বক্সিং ডে টেস্ট জিতে নিলো নতুন মোড়কের দক্ষিণ আফ্রিকা

দক্ষিণ আফ্রিকা ইংল্যান্ড কাগিসো রাবাদা স্যাম কারেন
Vinkmag ad

টালমাটাল ছিল ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা। দলীয় ব্যর্থতার সাথে ছিল প্রশাসনিক দুরাবস্থা। প্রশাসনিক পদের বদলের সাথে এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচিং স্টাফেও বদল। ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার স্থিতি অবস্থা নিশ্চিত হবার পরে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই শক্তিশালী ইংল্যান্ডকে হারালো দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা পাঁচ টেস্ট হারের পর জয় দেখলো প্রোটিয়ারা। এই প্রথম ইংল্যান্ডকে বক্সিং ডে টেস্টে হারাতে পারলো তারা, সেঞ্চুরিয়ানে যদিও এটি তাদের টানা ৬ষ্ঠ জয়।

নতুন কোচ মার্ক বাউচারের শীষ্যরা প্রথম ম্যাচেই তাকে জয় উপহার দিয়েছে। সেঞ্চুরিয়ানের সুপার স্পোর্ট পার্কে ইংল্যান্ডকে ১০৭ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে ফাফ ডু প্লেসিসের দল।

জিমি অ্যান্ডারসন নিজের ১৫০ তম টেস্ট খেলতে নেমে শুরুর বলেই পেয়েছিলেন উইকেট। এরপরেও কুইন্টন ডি ককের ব্যাটে (৯৫) চড়ে ১ম ইনিংসে ২৮৪ রান করে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪ টি করে উইকেট নেন স্যাম কারেন ও স্টুয়ার্ট ব্রড।

ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা ১ম ইনিংসে সুবিধা করে উঠতে পারেননি ফিল্যান্ডার, রাবাদাদের সামনে। মাত্র ৫৩.২ ওভার অলআউট হওয়া ইংলিশরা স্কোরবোর্ডে জমা করে ১৮১ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫০ রান করেন জো ডেনলি। ফিল্যান্ডার ৪, রাবাদা ৩ উইকেট নেন।

নিজের প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ফিফটি করেন র‍্যাসি ভ্যান ডার ডুসেন (৫১)। এছাড়া নর্টজে, ডি কক, ফিল্যান্ডারদের কার্যকরী কয়েকটি ইনিংসে ২৭২ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে প্রোটিয়ারা। খরুচে হলেও ইংল্যান্ডের হয়ে ৫ উইকেট নেন জফরা আর্চার।

৩৭৬ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নামা ইংল্যান্ড শুরুটা খারাপ করেনি। ৯২ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন ডম সিবলি ও ররি বার্নস। তবে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসাবে ররি বার্নস (৮৪) আউট হলে এরপর ইংল্যান্ড খেই হারিয়ে ফেলে। চারে নেমে ইংলিশ দলপতি ৪৮ রান করলেও তা যথেষ্ট ছিল না মোটেও। ২৬৮ রানেই অলআউট হয় ইংল্যান্ড। রাবাদা ৪, নর্টজে ৩ উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংসে ২৮৪/১০ (৮৪.৩), এলগার ০, মার্করাম ২০, হামজা ৩৯, প্লেসিস ২৯, ডুসেন ৬, ডি কক ৯৫, প্রিটোরিয়াস ৩৩, ফিল্যান্ডার ৩৫, মহারাজ ৬, রাবাদা ১২, নর্টজে ০*; অ্যান্ডারসন ২০-৪-৬৯-১, ব্রড ১৮.৩-৪-৫৮-৪, কারেন ২০-৫-৫৮-৪, আর্চার ১৯-৪-৬৫-১।

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংসে ১৮১/১০ (৫৩.২), বার্নস ৯, সিবলি ৪, ডেনলি ৫০, রুট ২৯, স্টোকস ৩৫, বেয়ারস্টো ১, বাটলার ১২, কারেন ২০, আর্চার ৩, ব্রড ২, অ্যান্ডারসন ০*; রাবাদা ১৫-১-৬৮-৩, ফিল্যান্ডার ১৪.২-৮-১৬-৪, প্রিটোরিয়াস ৮-২-২৩-১, নর্টজে ১২-২-৪৭-২।

দক্ষিণ আফ্রিকা ২য় ইনিংসে ২৭২/১০ (৬১.৪), মার্করাম ২, এলগার ২২, হামজা ৪, প্লেসিস ২০, ডুসেন ৫১, নর্টজে ৪০, ডি কক ৩৪, প্রিটোরিয়াস ৭, ফিল্যান্ডার ৪৬, মহারাজ ১১, রাবাদা ১৬*;অ্যান্ডারসন ১৩-১-৪৭-১, ব্রড ১১-২-৪২-১, আর্চার ১৭১-১০২-৫, কারেন ১২.৪-৩-৫১-১, স্টোকস ৮-১-২২-২।

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংসে ২৬৮/১০ (৯৩), বার্নস ৮৪, সিবলি ২৯, ডেনলি ৩১, রুট ৪৮, টোকস ১৪, বেয়ারস্টো ৯, বাটলার ২২, কারেন ৯, আর্চার ৪, ব্রড ৬, অ্যান্ডারসন ০*; রাবাদা ২৪-৩-১০৩-৪, নর্টজে ১৭-৪-৫৬-৩, প্রিটোরিয়াস ১৬-৬-২৬-১, মহারাজ ১৬-৩-৩৭-২।

ফলাফলঃ দক্ষিণ আফ্রিকা ১০৭ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরাঃ কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)।

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer- Cricket97

Read Previous

‘নাসুম আহমেদ নতুন ইমাদ ওয়াসিম’

Read Next

বঙ্গবন্ধু বিপিএল মাতাতে আসছেন আমলা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
11
Share