১৫ বছর আগের স্মৃতি মনে করে রাজিনের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

রাজিন সালেহ
Vinkmag ad

১৫ বছর আগে ১০ জানুয়ারি চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে ইতিহাস গড়ে হাবিবুল বাশারের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল। জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে পায় প্রথম টেস্ট জয়ের স্বাদ, বাংলাদেশের একাদশে থাকা রাজিন সালেহ ব্যাট হাতে রাখেন ভালো ভূমিকা। খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানা রাজিন এখন পেশাদার কোচ। ঐতিহাসিক ওই জয়ের স্মৃতি মনে করতে গিয়ে রাজশাহি রয়্যালসের সহকারী কোচ জানালেন টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের উন্নতি হতে পারতো আরও।

বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ের ম্যাচে রাজিনের ব্যাট থেকে দুই ইনিংস মিলিয়ে আসে ১১৫ রান, প্রথম ইনিংসে ৮৯ রানের অনবদ্য ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসে করেন ২৬ রান। দেশের টেস্ট ইতিহাসের প্রথম জয়ের পর কেটে গেছে ১৫ বছর তবে উন্নতির ছাপটা যেন মিলছেনা সেভাবে। নিজে সবশেষ জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেছেন ২০০৮ সালে। ঘরোয়া ক্রিকেটকেও বিদায় জানিয়ে এখন পুরোদস্তুর কোচিং পেশায় মনোযোগ।

১৫ বছর আগের সেই ঐতিহাসিক দিনের স্মৃতি রোমন্থন করতে গিয়ে ৩৬ বছর বয়সী সাবেক এই ক্রিকেটার বলেন, ‘আমরা যখন বন্ধু-বান্ধব এক সাথে হই, আবার যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে যখন টেস্ট খেলে বাংলাদেশ তখন অনেক মনে পড়ে। তখন ভাবি, এদের সঙ্গে আমরা টেস্ট জিতেছিলাম। এটা ঐতিহাসিক আমাদের কাছে, কারণ ওটা ছিল প্রথম টেস্ট জয়। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে কিছু দিতে পেরেছি, যে কারণে নিজেকে অনেক গর্বিত মনে করি।’

প্রথম টেস্ট জয়ের পর বাংলাদেশ খেলেছে আরও ৮২ টেস্ট, জয় সাকূল্যে ১২ টি। এতদিন পরও দলের উন্নতির জায়গাটা গর্ব করার মত না হওয়াকে কীভাবে দেখছেন জানতে চাইলে রাজিন বলেন, ‘আমি চিন্তা করি অন্যভাবে। দেখেন ভারত কত বছর টেস্ট খেলেছে? অস্ট্রেলিয়ারা কত বছর টেস্ট খেলেছ? আমরা মাত্র ১৫ বছর (আসলে প্রায় ২০ বছর) টেস্ট খেলেছি। আর এখন বাংলাদেশের টেস্ট র‍্যাঙ্কিং দেখেন। আমরা আগে কোথায় ছিলাম আর এখন কোথায়? বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। আমি আশা করি আগামীতে বাংলাদেশ টেস্টে অনেক ভালো করবে এবং আরও এগোবে। আমি মনে করি এখনই অনেক এগিয়েছে।’

প্রথমে অনুজদের পক্ষ নিয়ে কথা বললেও পরের বক্তব্যে অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন দেশের টেস্ট ক্রিকেটকে সাকিব, তামিম, মুশফিকরা নিয়ে যেতে পারতেন আরও উঁচুতে, ‘ভারতের বিপক্ষে যে টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ, সেখানে একটু বেশি খারাপ খেলে ফেলেছে। আমি মনে করি টেস্ট আরও এগোনো উচিত বাংলাদেশের। খেলা আরও উন্নতি করা উচিত এবং আমি মনে করি সামনে খেলোয়াড়রা সেটা করতে পারবেন এবং ম্যানেজমেন্টও তা নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিসিবির সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় গিবসন

Read Next

দেশের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট উৎসবের এবারের আসর বঙ্গবন্ধুর নামে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
6
Share