বড় পরাজয় দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু বাংলাদেশের

মুশফিকুর রহিম

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ১৫০/১০ (৫৮.৩), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মুমিনুল ৩৭, মিঠুন ১২, মুশফিক ৪৩, মাহমুদউল্লাহ ১০, লিটন ২১, মিরাজ ০, তাইজুল ১, রাহি ৭*, এবাদত ২; ইশান্ত ২০/২, উমেশ ৪৭/২, শামি ২৭/৩, অশ্বিন ৪৩/২।

ও ২১৩/১০ (৬৯.২), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মিঠুন ১৮, মুশফিক ৬৪, মাহমুদউল্লাহ ১৫, লিটন ৩৫, মিরাজ ৩৮, তাইজুল ৬, রাহি ৪*, এবাদত ১; ইশান্ত ৩১/১, উমেশ ৫১/২, শামি ৩১/৪, অশ্বিন ৪২/৩।

ভারত ৪৯৩/৬ (১১৪) ইনিংস ঘোষণা- মায়াঙ্ক ২৪৩, রোহিত ৬, পুজারা ৫৪, কোহলি ০, রাহানে ৮৬, জাদেজা ৬০*, সাহা ১২, উমেশ ২৫*; রাহি ১০৮/৪, এবাদত ১১৫/১, মিরাজ ১২৫/১।

ফলাফলঃ ভারত ইনিংস ও ১৩০ রানে জয়ী।

অশ্বিন পেলেন ইনিংসে নিজের তৃতীয় উইকেট। অশ্বিনের বল চালিয়ে খেলেছিলেন এবাদত। বল জমা পড়ে উমেশ যাদবের হাতে। ইনিংস ও ১৩০ রানে পরাজিত হলো বাংলাদেশ।

শেষ হলো তাইজুল-মুশফিকের প্রতিরোধঃ একপ্রান্তে খেলছেন ফিফটি পূর্ণ করা মুশফিকুর রহিম। অন্যপ্রান্তে প্রতিরোধ গড়েছিলেন তাইজুল ইসলাম। ৪৩ বল খেলে অবশেষে সেই প্রতিরোধ ভেঙেছে মোহাম্মদ শামির বাউন্সারে। ৪৩ বলে ১ চারে ৬ রান করেন তাইজুল। পরের ওভারে অবশ্য ফিরেছেন মুশফিকও। ১৫০ বলে ৭ চারে ৬৪ রান করে অশ্বিনের বলে পুজারাকে ক্যাচ দিয়েছেন তিনি।

বোল্ড হয়ে ফিরলেন মিরাজঃ চা বিরতির পর প্রথম ওভারেই সাজঘরে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ৫৫ বলে ৫ চার ও ১ ছয়ে ৩৮ রান করে উমেশ যাদবের বলে বোল্ড হন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৩য় দিন, ২য় সেশন শেষে): বাংলাদেশ ১৫০/১০ (৫৮.৩), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মুমিনুল ৩৭, মিঠুন ১২, মুশফিক ৪৩, মাহমুদউল্লাহ ১০, লিটন ২১, মিরাজ ০, তাইজুল ১, রাহি ৭*, এবাদত ২; ইশান্ত ২০/২, উমেশ ৪৭/২, শামি ২৭/৩, অশ্বিন ৪৩/২।

ও ১৯১/৬ (৫৪), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মিঠুন ১৮, মুশফিক ৫৩*, মাহমুদউল্লাহ ১৫, লিটন ৩৫, মিরাজ ৩৮*; ইশান্ত ৩১/১, উমেশ ৪২/১, শামি ২৫/৩, অশ্বিন ৩৮/১।

ভারত ৪৯৩/৬ (১১৪) ইনিংস ঘোষণা- মায়াঙ্ক ২৪৩, রোহিত ৬, পুজারা ৫৪, কোহলি ০, রাহানে ৮৬, জাদেজা ৬০*, সাহা ১২, উমেশ ২৫*; রাহি ১০৮/৪, এবাদত ১১৫/১, মিরাজ ১২৫/১।

বাংলাদেশ ১৫২ রানে পিছিয়ে।

মুশফিকের ফিফটিঃ ১ম ইনিংসে ৪০ পার করেও ফিফটির দেখা পাননি। দুইবার জীবন ফিরে পেয়েও। ২য় ইনিংসেও স্লিপে রোহিত শর্মা ক্যাচ ছেড়েছেন, রানআউট হতে যেয়েও বেঁচেছেন। তবে এ যাত্রায় ফিফটি করতে সমর্থ হয়েছেন। এটি টেস্ট ক্যারিয়ারে মুশফিকের ২০ তম ফিফটি।

 

View this post on Instagram

 

1st fifty in the match for Bangladesh. #INDvBAN #Bangladesh

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

আশা জাগানিয়া শুরুর পর ফিরলেন লিটনঃ ৪ মেরে রানের খাতা খুলেছিলেন লিটন দাস। দারুণ সব শটে রান আদায় করে নিচ্ছিলেন। ৩৯ বলে ৬ টি চার তারই প্রমাণ। তবে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে এগিয়ে এসে তুলে মারার চেষ্টা করলে অসফল হন (৩৫)। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ ধরে দ্বিতীয় ইনিংসে নিজের প্রথম উইকেট পান অশ্বিন।

ফিরলেন মাহমুদউলাহঃ এর আগে মোহাম্মদ শামির বলে স্লিপে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ ছেড়েছিলেন রোহিত শর্মা। দ্বিতীয় দফাতে আবার স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা রোহিত ক্যাচ পান। শামির বলে কাচ দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দ্বিতীয় স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা রোহিত সহজেই নেন ক্যাচ। ৭২ রান তুলতেই নেই বাংলাদেশের ৫ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৩য় দিন, ১ম সেশন শেষে): বাংলাদেশ ১৫০/১০ (৫৮.৩), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মুমিনুল ৩৭, মিঠুন ১২, মুশফিক ৪৩, মাহমুদউল্লাহ ১০, লিটন ২১, মিরাজ ০, তাইজুল ১, রাহি ৭*, এবাদত ২; ইশান্ত ২০/২, উমেশ ৪৭/২, শামি ২৭/৩, অশ্বিন ৪৩/২।

ও ৬০/৪ (২২), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মিঠুন ১৮, মুশফিক ৯*, মাহমুদউল্লাহ ৬*; ইশান্ত ১৫/১, উমেশ ৩০/১, শামি ৮/২।

ভারত ৪৯৩/৬ (১১৪) ইনিংস ঘোষণা- মায়াঙ্ক ২৪৩, রোহিত ৬, পুজারা ৫৪, কোহলি ০, রাহানে ৮৬, জাদেজা ৬০*, সাহা ১২, উমেশ ২৫*; রাহি ১০৮/৪, এবাদত ১১৫/১, মিরাজ ১২৫/১।

বাংলাদেশ ২৮৩ রানে পিছিয়ে।

ফিরে গেলেন মিঠুনওঃ নিজের করা ১ম ওভারে ফিরিয়েছিলেন মুমিনুল হককে। ২য় ওভারে এসেই ফেরালেন মোহাম্মদ মিঠুনকে। ২৬ বলে ৪ চারে ১৮ রান করা মিঠুনকে স্কিডি বাউন্সারে ক্যাচ তুলে দিতে বাধ্য করেন। মিডউইকেটে দাঁড়িয়ে থেকে লোপ্পা এক ক্যাচ নেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল।

এবার রিভিউ নিয়ে সফল হল ভারতঃ আগে একবার রিভিউ নিয়ে অসফল হয়েছিলেন। ব্যাটসম্যান ছিলেন মুমিনুল হক। একই ব্যাটসম্যানের বিপক্ষে দ্বিতীয় দফায় রিভিউ নিয়ে অবশ্য সফল হয়েছে ভিরাট কোহলির দল। ২০ বলে ৭ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন মুমিনুল হক।

বোল্ড হলেন সাদমানওঃ ১ম ইনিংসের সঙ্গে মিল রাখতেই যেনো সাদমান ইসলাম খেললেন ২৪ বল, আউট হলেন ইশান্ত শর্মার বলে ঠিক ৬ রানের মাথায়। যদিও এদফায় বোল্ড হয়েছেন সাদমান। প্রথম ইনিংসে ক্যাচ দিয়েছিলেন উইকেটের পেছনে।

রিভিউ নষ্ট হল ভারতেরঃ মুমিনুল হকের প্যাডে লেগেছিল উমেশ যাদবের ভেতরে ঢুকতে থাকা বল। কোন শট অফার করেননি টাইগার দলপতি। আম্পায়ার মারিয়াস এরাসমাস আউট না দিলে রিভিউ নেয় ভারত। যদিও তাতে অসফল হয়েছে ভারত। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়- বল উইকেট মিস করে চলে যাচ্ছিল।

Image

বোল্ড হয়ে ফিরলেন ইমরুলঃ ১ম ইনিংসে ১৮ বল খেলে করেছিলেন ৬ রান। ২য় ইনিংসেও ঠিক ৬ রান করেছেন, এবার অবশ্য খেলেছেন ১৩ বল। উমেশ যাদবের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস।

ভারতের ইনিংস ঘোষণাঃ ৩৪৩ রানে এগিয়ে থেকে ১ম ইনিংস ঘোষণা করেছে ভারত। দিনের শুরুতে ২য় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেছে বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (২য় দিন শেষে): বাংলাদেশ ১৫০/১০ (৫৮.৩), সাদমান ৬, ইমরুল ৬, মুমিনুল ৩৭, মিঠুন ১২, মুশফিক ৪৩, মাহমুদউল্লাহ ১০, লিটন ২১, মিরাজ ০, তাইজুল ১, রাহি ৭*, এবাদত ২; ইশান্ত ২০/২, উমেশ ৪৭/২, শামি ২৭/৩, অশ্বিন ৪৩/২।

ভারত ৪৯৩/৬ (১১৪), মায়াঙ্ক ২৪৩, রোহিত ৬, পুজারা ৫৪, কোহলি ০, রাহানে ৮৬, জাদেজা ৬০*, সাহা ১২, উমেশ ২৫*; রাহি ১০৮/৪, এবাদত ১১৫/১, মিরাজ ১২৫/১।

বাংলাদেশ একাদশঃ ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম অনিক, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহি, এবাদত হোসেন।

ভারত একাদশঃ মায়াঙ্ক আগারওয়াল, রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পুজারা, ভিরাট কোহলি, আজিঙ্কা রাহানে, রবীন্দ্র জাদেজা, ঋদ্ধিমান সাহা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, উমেশ যাদব, মোহাম্মদ শামি ও ইশান্ত শর্মা।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রাসেল ঝড়ে শুরু হল টি-১০ লিগ

Read Next

বঙ্গবন্ধু বিপিএলঃ প্লেয়ার ড্রাফটে থাকছেন যেসব বিদেশি তারকারা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
10
Share