গোলাপি বলের রোমাঞ্চে বুঁদ মেহেদী মিরাজ

মেহেদী হাসান মিরাজ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি

ইনদোর টেস্ট বাংলাদেশ হেরেছে তিনদিনে, ভারতের বিপক্ষে ইনিংস ও ১৩০ রানে হেরে এমনিতেই ব্যাকফুটে বাংলাদেশ। ম্যাচ হেরে দুইদিন বাড়তি সময় অবশ্য বাংলাদেশ হেলাফেলায় কাটায়নি। কোলকাতার টিকিট কাটা ১৯ নভেম্বরের, ফলে চাইলেও উড়াল দেওয়া সম্ভব নয়। ইনদোর টেস্টের শেষ দুইদিন তাই নতুন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করা গোলাপি বল ও ফ্লাডলাইটের নিচে নিজেদের নিয়েছে ঝালিয়ে। গোলাপি বল নিয়ে দুশ্চিন্তা নয় রোমাঞ্চ কাজ করছে বলে জানালেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

ঐতিহাসিক কোলকাতা টেস্ট নিয়ে এমনিতেই উন্মাদনার শেষ নেই, আছে প্রথমবারের মত গোলাপি বলে দিবারাত্রির টেস্টে শক্তিশালী ভারতের মোকাবেলা করার চ্যালেঞ্জও। এই নিয়ে অবশ্য যতবারই সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন নয়া টেস্ট কাপ্তান মুমিনুল ততবারই দিয়েছেন প্রায় একই উত্তর। গোলাপি বলকে শঙ্কা আর চ্যালেঞ্জ হিসেবে নয় নিতে চান সুযোগ হিসেবে, করতে চান উপভোগ। আজ (১৮ নভেম্বর) অনুশীলন শেষে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজও একই সুরে কথা বললেন।

নেটে গোলাপি বলে অনুশীলন শেষে মিরাজ সাংবাদিকদের জানান, ‘আজকে আমি ব্যাটিং করেছি তো বলটা একটু মুভ করতেছিল। আমার কাছে মনে হয় বলটা একটু ভারি ব্যাটে লাগলে খুব দ্রুত যায়। আমার কাছে মনে হয় পিংক বলে সুইং থাকতে পারে একটু বেশি প্রথম দিকে, অনেক সময় কাটও করতে পারে। দেখলাম মাঝেমাঝে বল কাটও করছে। তারপরও ম্যাচে গেলে কেমন হয় আসলে সবারই অভিজ্ঞতা নাই।’

প্রথমবারের মত নামবে দিবারাত্রির টেস্ট খেলতে, পর্যাপ্ত প্রস্তুতির সময় পায়নি মিরাজরা। ইনদোর টেস্ট তিনদিনে শেষ হওয়ায় বাড়তি দুইদিন পাওয়া গেছে নিজেদের সামলে নেওয়ার, অনুশীলন সম্পর্কে বলতে গিয়ে মিরাজ দিয়েছেন বল সম্পর্কেও ধারণা। এ প্রসঙ্গে এই অলরাউন্ডার যোগ করেন, ‘যতটুকু আমরা অনুশীলন করেছি বিশেষ করে এরকম সময় পাইনি।’

‘যতটুকুই পাচ্ছি আমরা কাভার করার চেষ্টা করছি, পিংক বলে শতভাগ ইউটিলাইজ করার চেষ্টা করেছি। প্রথম দিকে একটু স্ট্রাগল করতে হবে। কারণ, আমার কাছে মনে হয় শুরুতে মানিয়ে নিতে পারলে সেট হতে পারলে পরে সহজ হয়ে যাবে। আমার কাছে মনে হয় স্পিনাররা স্কিড করতে পারবে বেশি, বাউন্স, টার্নও থাকতে পারে। যতটুকু অনুশীলন করলাম মনে হচ্ছে বলটা ফরওয়ার্ড হচ্ছে, বাউন্স থাকতেছে স্পিনাদের জন্য। এটা হয়তো বাড়তি সুবিধা হবে স্পিনারদের জন্য।’

গোলাপি বল নিয়ে বাড়তি ভয় কিংবা উৎকণ্ঠা নয় বরং রোমাঞ্চিত উল্লেখ করে মিরাজ বলেন, ‘আসলে সবাই ইতিবাচক সাথে উত্তেজিতও- গোলাপি বল ও ফ্লাডলাইটের নিচে প্রথমবার খেলবো বলে। নতুন একটা অভিজ্ঞতা, টেনশন না বরং বাড়তি রোমাঞ্চ কাজ করছে গোলাপি বলে খেলবে প্রথমবার। সচরাচর যেরকম হয় সেরকমই, সবাই স্বাভাবিক আছি। সবসময় যেভাবে ম্যাচে, মাঠে নামি- সেরকমই আছি।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

শামির কাছ থেকে পরামর্শ নিয়েছেন আবু জায়েদ

Read Next

ভূমিকা বদলে মুশফিকের পরামর্শ নিচ্ছেন মিরাজ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
3
Share