টেস্টের আগে প্রস্তুতির জন্য ওয়ানডে!

বাংলাদেশ টেস্ট নাজমুল হাসান পাপন
Vinkmag ad

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন দুবাই যাওয়ার আগের দিন বলে যান আইসিসি সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎই মূল উদ্দেশ্য। পাকিস্তান সফর নিয়ে আলোচনা না হলেও টেস্ট খেলতে পাকিস্তান না গেলে কি ক্ষতির সম্মুখীন হবেন সে সম্পর্ক জেনে আসবেন। অথচ ঘন্টা কয়েকের ব্যবধানে খবর আসে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সভাপতিও থাকছে বৈঠকে। প্রশ্ন জাগে তবে কি বিসিবি সভাপতি আগে থেকেই জানতেন বৈঠকের ব্যাপারে?

বৈঠক শেষে গতকাল (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর। একবার পাকিস্তান সফর করতে অনাগ্রহ দেখানো বাংলাদেশ যাচ্ছে তিন মাসে তিন দফায় পাকিস্তান সফরে। টেস্ট, টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি যোগ হয়েছে একটি ওয়ানডেও। দেশে ফিরে বিসিবি সভাপতি জানান বৈঠকের ব্যাপারে জানতেন না কিছুই।

এ প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আইসিসি প্রেসিডেন্ট শশাঙ্ক মনোহরের সঙ্গে আমার আগেই কথা হয়েছিল এই সময়টায় উনি থাকবেন, আমি সময় পেলে যেন দেখা করি। গিয়ে দেখলাম পাকিস্তানও আছে ঐখানটায়। আমাদের আগেই তারা গিয়েছে। উনাদের সঙ্গে কথাও হয়েছে। আমার সঙ্গে যখন প্রথম কথা হলো বললো যে আড়াইটার সময় আমাদের সঙ্গে বসবে। একটা টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলে আসা যায় কিনা।’

বৈঠকে আগের সূচীর সাথে যুক্ত হওয়া ওয়ানডে নিয়ে ব্যখায় দেন বিসিবি বস। মূলত পাকিস্তানের ক্ষতি পুষাতে ও নিজেদের প্রস্তুতির জন্যই এমন প্রস্তাবে রাজি হওয়া, ‘ আমরা বলেছি শুধু টি-টোয়েন্টি খেলে চলে আসতে চাই। তারপর একটা সময় যাবো। পাকিস্তানের বেশ লস হচ্ছে। পাকিস্তানে গিয়ে পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট খেলার আগে আমাদের একটা প্র্যাক্টিস ম্যাচ দরকার। ওরা বলেছিল টি-টোয়েন্টি করা যায় কিনা। টি-টোয়েন্টি হলে তাদের আর্নিংটা কিছুটা পোষাবে।’

‘তিনবারে একটা টুর্নেমেন্ট হোস্ট করা তাদের জন্য অনেক খরচ বেড়ে গেছে। এতো সময়ও নেই তারা নতুন করে মার্কেট করতে পারবে। আমাদের কাছে মনে হয়েছে টি-টোয়েন্টির চেয়ে একটা ওয়ানডে ম্যাচ হলে অনুশীলনটা একটু ভালো হবে। বেশি ওভার খেলতে পারবে।’

এদিকে দুবাই যাওয়ার আগেরদিন বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন সরকারের নির্দেশ মধ্যপ্রাচ্যের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় সফর যত সংক্ষিপ্ত করা যায়। নতুন সূচীও সরকারের নির্দেশনামতই হচ্ছে মনে করছেন বিসিবি বস, ‘সরকার থেকে বলা আছে আগের থেকে আমরা যেটা বলে আসছি সেটাই লেখা আছে। তারা বলেছে শর্ট স্টে। অবস্থা বিবেচনা করে পরবর্তীতে টেস্টগুলো খেলবে। আমরা এখন পর্যন্ত সেই ধারাতেই আছি।’

পাকিস্তান সফর নিশ্চিতের পর সমালোচনা হওয়াকেও অদ্ভুত বলছেন নাজমুল হাসান পাপন, ‘আমি জানি না এটা কেন বলছে। ওরা কখনই বলেনি আমরা টি-টোয়েন্টি খেলে আসবো। ওরা প্রথমে বলেছে ফুল সিরিজ খেলতে হবে। পরে বলেছে আগে টেস্ট খেলতে হবে। এখন এটা তারা (সমালোচকরা) কেন বলছে এটার কোনো কারণই খুঁজে পাচ্ছি না। আমার কাছে এটা অদ্ভুত লাগছে। আমরা যেটা বলেছি আমার মনে হয় এটাই হয়েছে। আমি যেদিন প্রথম মিডিয়াতে বলেছি, এটাই বলেছি আমরা প্রথমে যাবো টি-টোয়েন্টি খেলে আসবো পরে আমরা টেস্ট খেলবো।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

জোহানেসবার্গে ব্যাটিং বিপর্যয়ে টাইগার যুবারা

Read Next

স্বল্প পুঁজিতেও লড়লো টাইগার যুবারা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
13
Share