বিপিএল ফিক্সচারের সমালোচনায় সালাউদ্দিন

মোহাম্মদ সালাউদ্দিন
Vinkmag ad

চলতি বিপিএলের ব্যস্ত সূচী নিয়ে ঢাকা প্লাটুনের অসন্তোষটা আগেই টের পাওয়া গিয়েছিল তবে শেষদিকে এসে প্লে-অফ নিশ্চিতের আগে টানা খেলা নিয়ে এবার চূড়ান্ত হতাশা ঝরে পড়েছে কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের কণ্ঠে। এদিকে ৯ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়েও স্বস্তিতে না থাকা ঢাকার মূল লক্ষ্য এখন অন্তত দুই পয়েন্ট নিশ্চিত করা, জানিয়েছেন সালাউদ্দিন।

টুর্নামেন্টের প্রথম চারদিনে টানা তিন দিন ম্যাচ খেলতে হয়ে প্লাটুনকে। এমন বিরতিহীন ম্যাচ যেকোন দলের জন্যই ক্লান্তি তৈরি করাটা স্বাভাবিক। তবে নিজেদের হাতে কিছু করার ছিলনা বলে শুরুর দিকে ব্যস্ত সূচী নিয়ে খুব একটা অভিযোগ ছিলনা দলটির। ৯ ম্যাচ খেলে ৬ জয় নিয়েও ঢাকা যখন প্লে-অফ নিশ্চিত করতে পারেনি তখনই পরবর্তী ম্যাচের সূচী নিয়ে বাড়তি মাথা ব্যথা ঢাকার।

আগামী দুইদিন টানা ম্যাচ খেলতে হবে তামিম-মাশরাফিদের, একই প্রতিপক্ষ রংপুর রেঞ্জার্স। শেষ ম্যাচটি অবশ্য একদিন বিরতি দিয়ে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে ১১ জানুয়ারি। আজ (৭ জানুয়ারি) মিরপুরে অনুশীলন শেষে প্লাটুন কোচ সালাউদ্দিন টুর্নামেন্টের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে বলতে গিয়ে জানান, ‘টুর্নামেন্টটি কি অবস্থায় আছে আসলে জানি না। যদিও আমার মনে হয় রংপুরের রান রেটটা খুব বেশি ভালো না। এরপরও বলবো যে টুর্নামেন্টে এখনও অনেক কিছু হতে পারে। এখনও অনেকগুলো খেলা বাকি আছে, গুরুত্বপূর্ণ খেলা। পরেরটা পরে চিন্তা করছি।’

‘তবে আমার মনে হয় যে পরবর্তী ম্যাচটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আর টুর্নামেন্টে এমন হয় যে আপনি যদি টি-টোয়েন্টিতে মোমেন্টাম হারিয়ে ফেলবেন তখন কাম ব্যাক করাটা অনেক কঠিন হয়ে যায়। আমি মনে করি প্রতিটি ম্যাচই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সামনের ম্যাচটি আমাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসটি যেন থাকে। আমরা হয়তো হারতেও পারি, জিততেও পারি। তবে আমার মনে হয় খেলোয়াড়দের যেন আত্মবিশ্বাস না কমে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।’

সূচী নিয়ে নিজের হতাশা প্রকাশ করে সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমার মনে হয় ফিক্সচারটি আরেকটু ভালো হতে পারতো। প্রথম তিন দিনে আমরা তিনটি ম্যাচ খেলেছি। এটা আসলে বেশ কঠিন হয়ে যায় খেলোয়াড়দের জন্য। টি-টোয়েন্টিতে অনেক বেশি চাপের ম্যাচ এগুলো। এখানে যদি ক্রিকেটাররা বিশ্রাম পেতো তাহলে আমার মনে হয় আরো ভালো হতো। শেষের দিকে এসেও কিন্তু আমাদের চার দিনে তিনটি ম্যাচ খেলতে হবে। তাই ফিক্সচারটি আরেকটু ভালো হলে সবার সুবিধা হতো।’

পয়েন্ট টেবিলের যে জায়গায় এখন ঢাকা প্লাটুনের অবস্থান সেখান থেকে পরবর্তী ম্যাচগুলোর দুটোতে জিতলেও দুই নম্বরে থাকা সম্ভব। এক-দুই নম্বরে থাকাটা বাড়তি সুবিধা দিবে জানালেও সালুদ্দিনের চখ এখন কেবলই প্লে-অফ নিশ্চিতে অন্তত দুই পয়েন্টে, ‘আমি আসলে এখনও সেরা দুই নিয়ে চিন্তা করছি না। এখন আমার সেরা চারে যাওয়া বেশি গুরুত্বপূর্ণ। পরের ম্যাচটিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের আরো দুই পয়েন্ট লাগবে, যেটা দিয়ে আমরা হয়তো সেরা চার নিশ্চিত করতে পারবো। এরপরে হয়তো দেখা যাবে। তখন চিন্তা করবো যে সেরা দুইয়ে যাওয়া যায় কিনা। তবে পরের ম্যাচটি আমাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ।’

‘সেরা চারে যেতে পারলে একটা সুবিধা তো অবশ্যই আছে। তখন আপনি চিন্তা করবেন যে আমার হাতে দুটি ম্যাচ আছে। সেটা আসলে অনেক পরের ব্যাপার। এখনও অনেক ঘন্টা বাকি আছে। আমার মনে হয় আগে সেরা চার নিশ্চিত করা আমাদের জন্য বেশি জরুরী। এরপরে আমরা সিদ্ধান্ত নিব কোথায় যেতে চাচ্ছি।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

ভারত সফরে অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রধান কোচ

Read Next

মালান-সৌম্য’র ব্যাটে চড়ে কুমিল্লার জয়

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
7
Share