ঢাকাকে তাদের ঘরের মাঠে কাঁপিয়ে দিল চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঢাকা প্লাটুন মুক্তার আলি
Vinkmag ad

চট্টগ্রাম পর্ব শেষে আবারও বিপিএল ফিরেছে ঢাকায়। প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি স্বাগতিক দল ঢাকা প্লাটুন ও টুর্নামেন্টে এখনো পর্যন্ত শীর্ষে থাকা চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। শ্রক্রবার ছুটির দিনে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের গ্যালারি দর্শকে ভরপুর। এমন ম্যাচেই ঢাকাকে কাঁপিয়ে দেয় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, তামিম-বিজয়-আফ্রিদিরা তুলতে পারে ৯ উইকেটে ১২৪ রান।

ঢাকায় প্রথম পর্বেও নিয়মিত হয়েছে রান, চট্টগ্রাম অতীত পরিসংখ্যান বজায় রেখে উপহার দিয়েছে রান বন্যা। কুয়াশাচ্ছন্ন মিরপুরের আবহাওয়া অবশ্য দ্বিতীয় পর্বের শুরুটা রাঙাতে পারেনি। চট্টগ্রামের বোলারদের কাছে নাকানি চুবানি খেতে হয়েছে ঢাকা প্লাটুন ব্যাটসম্যানদের।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৩২ রান যোগ করেন তামিম ইকবাল-এনামুল হক বিজয়। জীবন পেয়েও ১৩ বলে ১৪ রানের বেশি করতে পারেনি এনামুল হক বিজয়। রান আউটে কাটা পড়লে ভাঙে জুটি, দুই বলের ব্যবধানে কোন রান না করেই ফিরে যান চট্টগ্রামে ঝড় তোলা মেহেদী হাসান। ৯ম ওভারের চতুর্থ বলে তামিমও নাসুম আহমেদের শিকার হয়ে ৩ উইকেটে ৫০ রানে পরিণত হয় ঢাকা।

এরপর লেগ স্পিনার রায়ান বার্লের এক ওভারে জাকের আলি ও শহীদ আফ্রিদি ফিরে গেলে আরও বিপাকে পড়ে ঢাকা। ক্রিজে এসে প্রথম বলেই ফেরেন শাদাব খানও, ৬০ রান তুলতে ঢাকা হারায় ৬ উইকেট। জাকের আলি ৩ রান করলেও দুই পাকিস্তানি আফ্রিদি ও শাদাব খান ফিরেছেন শূন্য হাতেই।

৮ রানের ব্যবধানে ফিরে যান লঙ্কান ব্যাটসম্যান থিসারা পেরেরাও, মুক্তার আলির দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে করেন মাত্র ৬ রান। ভুল বোঝাবুঝির কারণে ক্রিজে থিতু হয়েও ৩২ রানে ফিরতে হয় মুমিনুল হককে। ১০০ রানের আগেই ৮ উইকেট হারানো ঢাকা শেষদিকে মাশরাফি-ওয়াহাব রিয়াজের ৩১ রানের জুটিতে ৯ উইকেটে ১২৪ রানের সংগ্রহ পায় প্লাটুন।

১৫ বলে ২ ছক্কায় ওয়াহাব রিয়াজ ইনিংসের শেষ বলে রান আউট হওয়ার আগে করেন ২৩ রান, অন্যদিকে ১২ বলে ৩ চারে ১৭ রানে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক মাশরাফি। চট্টগ্রামের হয়ে রায়ার্ন বার্ল ও মুক্তার আলি দুটি এবং নাসুম আহমেদ ও লিয়াম প্লাংকেট একটি করে উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম ইনিংস শেষে):

ঢাকা প্লাটুন ১২৪/৯ (২০), তামিম ২১, বিজয় ১৪, মেহেদী ০, মুমিনুল ৩২, জাকের ৩, আফ্রিদি ০, শাদাব ০, পেরেরা ৬, ওয়াহাব ২৩, মাশরাফি ১৭*; নাসুম ৪-০-২১-১, প্লাংকেট ৪-০-৩০-১, মুক্তার ৪-০-১৮-২, বার্ল ১-০-১-২।

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

‘ঢাকার দ্বিতীয় পর্ব হবে শীর্ষস্থান নির্ধারক’

Read Next

‘সুপার সিরিজ’ আইডিয়ার প্রশংসায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া, তবে…

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
13
Share