সিলেটকে হারিয়ে প্লে-অফ স্বপ্ন টিকিয়ে রাখলো রংপুর

শেন ওয়াটসন রংপুর রেঞ্জার্স মোহাম্মদ মিঠুন সিলেট থান্ডার
Vinkmag ad

আগের ম্যাচে হেরে প্লে-অফের দৌড় থেকে ছিটকে যায় সিলেট থান্ডার। ঘরের মাঠে দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুরকে হারাতে পারলে ছিটকে দিতে পারতো তাদেরও। কিন্তু আবারও হারের বৃত্তে আঁটকে উল্টো রংপুরের প্লে-অফ স্বপ্নকে কাগজে কলমে জিইয়ে রাখলো সিলেট থান্ডার। শেন ওয়াটসনের ঝড়ো ফিফটিতে রংপুরের দেওয়া ২০০ রানের লক্ষ্য তাড়ায় সিলেট থেমেছে ১৬১ রানে।

লক্ষ্য তাড়ায় বেশ দ্রুত রান তোলে সিলেট থান্ডারও। তবে নিয়মিত উইকেটি হারিয়ে জয়ের পথটা আর সহজ করতে পারেনি স্বাগতিক দল। জনসন চার্লসের পরিবর্তে আব্দুল মজিদকে দিয়ে ওপেন করিয়েও লাভের লাভ হয়নি, মজিদ ফিরেছেন ৭ রান করে। আরেক দফায় ব্যর্থ হয়েছেন আন্দ্রে ফ্লেচারও (১৯)। তবে মোহাম্মদ মিঠুন ও শেরফান রাদারফোর্ডে চড়ে ১১.১ বলেই ১০০ রান তুলে ফেলে সিলেট। ২২ বলে ৩০ রান করে ফেরেন মিঠুন।

মিঠুন ফিরে গেলে দলকে টেনে নেওয়ার পুরো দায়িত্ব নিয়ে নেন রাদারফোর্ড। বাকিদের আসা যাওয়ার মিছিলে ৩১ বলে তুলে নেন ফিফটি। আগের ম্যাচে দুর্দান্ত ইনিংস খেলা সোহাগ গাজী ফিরেছেন মাত্র ১ রান করে। ৩৭ বলে ৬০ রান করে রান আউটে কাটা পড়েন রাদারফোর্ডও। শেষদিকে নাইম হাসানের ব্যাট থেকে আসে ১২ রান। সিলেট অলআউট হওয়ার আগে থামে ১৬১ রানে।

রংপুরের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান,তাসকিন আহমেদ ও লুইস গ্রেগরি। একটি করে শিকার মোহাম্মদ নবি ও ক্যামেরুন দেলপোর্তের। আজ দুই উইকেট নিয়ে মেহেদী হাসান রানাকে (১৪) পেছনে ফেলে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক এখন মুস্তাফিজ (১৬)।

বেশ আশা জাগিয়ে টুর্নামেন্টের মাঝপথে উরিয়ে আনা হয় অজি তারকা ব্যাটসম্যান শেন ওয়াটসনকে। ভাগ্য বদলের লক্ষ্যে দলের অধিনায়কত্বের ভারও তুলে দেওয়া হয় তার কাঁধে। চার ম্যাচে ওপেন করতে নেমে দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি একবারও, দল জিতেছে অবশ্য দুটিতে। আগেরদিন কুমিল্লার বিপক্ষে সুপার ওভারে গড়ানো ম্যাচে হেরে কাগজে কলমেও সিলেটের প্লে-অফ সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়।

আজ (৩ জানুয়ারি) সিলেটের বিপক্ষে হারলে শেষ হয়ে যাবে রংপুরের প্লে-অফ খেলার সমীকরণও। এমন ম্যাচেই ব্যাট হাতে জ্বল্ব উঠলেন ওয়াটসন। ধারাবাহিক পারফর্ম করা নাইম শেখকে নিয়ে উদ্বোধনী জুটিতে তোলেন ৭৭ রান। ৩৩ বলে ৪২ রান করে নাইম ফিরলে ভাঙে জুটি। নাইম ফিরলেও ফিফটি তুলে নেন ওয়াটসন। ৩১ বলে ফিফটিতে পৌঁছানো ওয়াটসন এবাদতের দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে বোল্ড হওয়ার আগে খেলেন ৩৬ বলে ৬ চার ৫ ছক্কায় ৬৮ রানের ইনিংস।

 

View this post on Instagram

 

Finally a knock to enjoy from Watson. #BPLT20 #BBPLT20 #BangabandhuBPL #BBPL #bplseason7

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

তার গড়ে দেওয়া ভিত কাজে লাগিয়ে রংপুরে স্কোরবোর্ডে তোলে ৫ উইকেটে ১৯৯ রান। ক্যামেরুন দেলপোর্তের ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। ২৩ রান করেন মোহাম্মদ নবি, এছাড়া লুইস গ্রেগরি ব্যাট থেকে ১৫ ও অপরাজিত থাকা ফজলে রাব্বির ব্যাট থেকে আসে ১৬ রান।

সিলেটের পক্ষে সর্বোচ্চ ২ উইকেট শিকার করেন এবাদত হোসেন, একটি করে নেন ক্রিশমার সান্টোকি, শেরফানে রাদারফোর্ড ও মনির হোসেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

রংপুর রেঞ্জার্স ১৯৯/৫ (২০), নাইম ৪২, ওয়াটসন ৬৮, দেলপোর্ত ২৫, গ্রেগরি ১৫, নবি ২৩, রাব্বি ১৬*, আল আমিন ০*; সান্টোকি ৪-০-৫৬-১, এবাদত ৪-০-৩০-২, রাদারফোর্ড ৪-০-২৮-১, মনির ৪-০-২৫-১।

সিলেট থান্ডার ১৬১/১০ (১৯.১), ফ্লেচার ১৯, মজিদ ৭, মিঠুন ৩০, রাদারফোর্ড ৬০, শফিকউল্লাহ ১০, গাজী ১, রনি ০, সান্টোকি ৬, নাইম ১২, এবাদত ০*, মনির (অ্যাবসেন্ট হার্ট); মুস্তাফিজ ৩.১-০-১৮-২, তাসকিন ৪-০-৩৯-২, গ্রেগরি ৪-০-২৭-২, নবি ৪-০-২৭-১, দেলপোর্ত ২-০-২৫-১।

ফলাফলঃ রংপুর রেঞ্জার্স ৩৮ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরাঃ শেন ওয়াটসন (রংপুর রেঞ্জার্স)।

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

মুশফিকে মুগ্ধ ফস্টারের কণ্ঠে আক্ষেপ

Read Next

দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম নেওয়া নয়া অজি রান মেশিন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
20
Share