বোর্ডের পাশাপাশি নারীরা গণমাধ্যমেও বৈষম্যের শিকার!

519A7329
Vinkmag ad

বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা যে ছেলেদের তুলনায় পারিশ্রমিকসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধায়ও বেশ পিছিয়ে সেটা বলার অপেক্ষা রাখেনা। কদিন আগে ক্রিকেটাররা প্রথমে ১১ দফা দাবি উত্থাপন করলেও দ্বিতীয় ধাপে নারীদের সমান আর্থিক নিশ্চয়তাসহ দাবি বাড়ায় আরও দুইটি। নারীদের সমান অধিকার নিয়ে বেশ সচেষ্ট ছিল ক্রিকেটাররা, শুধু ক্রিকেটার নয় সমান অধিকারের পক্ষে নারী দলের প্রধান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলও।

বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের ক্রিকেটারদের যৎ সামান্য ম্যাচ ফি নিয়েও সমালোচনা হয়েছে বেশ। যদিও পরে সেটা বাড়ানো হয় কিন্তু ঠিক পর্যাপ্ত পরিমাণ বলা যায়না। শুধু আর্থিক দিক দিয়ে নয় সালমা- জাহানারারা গণমাধ্যমেও বৈষম্যের শিকার হন বলে মনে করেন  বিসিবির নারী উইংয়ের প্রধান। মুখে সমান অধিকার বললেও প্রয়োগের ক্ষেত্রে সেটা সম্পূর্ণ আলাদা চিত্র তুলে ধরেন শফিউল আলম চৌধুরী।

নারীদের মধ্যেও জেতার অভ্যাস তৈরি হচ্ছে উল্লেখ করে শফিউল আলম গতকাল (২৭ অক্টোবর) মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখন আমাদের মেয়েরা জেতার অভ্যাস করে ফেলেছে। ওরাও জিততে পারে এই আত্মবিশ্বাসটা তাদের মধ্যে আছে। কালকে পাকিস্তানে আমরা হেরেছি যদিও, তবে অনেক ফাইট করে হেরেছি। শ্রীলঙ্কায় আমরা জিতলাম’।

পুরুষ ক্রিকেট দল এমন কিছু করলে সংবাদ মাধ্যমের আলো অনেক বেশি কাড়তো বলে মনে করেন নারীদের প্রধান,  ‘ছেলেরা এটা করলে যে হাইলাইট হতো মেয়ে বলে সেভাবে হয় নাই। এই জায়গায় বৈষম্য সাংবাদিকরাও করেন ক্রিকেট বোর্ডও করে। আমি আমার ঘরে করি আপনি আপনার ঘরে করেন। এই জায়গা থেকে সবাইকেই বেরিয়ে আসতে হবে। আমরা বৈষম্যহীনতা যতটা মুখে উচ্চারণ করি সত্যিকার অর্থে কতটা মিন করি এটা বিবেককে প্রশ্ন করতে হবে। ‘

নারীদের খেলার ফলাফল বোর্ডের তরফ থেকে সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া হলেও সেটা প্রচার হয়না বলে অভিযোগ নাদেলের, ‘আমরা ফলাফলগুলো সবাইকে দিয়েছি। কেউ বলতে পারবেন না পাননি। প্রিন্ট বা ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কয়টায় এই খবরটি এসেছে? আপনি দশটির মধ্যে দেখেন কয়টি দিয়েছে। দশটির মধ্যে দুটি বা একটি যদি করে তাহলে এটাকে করা বলবেন না। কেউ পাকিস্তানেরটা করেছে?’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

নারীদের টেস্ট স্ট্যাটাস পেতে কাজ করছে বিসিবি

Read Next

বিসিবি সভাপতির শঙ্কাঃ শেষমুহূর্তে ‘না’ বললে কি হবে!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
4
Share