‘সাকিবের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কম হয়ে গেছে’

সাকিব আল হাসান মাইকেল ভন
Vinkmag ad

বাংলাদেশের ক্রিকেট তো বটেই, বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচিত খবর এখন সাকিব আল হাসানের ২ বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা। তিনটি ভিন্ন ঘটনায় ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেও তা আইসিসিকে অবহিত করেননি সাকিব। যা আইসিসির কোড অফ কন্ডাক্টের অনুচ্ছেদ নম্বর ২.৪.৪ পরিপন্থী। 

সাকিবের এই দুই বছরের নিষেধাজ্ঞাকে লঘুদণ্ড বলে মনে করছেন সাবেক ইংলিশ দলপতি মাইকেল ভন।

মাইকেল ভন তাঁর ভেরিফাইড টুইটারে লেখেন- সাকিব আল হাসানের জন্য কোন সহানুভূতি নেই, কোনই সহানুভূতি নেই। এই যুগে যেখানে ক্রিকেটারদের বলে দেওয়া থাকে যে তাঁরা কি করতে পারবেন, কি করতে পারবেন না। এবং কি কি বিষয় নিয়ে সাথে সাথে রিপোর্ট করতে হবে- সেখানে ২ বছর মোটেও যথেষ্ট নয়, নিষেধাজ্ঞার সময়টা আরো লম্বা হওয়া উচিত ছিলো।

উল্লেখ্য, সাকিবের বিপক্ষে অভিযোগ ছিলো তাঁর কাছে এসেছিলো ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব। তিনি তা প্রত্যাখ্যান করলেও সে সম্পর্কে জানান নি আইসিসিকে। তাই তাঁকে শাস্তি দিয়েছে আইসিসি।

যদিও তাঁকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে তবে তাঁর সন্তোষজনক আচার-আচরণের কারণে সে ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবরে আবার মাঠে নামার জন্য ফ্রি হবেন।

তিন দফাতে আইসিসির অ্যান্টি করাপশন কোড অফ কন্ডাক্টের অনুচ্ছেদ নম্বর ২.৪.৪ লঙ্ঘন করেছেন সাকিব আল হাসান।

২০১৮ সালের শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের মধ্যকার ত্রিদেশীয় সিরিজে দুইবার ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়ে প্রত্যাখ্যান করা সাকিব আইসিসিকে জানায়নি। এবং ২০১৮ সালের ২৬ এপ্রিল আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ম্যাচেও ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়ে প্রত্যাখ্যান করা সাকিব আইসিসিকে জানাননি।

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer- Cricket97

Read Previous

‘৩’ টি চার্জ স্বীকার করা সাকিব নিষিদ্ধ ‘২’ বছর

Read Next

মিরপুরে চলছে ভক্ত-সমর্থকদের বিক্ষোভ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
9
Share