‘ঢাকার দ্বিতীয় পর্ব হবে শীর্ষস্থান নির্ধারক’

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স আল আমিন হোসেন
Vinkmag ad

বঙ্গবন্ধু বিপিএল ঢাকায় প্রথম পর্বের পর চট্টগ্রাম হয়ে আবার ফিরেছে ঢাকায়। দলগুলো খেলে ফেলেছে প্রায় অর্ধেকের মত ম্যাচ, তবে সিলেট পর্বের আগে ঢাকায় দ্বিতীয় পর্বেই পয়েন্ট টেবিল অনেকটা গুছিয়ে আসবে। ঢাকার এই পর্বকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স পেসার আল আমিন হোসেনও। নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে আজ থেকে মাঠে গড়ানো ঢাকার দ্বিতীয় পর্বে আশা দেখছেন আল আমিন।

টুর্নামেন্টে ৬ ম্যাচ খেলে কুমিল্লার জয় মাত্র দুটি। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চারে জায়গা করে নিতে কুমিল্লাকে পরের ম্যাচগুলোয় জিততে হবে ধারাবাহিকভাবে। আগামীকাল রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ঢাকায় চলমান পর্ব শুরু করবে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স।

ঢাকার ম্যাচগুলোর গুরুত্ব তুলে ধরে আল আমিন বলেন, ‘সবার ৫-৬টা করে ম্যাচ শেষ হয়েছে, আরও ৫-৬টা করে আছে। অনেকে দুইটা, অনেকে তিনটা আবার অনেকে চারটাও জিতেছে। সবকিছু মিলিয়ে ঢাকা পর্বে দুই তিনটা ম্যাচ হবে এখান থেকে যারা ম্যাচ জিতবে তারাই এগিয়ে থাকবে।’

‘চট্টগ্রামে আমরা সবাই সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারিনি। উইকেট অনেক ভালো ছিল বোলাররা অনেক লড়াই করেছে। সব কিছু মিলিয়ে আমার মনে হয় সবাই প্রস্তুত। ঢাকায় ভালো কিছু আশা করতেছি।’

কুমিল্লার হয়ে শুরু থেকেই খেলা ভানুকা রাজাপাকশে ও অধিনায়ক দাসুন শানাকা দেশে ফিরে গেছেন চট্টগ্রাম পর্ব শেষে। তবে তাদের পরিবর্তে দলটির সাথে যুক্ত হচ্ছেন আরেক লঙ্কান ব্যাটসম্যান উপুল থারাঙ্গা ও দক্ষিণ আফ্রিকান পেস বোলিং অলরাউন্ডার ডেভিড ওয়াইস।

নতুন দুই বিদেশিতে আস্থা আল আমিনের, ‘আপনি দেখেন একজন ব্যাটসম্যান গেছে এবং একজন অলরাউন্ডারই গেছে। সেখানে আবার একজন ব্যাটসম্যান এবং একজন অলরাউন্ডার এসেছে। যে দুইজন প্লেয়ার আসছে বিপিএল খেলার অভিজ্ঞতা আছে এবং আমার কাছে মনে হয় তারা খুব দ্রুত দলের সঙ্গে মানিয়ে নেবে। ভালো কিছু হবে আশা করি।’

এদিকে টি-টোয়েন্টির বিশেষজ্ঞ বোলার হিসেবেই সুনাম কুড়িয়ে নেওয়া আল আমিন যেন ঠিক নিজের ছন্দে নেই চলতি বিপিএলে। ৬ ম্যাচে উইকেট নিয়েছেন ৭ টি, তবে ইকোনোমি খুব একটা ভালো নয়। সামনের ম্যাচগুলোতে নিজেকেও চেনে রুপে পাবেন বলে বিশ্বাস আল আমিনের, ‘আমার কাছে মনে হয় খেলা গেছে মাত্র ৬টা। চারটা ম্যাচ খুব ভালো হয়েছে, দুইটা ম্যাচ খারাপ গেছে। এখনও ৬টা খেলা আছে, খুব বেশি খারাপ কিছু হয়নি। আসলে দল জিততে হলে সামগ্রিক পারফরম্যান্স প্রয়োজন।’

‘বোলাররা যদি ভালো পারফরম্যান্স করে, কিন্তু ব্যাটসম্যানরা না করলে তো জেতা সম্ভব না। আমি টি-টোয়েন্টি বোলার হিসেবে যে পারফরম্যান্স করে থাকি এটা এখনও করতে পারিনি। এখনও ৬টা ম্যাচ আছে , আশা করি আমি আমার ধারায় ফিরতে পারব।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

রানা, মেহেদী’রা ডাক পাচ্ছেন জাতীয় দলের ক্যাম্পে

Read Next

ঢাকাকে তাদের ঘরের মাঠে কাঁপিয়ে দিল চট্টগ্রাম

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
4
Share