গিবসনের মূল্যায়নঃ সাব্বির তার ভাবনায় পরিষ্কার নন

সাব্বির রহমান
Vinkmag ad

চলতি বিপিএল যেন সাব্বির রহমানের জন্য হতাশার নাম, পূরণ করতে পারেননি দলের প্রতাশার ছিটেফোঁটাও। ৯ ম্যাচে রান করেছেন মাত্র ১৪২, সর্বোচ্চ ৪৯ রানের ইনিংসটি এসেছে চট্টগ্রামে রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে। বাকি ৮ ম্যাচে পেরোতে পারেননি ২৫ রানের গন্ডি। টি-টোয়েন্টির মত ফরম্যাটে স্ট্রাইক রেট ঠিক ১০০, যা সত্যিকার অর্থেই বেমানান। প্রতিভাবান হওয়া সত্বেও কেন বার বার আঁটকে পড়ছেন ব্যর্থতার বলয়ে? কিছুটা কারণ ধরতে পেরেছেন দলটির প্রধান কোচ ওটিস গিবসন।

সাবেক এই ক্যারিবিয়ান পেসারের মতে সাব্বির অনুশীলনেও রাখেননা ঘাটতি, আছে বেশ সম্ভাবনাও তবে ম্যাচে নিজের ভাবনায় পরিষ্কার হতে পারেন না বলে আসছেনা সাফল্য। আজ (৬ জানুয়ারি) মিরপুরে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলেন অভিজ্ঞ এই কোচ। কদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে গিবসন অবশ্য দলে সাব্বিরের জায়াগা পাকা করতে না পারা নিয়ে বেশে হতাশা প্রকাশ করেছেন।

সাব্বিরের টানা ব্যর্থতার প্রসঙ্গ আসতেই ৫০ বছর বয়সী এই কোচ বলেন, ‘সে (সাব্বির) অনুশীলনে বেশ ঘাম ঝরাচ্ছে। কিন্তু যখনই সে খেলার মাঝে আসছে আমার মনে হয় তার ভাবনার বিষয়গুলো পরিষ্কার না হওয়ার ঘাটতি আছে। কোন শট খেলার আগে সে নিজেকে পর্যাপ্ত সময় দিচ্ছেনা যে শট সে বেশ ভালোভাবে পারে। এটা আমাদের জন্য হতাশার তবে তার জন্য আরও বেশি হতাশার কারন সে একজন জাতীয় দলের ক্রিকেটার।’

টুর্নামেন্টের প্লে-অফ খেলার দৌড়ে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স বেশ ভালোভাবেই টিকে আছে। বাকি তিন ম্যাচে অন্তত দুটি জয় পেলেও থাকছে সুযোগ, তিনটিতে জিতলেতো সম্ভাবনা বেশ ভালোই। এমন সমীকরণে অবশ্য আশার আলো দেখছেন দলটির কোচ, ‘আমি মনে করি আমাদের জন্য ভালো সুযোগ আছে। আমাদের হাতে তিনটি ম্যাচ বাকি আছে, সিলেট টুর্নামেন্টে সুবিধাজনক অবস্থায় নেই। সুতরাং আগামীকাল তাদের বিপক্ষে আরও একটি জয়ের সুযোগ থাকছে।’

‘এরপরের দুটি ম্যাচ খুলনার বিপক্ষে। যদি আমরা দুটোতেই তাদের হারাতে পারি, তাদের টপকে আমরাই সেমিতে কোয়ালিফাই করবো। শুরু থেকে যেটার জন্য আমরা লড়াই করছি, স্বপ্ন দেখছি।’

কুমিল্লার ক্ষেত্রে প্লে-অফ খেলার সমীকরণটা নিজেদের জয় এবং খুলনার পরাজয়ের উপরই বেশি নির্ভর করছে। ফলে শেষ দুটি ম্যাচে খুলনাকে মোকাবেলা করাকে সুযোগ হিসেবেই দেখছেন গিবসন, ‘এটা আমাদের জন্য ভালো দিকই বলবো। আমরা যদি তাদের দুটোতেই হারাই আমরা সেমিতে চলে যাবো। এটা আমাদের হাতেই আছে। প্রথম ম্যাচ হেরে গেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে আমাদের সুযোগ থাকছে। আমাদের অন্য কারও দিকে তাকিয়ে থাকতে হচ্ছেনা। পুরোটাই আমাদের দু’দলের (খুলনা টাইগার্স ও কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স।) ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

চাইলে গতি বাড়াতে পারবেন মুগ্ধ

Read Next

বিপিএলে আইপিএলের প্রতিফলন দেখছেন গিবসন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
9
Share