিন দফায় পাকিস্তান সফর নিশ্চিত হল টাইগারদের। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের উপর ঘটা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পর কোন টেস্ট খেলুড়ে দলই লম্বা সময় ধরে সফর করেনি পাকিস্তান। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় অবশ্য বিচ্ছিন্নভাবে সফর করেছে কয়েকটি দল, গত ডিসেম্বরে টেস্টও খেলেছে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ পুরুষ জাতীয় দল পাকিস্তান সফর না করলেও কয়েক দফায় নারী জাতীয় দল, ইমার্জিং দল ও বয়সভিত্তিক দল সফর করেছে পাকিস্তান। ২০১৮ সালে ইমার্জিং এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তান যাওয়া দলটির তিনজন আছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলেও। তারা হলেন নাজমুল হোসেন শান্ত, শফিউল ইসলাম ও আফিফ হোসেন ধ্রুব।

ইমার্জিং এশিয়া কাপ খেলতে যাওয়া নাজমুল হোসেন শান্ত পাকিস্তানের দেওয়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রকাশ করেন সন্তোষ। তিনদিনের অনুশীলন ক্যাম্পের আজ দ্বিতীয় দিন গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান জানান, ‘ওখানে পরিবেশ সবসময় অনেক ভালো ছিল। গতবছর (মূলত ২০১৮) আমরা যখন গিয়েছিলাম খুব বেশি আমাদের ওরকম সমস্যা হয়নি।’

পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত হওয়া সিরিজে ক্রিকেটাররা অবশ্য চিন্তিত নন নিরাপত্তা নিয়ে। পূর্ণ মনযোগ দিচ্ছেন মাঠের ক্রিকেটে, ‘এগুলো (নিরাপত্তা) নিয়ে আসলে চিন্তা করছি না। পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে খেলাটাকেই ফোকাস করছি। যেহেতু এগুলো আমাদের হাতে নেই, এগুলো নিয়ে চিন্তা করছি না। একবারও ভাবিনি। যেহেতু গতবারও আমি গিয়েছি সেখানে। তো এগুলো নিয়ে একদমই চিন্তা করছি না। ম্যাচ ফোকাস করছি।’

টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বর্তমানে এক নম্বর অবস্থান পাকিস্তানের। সিরিজটি চ্যালেঞ্জিং হলেও দল হিসেবে খেললে ভালো ফল আসতে পারে মনে করেন শান্ত, ‘অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং। তবে আমরা যদি দল হিসেবে সেখানে খেলতে পারি, তাহলে ওখানেও ভালো ফলাফল করা সম্ভব। যদিও ওদের দল নিয়ে আমরা খুব একটা চিন্তা করছি না। আমাদের নিজেদের যে পরিকল্পনা বা শক্তির জায়গা আছে, সেটা যদি আমরা ঠিক রাখতে পারি, তাহলে ওখানেও সফল হওয়া সম্ভব বলে মনে করি।’

ম্যাচ বাই ম্যাচ পরিকল্পনার কথা জানালেন শান্ত

‘টি-টোয়েন্টিতে যেকোনো দল যেকোনো দিন জিততে পারে। সিরিজ নিয়ে আমরা ওভাবে চিন্তা করছি না সিরিজ নিয়ে। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলব। প্রথম লক্ষ্য থাকবে প্রথম ম্যাচটি নিয়ে। টি-টোয়েন্টিতে যেদিন যে দল ভালো খেলে সে দলের জেতা সম্ভব। আমরা পার্টিকুলার ওই দিনকে নিয়ে ফোকাস করছি।’

নিরাপত্তা শঙ্কায় খুব অল্প সময়ের সিরিজ শেষ করে আসতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ২৪ তারিখ টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু কিন্তু দল পাকিস্তানে পৌঁছাবে ২৩ তারিখ নাগাদ, নেই কোন প্রস্তুতি ম্যাচ। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান মনে করেন প্রায় সব ক্রিকেটার বিপিএল খেলেছে বলে প্রস্তুতি নিয়ে খুব একটা সমস্যা হবেনা।

‘আমার কাছে খুব বেশি এটা মনে হচ্ছে না। কারণ সবাই খেলার মধ্যেই আছে। সবাই বিপিএলে খেলেছে এবং সবাই পারফর্মও করেছে। প্রস্তুতির কথা যদি বলি তাহলে বলব সবাই খুব ছন্দে আছে। প্রস্তুতি ম্যাচ হচ্ছে না, এটা নিয়ে খুব একটা সমস্যা হবে না বলে মনে করি।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

মানসিকতায় পরিবর্তন এসেছে শান্ত’র, ভাবছেন না পজিশন নিয়ে

Read Next

৪, ৪, ৪, ৬, ৬, ৪(বাই): লজ্জার রেকর্ডে নাম জড়ালেন রুট!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
10
Share