‘ইসলামের মূল বিষয়গুলো খুব সহজ’

হাশিম আমলা
Vinkmag ad

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরে গেছেন চলতি বছর বিশ্বকাপের পরপরই। তবে বিশ্বজুড়ে খেলে বেড়াচ্ছেন ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগ। প্রথমবারের মত খুলনা টাইগার্সের হয়ে খেলতে এসেছেন বিপিএল। দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান পরিচয়ের বাইরে আমলা একজন ধর্মপ্রাণ মানুষ। ইসলাম ধর্মের নিয়ম-নীতি মেনে চালিয়ে যাচ্ছেন খেলা। সিলেটে দলের হয়ে প্রথম অনুশীলন শেষে আমলা বলছেন ইসলামের নিয়ম-নীতি যতটা কঠিন ভাবা হয় ততটা আসলে নয়।

দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলে খেলার সময়ই একটি জিনিস বেশ নজর কাড়তো আমলার। জার্সিতে থাকা ইসলামে নিষিদ্ধ পন্যের লোগো ছাড়াই মাঠে নামতে দেখা যেত। খেলার ব্যস্ততাকে পাশ কাটিয়ে ধর্ম মেনে চলা আমলা উদাহরণ হিসেবে উঠে এসেছেন অনেকবারই। জয় শেষে প্রোটিয়া সতীর্থরা যখন শ্যাম্পেইনের সঙ্গে উদযাপনে ব্যস্ত, তখন দূরেই থাকতেন আমলা।

দূর থেকে ইসলামকে কিছুটা জটিল মনে হয়, আর তার সাথে ব্যস্ত ক্রিকেট সূচী। কীভাবে মানিয়ে নেন জানাতে গিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটসম্যান বলেন, ‘ইসলামের মূল বিষয়গুলো কিন্তু খুব সহজ এবং সোজা । আপনারা জানেন, ব্যাখা করা লাগবে না । আসলে ব্যাখ্যা করা কঠিন, ক্রিকেটের সাথে মেলানো বা এটা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন করেন । আসলে আন্তরিকতা বা মনোযোগ রাখাটা গুরত্বপূর্ণ যেটা আপনাকে মাঠের খেলাতে সাহায্য করবে।’

‘এটি রুদ্ধ নয়, তবে সবকিছুই সংযুক্ত। অনেকে বলে ইসলাম কেমন, ক্রিকেটে আপনার ধর্ম কিভাবে সাহায্য করে। আমার কাছে প্রশ্নটি অদ্ভূত লাগে, কারণ সবাই নিজের জীবন সর্বোচ্চ পছন্দ করে। বাকি সবকিছু নিজের মতোই চলে। ক্রিকেটে সাহায্য করা বা না করার ব্যাপার এটি নয়। ব্যাপারটি হলো, নিজের বিশ্বাসের জায়গায় আমরা কতটা নিবেদন দিতে পারছি। নিজের ক্যারিয়ার বা জীবনে সেরাটা করতে পারাই আসল। ধর্ম ক্রিকেটে সহায়তা করে বা করে না, এরকম কিছু আমার ভাবনায়ও আসে না। ক্রিকেটে সাহায্য করতে পারে বলেই ইসলামের নানা কিছু করতে হবে, এরকম ভাবি না। সেটি বরং কপটতা হবে। আমি নিজের বিশ্বাসের চর্চা করার চেষ্টা করি সর্বোচ্চ, বাকি সবকিছু নিজের মতোই চলে।’

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলেছেন ১২৪ টেস্ট, ১৮১ ওয়ানডে ও ৪৪ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি। ফর্মহীনতায় ভুগেছেন খুব কম সময়ই, অবসরের পরও যেখানেই খেলছেন ব্যাট কথা বলছে তার হয়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট ক্রিকেট আরও কিছুদিন খেলা যেত বলে কি এখন মনে হয় এমন প্রশ্নে ৩৬ বছর বয়সী আমলার জবাব, ‘না আমি মিস করিনা । আমি অনেক খেলেছি, আফসোস নেই । আমি অনেক ভালো আছি, সুখে আছি। আমি কৃতজ্ঞ।’

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে বাংলাদেশে এসেছেন অনেকবার। নিশ্চয়ই মজার কোন স্মৃতি আছে? আমলা ফিরিয়ে আনলেন গ্রায়েম স্মিথের সাথে ওপেন করার মুহূর্ত, ‘হ্যা আমাদের অনেক ভালো মুহূর্ত আছে। টেস্ট ম্যাচের কথা মনে আছে, স্মিথের সাথে ওপেন করার সেই স্মৃতি। সবকিছুই মনে আছে আমার।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

বিগ ব্যাশ মাতাচ্ছেন গতি তারকা হারিস রউফ

Read Next

মেহেদী হাসান রানাকে ধরে ফেললেন মুস্তাফিজ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
20
Share