বাবর আজমের সেঞ্চুরিতেও শেষ রক্ষা হয়নি পাকিস্তানের

অস্ট্রেলিয়া

ইনিংস পরাজয় এড়াতে ৭ উইকেট হাতে নিয়ে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ২৭৬ রান। বাবর আজমের সেঞ্চুরি ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের দুর্দান্ত এক ইনিংসের পরও ব্রিসবেন টেস্টে ইনিংস ও ৫ রানে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। ১৯৮৮ সাল থেকে গ্যাবায় না হারার রেকর্ডটি অক্ষুণ্ণ থাকলো অজিদের। এই নিয়ে বিদেশের মাটিতে সবশেষ পাঁচ ম্যাচই হেরেছে পাকিস্তান।

শান মাসুদ-বাবর আজমের আগের দিনের ৩৯ রানের অবিচ্ছেদ্য জুটি থামে ৬৮ রানে। দলীয় ৯৩ রানে ৪২ রান করা শান মাসুদ প্যাট কামিন্সের শিকার হলে ভাঙে জুটি। এরপর কোন রান না করেই ফেরেন ইফতিখার আহমেদ। ৯৪ রানেই ৫ উইকেট নেই পাকিস্তানের।

বড় হারের শঙ্কায় পড়ে পাকিস্তান। বাবর আজম-রিজওয়ানের ১৩২ রানের জুটিতে বিপর্যয় কাটিয়ে ইনিংস পরাজয় এড়ানোর দিকেও এগুচ্ছিল সফরকারীরা। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পান বাবর আজম, নাথায় লায়নের বলে আউট হওয়ার আগে করেন ১৭৩ বলে ১৩ চারে ১০৪ রান। বাবর আজমের বিদায়ের পর ইয়াসির শাহকে নিয়ে শেষ চেষ্টা চালান মোহাম্মদ রিজওয়ান।

দুজনে জুটিতে যোগ করেন ৭৯ রান, উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান রিজওয়ান মাত্র ৫ রানের জন্য মিস করেন প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ। হ্যাজেলউডের বলে আউট হওয়ার আগে ১০ চারে ১৪৫ বলে করেন ৯৫ রান। ইয়াসির শাহের ব্যাট থেকে আসে ৪২ রান, লেজের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ইনিংস ব্যবধানে হার এড়াতে পারেনি পাকিস্তান। অল আউট হওয়ার আগে থামে ৩৩৫ রানে, হারে ইনিংস ও ৫ রানে।

হ্যাজেলউড নেন সর্বোচ্চ ৪ উইকেট, ৩ টি শিকার মিচেল স্টার্কের। দুটি নেন প্যাট কামিন্স ও নাথান লায়নের শিকার একটি উইকেট। এর আগে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংসে ২৪০ এর জবাবে ডেভিড ওয়ার্নারের ১৫৪ এর পাশাপাশি মারনাস লাবুশানের ১৮৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া পায় ৫৮০ রানের পাহাড়সম সংগ্রহ। লাবুশানের অভিষেক সেঞ্চুরির পাশাপাশি ম্যাথু ওয়েডও তুলে নিয়েছিলেন ফিফটি।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ভারত খেলতেই আছে, বাংলাদেশ শিখতেই আছে

Read Next

লজ্জাজনক এক রেকর্ড বইয়ের সেরা পাঁচে ইমরুল-মিঠুন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
5
Share