চ্যাম্পিয়ন সতীর্থদের সঙ্গে নিয়ে বিপিএল স্মরণীয় করতে চান বিজয়

এনামুল হক বিজয়

বিপিএল ইতিহাসের ৮ম সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক এনামুল হক বিজয়, খেলেছেন ভিন্ন ভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে। ৬ আসরের তিনটিতেই অংশ ছিলেন শিরোপাজয়ী দলের। এবার খেলবেন ঢাকা প্লাটুনের হয়ে, সতীর্থ হিসেবে পাচ্ছেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল ও বাংলাদেশের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকে। বিদেশিদের মধ্যে থাকছেন শহীদ আফ্রিদি, থিসারা পেরেরা , ওয়াহাব রিয়াজের মত তারকরা। অন্যদিকে কোচ হিসেবে আছেন দেশের অন্যতম সেরা কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।

ভারসাম্য বিবেচনায় নিলে এবারের বিপিএলেও বরাবরের মত ফেভারিটের তকমা থাকছে ঢাকার দল ঢাকা প্লাটুনের গায়ে। এনামুল হক বিজয় বলছেন সেরা একটা দলই পেয়েছেন এবারের বিপিএলে, নিজেদের মধ্যে ইতোমধ্যে কাজ করা শুরু করেছে বাড়তি রোমাঞ্চ। প্রত্যাশার চাপ কাটিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলে এবারের বিপিএলকে স্মরণীয় করে রাখতে চান বলেও জানান বিজয়।

বেশ কদিন ধরেই মিরপুর একাডেমি মাঠে শিষ্যদের নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটছে কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের। প্রথম দুই-তিনদিন শুধু তামিম, মাশরাফি ও মুমিনুলকে দেখা গেলেও শনিবার (৩০ নভেম্বর) থেকে অনুশীলনে বাড়তে শুরু করে ঢাকা প্লাটুনের ক্রিকেটারদের সংখ্যা। অর্থাৎ অন্যান্য দলের চাইতে বেশ আগেই নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করে দিয়েছে ঢাকা প্লাটুন।

আজ (১ ডিসেম্বর) অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এনামুল হক বিজয় জানান কেমন হয়েছে দল ও এত আগেই অনুশীলন শুরু করার কারণ, ‘আমাদের ঢাকা প্লাটুনের অসাধারণ একটি দল হয়েছে আমার কাছে মনে হয়। দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল সেখানে আছেন, টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল আছেন। মাশরাফি ভাইয়ের মতো লিডার আছেন, আফ্রিদি, ওয়াহাব রিয়াজদের মতো ক্রিকেটার আছেন। কোচ হিসেবে থাকছে সালাউদ্দিন স্যার, যে দলে স্বাচ্ছন্দ্যমতো খেলা যাবে। দলের জন্য দলের মতো করে খেলা যাবে।’

‘আমার কাছে মনে হয় ঢাকা ঢাকার মতোই দল করেছে। ঢাকার জন্য একটা উত্তেজনা কাজ করে সবার মধ্যে। আমার মনে হয় এবারও সেটা থাকবে। দল হিসেবে আমরা অনেক ভালো আছি। অনেক আগেভাগে আমরা অনুশীলনও শুরু করেছি। আমাদের মধ্যে সেই রোমাঞ্চ আছে বলেই আমরা অনেক আগেভাগে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছি। আশা করি আমরা খুব তাড়াতাড়ি দলের সব ক্রিকেটারকে পেয়ে যাবো। অনুশীলন আরও ভালোমতো শুরু করতে পারব।’

সতীর্থ, কোচ সবমিলিয়ে ফেভারিট হিসেবে শীর্ষে থাকার মত দলে খেলবেন, নিজের শতভাগ দিয়ে বিজয় স্মরণীয় করে রাখতে চান এবারের বিপিএলকে, ‘চেষ্টা করব এবারের বিপিএলটা খুব আনন্দের সাথে খেলার। যেহেতু মাশরাফি ভাই আছে, গ্ল্যাডিয়েটরে দুইবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছি, তারপর কুমিল্লাতে তামিম ভাইয়ের সাথে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। চ্যাম্পিয়ন সতীর্থ সবাই। আমার মনে হয় খুব আনন্দের মধ্যে দিয়ে যাবে। এই আনন্দটাকে যদি ক্রিকেট মাঠে আমি খুব সুন্দর করে উপভোগ করতে পারি, নিজের শতভাগ দিয়ে থাকতে পারি তাহলে এই বিপিএল আমার জন্য খুব স্মরণীয় হবে।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

বদলেছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সময়সূচি

Read Next

ওয়ার্নারকে টেনে ইমামকে খোঁচা দিল আইসল্যান্ড ক্রিকেট

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
10
Share