ইন্সটাগ্রামে পোস্ট দিয়ে একবছর নিষিদ্ধ এমিলি স্মিথ!

এমিলি স্মিথ

নারী বিগ ব্যাশ দল হোবার্ট হারিকেনস উইকেট রক্ষক এমিলি স্মিথ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দুর্নীতি বিরোধী কোড ভঙ্গ করে একবছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন। যার মধ্যে ৯ মাস সাসপেন্ডেড ফলে মিস করতে যাচ্ছেন নারী বিগ ব্যাশের বাকি ম্যাচগুলোসহ নারী জাতীয় ক্রিকেট লিগও।

সোমবার রাতে দেওয়া ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এক বিবৃতি নিশ্চিত করেছে যে স্মিথ দুর্নীতি দমন কোডের ২.৩.২ অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করেছেন। গত ২ নভেম্বর সিডনি থান্ডারের মুখোমুখি হয় স্মিথের হারিকেনস। ম্যাচ শুরুর প্রায় এক ঘন্টা আগে নিজের ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে দলের লাইনআপ পোস্ট করেই বিপাকে এই নারী ক্রিকেটার।

স্মিথের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া পোস্টটি জুয়াড়িদের কাজ সহজ করে দেওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে এমন ধারায় পড়ে। অনুচ্ছেদ ২.৩.২ এ বলা আছে ভেতরের কোন তথ্য কাউকে প্রকাশ করা যেখানে অংশগ্রহণকারী তথ্য জানে কিংবা জানাটা দায়িত্বের মধ্যে পড়ে যা বাজিকরদের সাথে সম্পৃক্ত এমন কিছু প্রকাশিত হলে সংশ্লিষ্ট খেলোয়াড় নির্দিষ্ট  ম্যাচ কিংবা টুর্নামেন্ট থেকেই নিষিদ্ধ হতে পারে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা প্রধান শন ক্যারল বলছেন খেলোয়াড়েরা বেশ ভালো করেই দুর্নীতি দমন কোড সম্পর্কে জানে, ফলে খেলোয়াড়রা দুর্নীতি দমন অভিযান কার্যক্রমকে সম্মান জানাবেন এটাই আশা করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা জানি সে (স্মিথ) ওই পোস্টটা কোন উদ্দেশ্য নিয়ে করেনি কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এসব ব্যাপারে তাদের বেশ ভালো শিক্ষা দিয়েছে। তারা অবশ্যই জানে কোন জায়গায় তাদের বাধ্যবাধকতা আছে, কোন জায়গায় নেই।’

‘চলতি নারী বিগ ব্যাশ শুরুর পর থেকেই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দুর্নীতি দমন ইউনিট বেশ শক্তভাবে কাজ করছে। আমরা পুরো বিষয়টি নিয়ে এমিলির সাথে কাজ করছি সে বুঝতে পেরেছে ভুল করেছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে ইতোমধ্যে এটি দুর্নীতি দমন কোড ভঙ্গ করেছে। আমরা মনে করি এটি (এমিলির সাজা) বেশ কড়া বার্তা দেয় যে দুর্নীতি দমনে আমরা কতটা শক্ত অবস্থানে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দল চ্যাম্পিয়ন হতে পারে বলে বিশ্বাস সালমার

Read Next

এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছেন শাহাদাত!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
12
Share